নাট্য ও সংস্কৃতিজন সৈয়দ দুলাল এর আজ জন্মদিন নাট্য ও সংস্কৃতিজন সৈয়দ দুলাল এর আজ জন্মদিন - ajkerparibartan.com
নাট্য ও সংস্কৃতিজন সৈয়দ দুলাল এর আজ জন্মদিন

3:38 pm , July 2, 2022

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ সংস্কৃতি ও থিয়েটার সংগ্রামের সফল সংগ্রামী, নাট্যজন সৈয়দ দুলাল এর আজ জন্মদিন। নানা প্রতিকুলতার মধ্য দিয়েও বাংলাদেশের নাট্য ও গ্রুপ থিয়েটার আন্দোলনকে শক্তিশালী করার অভিযাত্রায় এ অঞ্চলের রয়েছে এক সংগ্রামী ভূমিকা। যা সারা দেশের নাট্য অঙ্গনে এখন সমাদৃত। আর এই সংগ্রামের এক অভিযাত্রীর নাম সৈয়দ দুলাল। যিনি স্বাধীন বাংলাদেশে স্টুডিও থিয়েটারের স্বপ্নদ্রষ্টা।
শৈশবে ও কৈশোরে পিতা সৈয়দ আলতাফ হোসেনের অভিনয় দেখেই নাট্যজগতের প্রতি আকৃষ্ট হন তিনি। তাঁর পিতা ছিলেন একজন সৌখিন নাট্যকর্মী। এরপরে বরিশালে নাটকের প্রাণপুরুষ প্রয়াত আকবর হোসেনের সংস্পর্শে এসে তৎকালীন সময়ে গড়ে ওঠা বরিশালে গ্রুপ থিয়েটার চর্চার প্রথম সংগঠন খেয়ালী গ্রুপ থিয়েটারে কাজ শুরু করেন।
পরবর্তীতে শব্দাবলীর প্রতিষ্ঠালগ্নে বন্ধু শাহনেওয়াজ ও মরহুম হুমায়ুন কবীর সেলিমের উৎসাহে শব্দাবলীতে যোগ দেন।
১৯৯১ সালের ৩১ ডিসেম্বর মেষ ও রাক্ষস নাটকের মঞ্চায়নের মধ্যদিয়ে শব্দাবলীতে স্টুডিও থিয়েটার প্রতিষ্ঠা করেন। শব্দাবলীতে তিনি সবচেয়ে বেশী সময় ধরে সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। বরিশালে শিশুদের নিয়ে নাটকের কাজ করার জন্য প্রতিষ্ঠা করেন শব্দাবলী’র শিশু থিয়েটার।
ব্যক্তি জীবনে সৈয়দ দুলাল একজন ব্যবসায়ী। সেইসাথে তিনি বরিশালের ইতিহাস, ঐতিহ্য, শিল্প ও সংস্কৃতির পটরেখায় মাসিক আনন্দ লিখন পত্রিকার সম্পাদনা করছেন। এর আগে বরিশালের অন্যতম আঞ্চলিক দৈনিক পরিবর্তন পত্রিকার সম্পাদক ও প্রকাশক ছিলেন। সহধর্মিনী রেহানা সৈয়দ রুনু। ছেলে সৈয়দ শুভ এবং মেয়ে ইপশিতা নীতি এই নিয়ে বটতলা মীরা বাড়িতে পৈতৃক ভিটায় তাঁর সংসার। পাঁচ ভাই ও এক বোনের মধ্যে সৈয়দ দুলাল পরিবারের বড় ছেলে। সৈয়দ দুলালের জন্ম ১৯৫৩ সালে ৩ জুলাই।
বাংলাদেশ গ্রুপ থিয়েটার ফেডারেশানের বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক হিসাবে দায়িত্ব গ্রহন করেন ১৯৯৩ সাল থেকে ২০০২ পর্যন্ত। তিনি নির্বাহী কমিটির সভাপতি মন্ডলীর সদস্য হিসেবে পর পর তিনবার নির্বাচিত হন। আন্তর্জাতিক নাট্যসংস্থা ইন্টারন্যাশনাল থিয়েটার ইনস্টিটিউট (আই.টি.আই) বাংলাদেশ কেন্দ্রের নির্বাহী সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। সৈয়দ দুলাল এ যাবৎ চারবার আন্তর্জাতিক নাট্য সম্মেলনে যোগ দেন।
নাটকে বিশেষ অবদান রাখার জন্য ২০০৩ সালে ঢাকা নান্দনিক অজিত চট্টোপাধ্যায় পদকে ভূষিত করেন। নাটকে বিশেষ অবদানের জন্য ঢাকা পদাতিক প্রবর্তিত আবুল কাসেম দুলাল পদক লাভ করেন। এছাড়া প্রজন্ম নাট্যকেন্দ্র প্রবর্তিত দেবেন্দ্র পদক, অমৃত একাডেমি প্রবর্তিত দানবীর অমৃত পদক, সামাজিক প্রতিষ্ঠান সকাল-সন্ধ্যা পদক, ব্রজমোহন থিয়েটার প্রবর্তিত অশ্বিনী পদক, বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমী প্রবর্তিত সম্মাননা-২০১৩ এবং ২০১৪ সালে জাহাঙ্গীরনগর থিয়েটার নাট্যপদক লাভ করেন।
তাঁর লিখিত নাটকগুলোর মধ্যে ‘‘জীবন্ত পোষ্টার’’ এবং ‘‘একাত্তর এবং ইত্যাদি’’ উল্লেখযোগ্য। তার নির্দেশনায় নাটকের সংখ্যাও অনেক। চর্যাপদের উপর লেখা সেলিনা হোসেনের উপন্যাস ‘নীল ময়ূরের যৌবন’ নাটক নির্দেশনা দিয়ে বিপুল প্রশংসা অর্জন করেছেন। বর্তমানে সৈয়দ দুলাল নির্দেশিত নাটক বৈশাখিনী, ৭১’’র মুক্তিযুদ্ধের এক বীরঙ্গনার জীবনগাঁথা নিয়ে এ নাটকটিও সারা দেশে আলোড়িত হয়েছে। তাঁর অসংখ্য অভিনিত নাটকের মধ্যে মেষ ও রাক্ষস, বাজলো রাজার বারোটা, একজন নাবিক ও একটি শঙ্খচিল, পায়ের আওয়াজ পাওয়া যায় উল্লেখযোগ্য। শিশুদের টেলিভিশন অনুষ্ঠান সিসিমপুর এ গুণী ময়রার চরিত্রে অভিনয় করে তিনি শিশুদের প্রিয় মানুষে পরিণত হয়েছেন।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১  
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT