মঠবাড়িয়ায় মাদ্রাসা ছাত্রীকে ধর্ষণ চেষ্টাকারীকে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ মঠবাড়িয়ায় মাদ্রাসা ছাত্রীকে ধর্ষণ চেষ্টাকারীকে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ - ajkerparibartan.com
মঠবাড়িয়ায় মাদ্রাসা ছাত্রীকে ধর্ষণ চেষ্টাকারীকে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ

3:38 pm , June 19, 2022

শাকিল আহমেদ, মঠবাড়িয়া ॥ মঠবাড়িয়ায় মাদ্রাসায় যাওয়ার পথে দশম শ্রেণির এক ছাত্রীকে রাস্তা দিয়ে বাগানে টেনে নিয়ে ধর্ষণের চেষ্টা চালায় নান্টু সিকদার (৩০) নামে এক বখাটে। পরে মাদ্রাসার ছাত্ররা ও এলাকাবাসী ওই বখাটেকে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোর্পদ করে। এ ঘটনায় ওই ছাত্রীর ফুফা আঃ খালেক হাওলাদার বাদী হয়ে শনিবার রাতে মঠবাড়িয়া থানায় নারী শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা দায়ের করেন। পুলিশ ওই মামলায় বখাটে নান্টুকে গ্রেফতার দেখিয়ে রোববার সকালে আদালতে সোপর্দ করে। বখাটে নান্টু মঠবাড়িয়া উপজেলার উলুবাড়িয়া গ্রামের ননী সিকদারের পুত্র।
মামলা ও স্থানীয় সূত্রে জানাগেছে, ওই ছাত্রী শনিবার সকালে পরীক্ষা দেওয়ার জন্য বাড়ি থেকে মাদ্রাসার উদ্দেশ্যে রওনা দেয়। পথি মধ্যে বৃষ্টি শুরু হলে রন চৌকিদার বাড়ির সম্মুখ নির্জন রাস্তায় বসে বখাটে নান্টু ওই ছাত্রীকে টেনে হেঁচড়ে সুপারি বাগানে নিয়ে ধর্ষণের চেষ্টা চালায়। এসময় ওই ছাত্রী ডাক চিৎকার দিয়ে দৌড়ি গিয়ে অন্য এক পথচারীকে ঝাপটে ধরে । পরে মাদ্রাসার ছাত্ররা ও এলাকাবাসী ঘটনাটি শুনতে পেয়ে বখাটেকে ধরে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করে।
জানখালী উলুবাড়িয়া হামিদিয়া দাখিল মাদ্রাসার সুপার মাওলানা শওকাতুল আলম জানান, ঘটনার পর মাদ্রাসার ছাত্র ও স্থানীয়রা বখাটে নান্টুকে আটক করে মাদ্রাসায় নিয়ে আসে। পরে থানা পুলিশে খবর দিলে পুলিশ বখাটে নান্টুকে আটক করে নিয়ে যায়।
মঠবাড়িয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মুহা. নূরুল ইসলাম বাদল জানান, মাদ্রাসা ছাত্রী ধর্ষণ চেষ্টার ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে। ওই মামলা গ্রেফতার দেখিয়ে আসামী নান্টুকে রোববার আদালতে সোর্পদ করা হয়েছে।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০৩১
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT