ডাক্তার ও ৪র্থ শ্রেনীর কর্মচারি না থাকায় বাধাগ্রস্থ হচ্ছে বরিশাল মেডিকেলের বার্ণ ইউনিটের কার্যক্রম ডাক্তার ও ৪র্থ শ্রেনীর কর্মচারি না থাকায় বাধাগ্রস্থ হচ্ছে বরিশাল মেডিকেলের বার্ণ ইউনিটের কার্যক্রম - ajkerparibartan.com
ডাক্তার ও ৪র্থ শ্রেনীর কর্মচারি না থাকায় বাধাগ্রস্থ হচ্ছে বরিশাল মেডিকেলের বার্ণ ইউনিটের কার্যক্রম

3:36 pm , June 12, 2022

বিশেষ প্রতিবেদক ॥ দুই বছর বন্ধ থাকার পর পূনরায় চালু হয়েও পরিপূর্ণভাবে সেবা দিতে পারছে না বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ণ ইউনিট। সার্বক্ষনিক ডাক্তার ও চতুর্থ শ্রেনীর কর্মচারী না থাকায় এমন সংকট সৃষ্টি হয়েছে বলে দাবি করছেন সংশ্লিষ্টরা। এ অবস্থায় অগ্নি দগ্ধ রোগীদের দূর্ভোগ বাড়ছে প্রতিদিন। ২০১৫ দালের মার্চ মাসে চালু হওয়া বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ণ ইউনিট চিকিৎসক শুন্যতার কারনে ২০২০ সালের ১৮ মে বন্ধ হয়ে যায়। গত বছর ২৪ ডিসেম্বর ঝালকাঠিতে লঞ্চে অগ্নিকান্ডের পর এখানে ৮১ জন দগ্ধ রোগী ভর্তি হলে পুনরায় বার্ণ ইউনিট চালুর উদ্যোগ নেয়া হয়। ঢাকা ও রংপুর থেকে একজন সহযোগী অধ্যাপক, একজন রেজিষ্টার ও একজন জুনিয়র কনসালটেন্ট যোগদান করার পর গত ২৩ মে থেকে পুনরায় চালু হয় এই ইউনিট। কিন্তু মিড টার্মের ( সার্বক্ষনিক) কোন চিকিৎসক এবং চতুর্থ শ্রেনীর কোন কর্মচারী না থাকায় আবার মুখ থুবড়ে পড়েছে এর সেবা কার্যক্রম বলে জানিয়েছেন হাসপাতালের পরিচালক ডা. এইচ এম সাইফুল ইসলাম।
বর্তমানে এখানে প্রফেসর, রেজিস্টার, ২ জন সহকারি রেজিস্টার ও ইএমওসহ ৬ জন চিকিৎসক ও অন্তত ১০ জন চতুর্থ শ্রেনীর কর্মচারীর পদ শুন্য রয়েছে। এতে রোগীরা পুড়ছে দগ্ধতার বাড়তি অনলে। ময়লা আবর্জনা পরিস্কার করাসহ সব কাজই করতে হয় রোগী ও স্বজনদের। এতে করে পোড়া ঘায়ে ইনফেকশনের ঝুকি থাকে বেশি।
এই বার্ণ ইউনিটে প্রশিক্ষনপ্রাপ্ত নার্স সংকট প্রকট। যে ২৩ জন নার্স এখানে কাজ করছেন তার মধ্যে মাত্র ২ জন অগ্নি দগ্ধ সেবায় প্রশিক্ষন প্রাপ্ত। অন্যরা অনেকটা আন্দাজের ভিত্তিতে কাজ করে যাচ্ছেন। নার্সদের পক্ষ থেকে বার বার প্রশিক্ষনের দাবি তোলা হলেও তা কাজে আসেনি বলে জানান সিনিয়র স্টাফ নার্স লিংকন দত্ত। বরিশাল বিভাগের একমাত্র এই বার্ণ ইউনিটটিতে শুরু থেকে এ পর্যন্ত অন্তত ৫০০০ অগ্নিদগ্ধ সেবা পেয়েছেন। এখানে অপারেশন করা হয়েছে অন্তত ২ হাজার জনের। এখনো প্লাষ্টিক সার্জারিসহ সব ধরনে সুবিধা থাকার পরেও চিকিৎসক শুন্যতায় রোগীর সেবা নিশ্চিত করা যাচ্ছে না বলে জানান বার্ণ ইউনিটের বিভাগীয় প্রধান ডা মারুফুল ইসলাম। ভয়াবহ অগ্নি দুর্যোগে অন্যতম ভরসা দক্ষিনের এক কোটি মানুষের একমাত্র এই বার্ণ ইউনিট পরিপূর্ণভাবে চালুর দাবি জানিয়েছেন স্থানীয়রা।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০৩১  
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT