শিক্ষককে তার দায়িত্বের জায়গায় দায়বদ্ধ ও আন্তরিক হতে হবে -সিনিয়র সচিব আমিনুল ইসলাম খান শিক্ষককে তার দায়িত্বের জায়গায় দায়বদ্ধ ও আন্তরিক হতে হবে -সিনিয়র সচিব আমিনুল ইসলাম খান - ajkerparibartan.com
শিক্ষককে তার দায়িত্বের জায়গায় দায়বদ্ধ ও আন্তরিক হতে হবে -সিনিয়র সচিব আমিনুল ইসলাম খান

4:01 pm , July 29, 2022

আরিফ আহমেদ, বিশেষ প্রতিবেদক ॥ প্রাথমিক শিক্ষা সংশ্লিষ্ট সকলকে আন্তরিক ও দায়িত্বশীল হবার আহ্বান জানালেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব আমিনুল ইসলাম খান। তিনি বলেন, বরিশাল বিভাগের প্রাথমিক শিক্ষা ব্যবস্থার সার্বিক চিত্র খুবই হতাশাজনক। শিক্ষা ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে নিয়োজিত এ অঞ্চলের প্রশিক্ষক, কর্মকর্তা ও শিক্ষক সকলের মধ্যেই আন্তরিকতা অভাব স্পষ্ট হলো বরিশাল বিভাগের প্রাথমিক শিক্ষা দপ্তর আয়োজিত মতবিনিময় সভায়। এই সভার প্রধান অতিথি বরিশালের কৃতিসন্তান সিনিয়র সচিব আমিনুল ইসলাম খান আরো বললেন, কিন্ডারগার্টেনের সাথে প্রতিযোগিতায় নামতে হবে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোকে। আর এজন্য মা সমাবেশ, সূধী সমাবেশ নয়, শিক্ষার মান বৃদ্ধি করতে হবে। প্রত্যেক শিক্ষককে তার দায়িত্বের জায়গায় দায়বদ্ধ ও আন্তরিক হতে হবে। সচিব আরো বলেন, একজন প্রশিক্ষক যখন লিডারশীপ প্রশিক্ষণ দেন, তাকে অবশ্যই জানতে হবে একজন প্রধান শিক্ষকের প্রধান কাজ কি? আর একজন প্রধান শিক্ষক যখন নিজ বিদ্যালয়টিকে সেরা বিদ্যালয় করার ঘোষণা দেন তখনই মানসম্মত শিক্ষা ব্যবস্থা নিশ্চিত হতে পারে।
শুক্রবার বিকেলে নগরীর সাগরদি পিটিআই মিলনায়তনে আয়োজিত বরিশাল বিভাগের সহকারী শিক্ষক, প্রধান শিক্ষক ও প্রাথমিক শিক্ষা সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাগনের সাথে মতবিনিময় সভার প্রধান অতিথি প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব আমিনুল ইসলাম খান নিজেই সঞ্চালনার দায়িত্ব তুলে নিয়ে সরাসরি কথা বলেন মিলনায়তনে উপস্থিত বরিশাল বিভাগের ছয় জেলার বিভিন্ন উপজেলা ও ইউনিয়ন থেকে আগত শিক্ষা সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিবর্গের সাথে। একে একে তিনি কথা বলেন ও প্রশ্ন করেন পটুয়াখালীর কলাপাড়ার প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক নুরুল ইসলাম, পিরোজপুরের ইন্দুরকানির শিক্ষক এনামুল হক, রাজাপুরের শিক্ষক রফিকুল ইসলাম প্রমুখদের সাথে। জানতে পারেন বহুবিধ কারণে প্রাথমিক শিক্ষা ব্যবস্থা দূর্বল। সবার আগে কিন্ডারগার্টেন এর সাথে প্রতিযোগিতায় নামতে হবে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোকে সহমত পোষণ করেন সচিব নিজেও।
ভোলার ভারপ্রাপ্ত উপজেলা শিক্ষা অফিসার শিরিন সুলতানা এবং পটুয়াখালীর ভারপ্রাপ্ত শিক্ষা অফিসার শিরিন আক্তার প্রমুখের বক্তব্যে উঠে আসে ২০৯ বা ১১০টি স্কুলে ভিজিট করার সমস্যা। সচিব বলেন, আমি প্রতিদিন এই সব স্কুলে ভিজিট করার পরামর্শ দেব। আপনারা এখন অনায়াসে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ঘোষিত ডিজিটাল বাংলাদেশ সুবিধা ব্যবহার করতে পারেন। অনলাইনে সব স্কুলের প্রধান শিক্ষককে যুক্ত করে নিন। গ্রুপওয়াইজ স্কুলগুলো দেখুন কি অবস্থা। এটা এখন খুবই সহজ।
মতবিনিময় সভায় সচিব আমিনুল ইসলাম খান একজনের থেকে সমস্যা শুনে আরেকজনের কাছেই সমাধানের পথ খুঁজে নেন। সবশেষে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি যার যার দায়িত্ব সঠিকভাবে ও আন্তরিকতার সাথে পালন করার আহ্বান জানান।
এই মতবিনিময় সভায় বিশেষ অতিথি প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মোঃ মুহিবুর রহমান, অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (রাজস্ব) খোন্দকার আনোয়ার হোসেন ও বরিশালের জেলা প্রশাসক জসিম উদ্দিন হায়দারও বক্তব্য রাখেন।
প্রাথমিক শিক্ষা বরিশাল বিভাগের উপ-পরিচালক মোঃ জালাল উদ্দীন এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মতবিনিময় সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন বিভাগের ছয় জেলার শিক্ষা অফিসার, শিক্ষক ও কর্মকর্তাবৃন্দ।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১  
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT