পদ্মা সেতু উদ্বোধনে থাকছে ৩ হাসপাতাল, ৫০০ শৌচাগার পদ্মা সেতু উদ্বোধনে থাকছে ৩ হাসপাতাল, ৫০০ শৌচাগার - ajkerparibartan.com
পদ্মা সেতু উদ্বোধনে থাকছে ৩ হাসপাতাল, ৫০০ শৌচাগার

3:48 pm , June 24, 2022

পরিবর্তন ডেস্ক ॥ মাদারীপুরে পদ্মা সেতু উদ্বোধন অনুষ্ঠানের সব আয়োজন শেষ। যেখানে থাকছে অস্থায়ী হাসপাতালসহ অন্যান্য জরুরি ব্যবস্থা। আজ ২৫ জুন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পদ্মা সেতুর মুন্সীগঞ্জ প্রান্তে উদ্বোধনী ফলক উন্মোচন ও সুধী সমাবেশে বক্তব্য দেয়ার পর মাদারীপুর প্রান্তেও একটি ফলক উন্মোচন করবেন এবং সেখানে বক্তৃতা করবেন।এ উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রীর আগমন ঘিরে দক্ষিণাঞ্চলের বিভিন্ন এলাকা থেকে ১০ লাখ মানুষের সমাগম হবে। সভাস্থলে ৫০০ অস্থায়ী শৌচাগার, ভিআইপিদের জন্য আরও ২২টি শৌচাগার, সুপেয় পানির লাইন, তিনটি ভ্রাম্যমাণ হাসপাতাল, নারীদের আলাদা বসার ব্যবস্থা, প্রায় দুই বর্গকিলোমিটার আয়তনের সভাস্থলে দূরের দর্শনার্থীদের জন্য ২৬টি এলইডি মনিটর, ৫০০ মাইকের ব্যবস্থা রাখা হয়েছে।এ ছাড়া নদীপথে আসা মানুষের জন্য ২০টি পন্টুন তৈরি করা হচ্ছে।মোবাইল অপারেটরগুলো তাদের নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় ভ্রাম্যমাণ মোবাইল টাওয়ার নির্মাণ করেছে।স্মরণকালের সেরা আয়োজন হবে এখানে।জনসভায় আসা অতিথিদের কেউ অসুস্থ হয়ে পড়লে তাৎক্ষণিক চিকিৎসাসেবা দেয়ার জন্য ভ্রাম্যমাণ হাসপাতাল নির্মাণ করা হয়েছে। সব কাজের ৯০ শতাংশ শেষ। বাকি ১০ শতাংশ নির্ধারিত সময়ের আগেই শেষ হয়ে যাবে।তাৎক্ষণিকভাবে কেউ অসুস্থ হলে সে জন্য থাকছে চিকিৎসার ব্যবস্থা।মাদারীপুরের সিভিল সার্জন মুনীর আহমেদ খান বলেন, জনসভায় আগতদের চিকিৎসার জন্য ২১০ জন চিকিৎসক-স্বাস্থ্যকর্মী প্রস্তুত থাকবেন। একটি ২০ শয্যা ও দুটি ১০ শয্যার অস্থায়ী হাসপাতাল স্থাপন করা হয়েছে ইতোমধ্যে। নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন মাদারীপুরের পুলিশ সুপার গোলাম মোস্তফা রাসেল।এ ছাড়া পদ্মা সেতু উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জনসভা সফল করতে সব ধরনের নিরাপত্তা নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন পুলিশের মহাপরিদর্শক ড. বেনজীর আহমেদ।এ সময় ড. বেনজীর আহমেদ বলেন, জনসভাস্থল শেষে সবাই যেন নিরাপদে বাড়ি চলে যেতে পারে, সে ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। এখানে এসএসএফ, ডিজিএফআই, এনএসআই, জেলা পুলিশ, হাইওয়ে পুলিশ, নৌপুলিশসহ সরকারের বিভিন্ন দফতরের কর্মকর্তারা নিরাপত্তার কাজে নিয়োজিত রয়েছেন।পদ্মা সেতুর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে কোনো ধরনের হুমকি রয়েছে কি না—এমন প্রশ্নের জবাবে আইজিপি বলেন, প্রতি মুহূর্তে আপডেট তথ্য সংগ্রহ করা হচ্ছে। পদ্মা সেতুর উদ্বোধনী অনুষ্ঠান ঘিরে শুধু জনসভাস্থলই নয়, সারা দেশেই নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে। সব ধরনের পরিস্থিতি মোকাবিলায় প্রস্তুত পুলিশবাহিনীর সদস্যরাও।বহুল আকাঙ্ক্ষিত পদ্মা সেতু উদ্বোধন আজ শনিবার (২৫ জুন)। এরপর যান চলাচলের জন্য রোববার সকাল থেকে উন্মুক্ত করা হবে স্বপ্নের এ সেতু। এটি দেশের পদ্মা নদীর ওপর নির্মাণাধীন একটি বহুমুখী সড়ক ও রেল সেতু। এর মাধ্যমে মুন্সীগঞ্জের লৌহজংয়ের সঙ্গে শরীয়তপুর ও মাদারীপুর যুক্ত হবে। ফলে দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের সঙ্গে উত্তর-পূর্বাংশের সংযোগ ঘটবে।দুই স্তরবিশিষ্ট স্টিল ও কংক্রিট নির্মিত ট্রাস ব্রিজটির ওপরের স্তরে থাকবে চার লেনের সড়কপথ এবং নিচের স্তরটিতে একটি একক রেলপথ। পদ্মা-ব্রহ্মপুত্র-মেঘনা নদীর অববাহিকায় ১৫০ মিটার দৈর্ঘ্যের ৪১টি স্প্যান বসানো হয়েছে। ৬.১৫ কিলোমিটার দৈর্ঘ্য এবং ১৮.১০ মিটার প্রস্থ পরিকল্পনায় নির্মিত দেশটির সবচেয়ে বড় এ সেতু।পদ্মা সেতু নির্মাণকারী ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান চায়না মেজর ব্রিজ ইঞ্জিনিয়ারিং কোম্পানি। খরস্রোতা পদ্মা নদীর ওপর ৩০ হাজার ১৯৩ কোটি টাকা নিজস্ব অর্থায়নে নির্মাণ হয়েছে স্বপ্নের এ সেতু। ২০১৪ সালে পদ্মা সেতুর নির্মাণকাজ শুরু হয়।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১  
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT