শিক্ষার্থী ও শ্রমিকদের পাল্টাপাল্টি মারধরের অভিযোগ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের সড়ক অবরোধ ও প্রত্যাহার শিক্ষার্থী ও শ্রমিকদের পাল্টাপাল্টি মারধরের অভিযোগ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের সড়ক অবরোধ ও প্রত্যাহার - ajkerparibartan.com
শিক্ষার্থী ও শ্রমিকদের পাল্টাপাল্টি মারধরের অভিযোগ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের সড়ক অবরোধ ও প্রত্যাহার

3:21 pm , May 28, 2022

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ বাসে ওঠাকে কেন্দ্র করে বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রকে মারধরের অভিযোগ উঠেছে পরিবহন শ্রমিকদের বিরুদ্ধে। এই ঘটনার প্রতিবাদে ঘন্টা ব্যাপি ঢাকা কুয়াকাটা মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করে বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। তবে আহত হয়ে শেবাচিম হাসপাতালে চিকিৎসাধীন বাস শ্রমিক দাবি করেছেন, ছাত্রদের উপর কেউ হামলা করেনি। তাদের উপর ছাত্ররা হামলা করেছে। তাকে মারধর করেছে। এতে সে আহত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। ওই বাস শ্রমিক হলো-মোস্তাফিজুর রহমান রানা। কিন্তু শিক্ষার্থীরা দাবি করেছে মারধরের শিকার হয়েছেন মাস্টার্সের ছাত্র ফয়সাল শাহরিয়ার। পাল্টাপার্টি বক্তব্যের এ ঘটনা শনিবার সকাল ৯টার দিকে বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনে ঘটেছে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, দপদপিয়া জিরো পয়েন্টে যাওয়ার জন্য ছাত্র ফয়সাল বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনে থেকে একটি বাসে উঠার চেষ্টা করেন। এই নিয়ে কথাকাটির এক পর্যায়ে বাসের স্টাফরা ফয়সালকে মারধর করে। এরপরপরই বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা ঢাকা কুয়াকাটা মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করে। এতে এক ঘন্টা বাসসহ সকল ধরণের যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। পরে পুলিশের আশ্বাসের পরিপ্রেক্ষিতে শিক্ষার্থীরা সড়ক থেকে সরে যায়। বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র ফয়সাল শাহরিয়ার বলেন, জিরো পয়েন্টে যাওয়ার উদ্দেশ্যে দাড়িয়েছি। তখন কোথায় যাবো জিজ্ঞাসা করলে বলি যেখানে যাবো সেখানে নামিয়ে দিলেই হবে। সাথে সাথে বাসের স্টাফ কালামসহ সাত থেকে আট জন চড়াও হয়। আর অকথ্য ভাষায় গালাগালি করে। তারা জামার কলার ধরে কিলঘুষি দিয়েছে। আবদুল ফয়েজ নামে এক ছাত্র জানান, আমাদের এক শিক্ষার্থীকে মারধরের ঘটনায় সড়ক অবরোধ করেছিলাম। পরে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ও পুলিশ আশ্বাস দিয়েছে অভিযুক্তের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার। যে কারণে সড়ক থেকে সরে গিয়েছি আমরা। শ্রমিক রানা জানায়, মহাসড়কে থ্রি হুইলার চলাচল বন্ধ রাখতে বাস মালিক শ্রমিক সংগঠনের পক্ষ থেকে এক দল বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনে অবস্থান নেয়। তখন থ্রি-হুইলার এলে ঘুরিয়ে দেয়া হয়। থ্রি হুইলার চালকদের উস্কানীতে শিক্ষার্থীরা তাদের একজনকে মারধর করে। এর প্রতিবাদ করায় সে ক্ষিপ্ত হয়। এক পর্যায়ে রড, লাঠিসোটা নিয়ে তাদের উপর হামলা করেছে। এতে সবাই সেখান থেকে পালিয়ে গেছে। তিনি শিক্ষার্থীদের মারধরের শিকার হয়েছেন। আহত অবস্থায় তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। রুপাতলী বাস মিনিবাস মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক কাওছার হোসেন শিপন বলেন, যারা এই ঘটনা ঘটিয়েছে তারা কেউ বাসের স্টাফ না। তারা বহিরাগত। বিষয়টি সমাধানের চেষ্টা চলছে। বর্তমানে বাস চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড. মোঃ খোরশেদ আলম বলেন, বিষয়টি নিয়ে পুলিশ ও বাস মালিক সমিতির নেতাদের সাথে আলোচনা করা হবে। বন্দর থানা পুলিশের ওসি মো: আসাদুজ্জামান বলেন, ভুুল বোঝাবুঝি নিয়ে ঝামেলাটা হয়েছিলো। বাস চলাচল কিছু সময়ের জন্য বন্ধ ছিলো। এখন সব কিছু স্বাভাবিক রয়েছে। বাস মালিক সমিতি ও বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের সাথে কথা বলে বিষয়টি সমাধানের চেষ্টা চলছে।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০  
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT