রাজাপুরের শুভ হত্যা মামলায় তিনভাইসহ চারজনের যাবজ্জীবন কারাদন্ড রাজাপুরের শুভ হত্যা মামলায় তিনভাইসহ চারজনের যাবজ্জীবন কারাদন্ড - ajkerparibartan.com
রাজাপুরের শুভ হত্যা মামলায় তিনভাইসহ চারজনের যাবজ্জীবন কারাদন্ড

3:21 pm , May 18, 2022

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ ঝালকাঠির রাজাপুরে মেহেদী হাসান মনিব শুভ নামে এক যুবককে হত্যা মামলায় চারজনকে যাবজ্জীবন কারাদন্ড দিয়েছে আদালত। এছাড়াও ৫ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে তিন মাসের কারাদন্ড দেয়া হয়েছে। বুধবার বিকাল ৩টায় বরিশাল বিভাগীয় দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের বিচারক মাহামুদুর রহমান এই রায় ঘোষণা করেন। রায় ঘোষনার সময় দন্ডিতরা উপস্থিত ছিলো বলে জানিয়েছেন রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী বিশেষ পিপি মামুন চৌধুরী। দন্ডিতরা হলো- হলো, জসীম খান, হেলাল ফকির, ফয়সাল ফকির ও বেলাল ফকির। দন্ডপ্রাপ্তরা রাজাপুরের বড়ইয়া এলাকার বাসিন্দা। মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, ২০১৯ সালের ২৬ মার্চ রাতে বন্ধুর সাথে পিকনিকের কথা বলে রাজাপুরের বড়ইয়ারএলাকার নিজ বাসা থেকে বের হয় যুবক মেহেদী হাসান মনিব শুভ। এরপর গভীর রাতে শুভর বাড়ির পেছন থেকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করা হয় তাকে। রাজাপুর হাসপাতালে ভর্তির পর শুভ তার বাবা আব্দুল্লাহ আল মাহাবুবকে জানায় পূর্ব শত্রুতার জের ধরের ধারালো অস্ত্র দিয়ে আসামীরা তাকে কুপিয়ে জখম করেছে। রাজাপুর থেকে বরিশাল শের ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে আনার পথেই মৃত্যু হয় শুভর। এই ঘটনায় শুভর বাবা মাহাবুব বাদী দ্রুত বিচার আইন রাজাপুর থানায় ২৮ তারিখ ১৫ জনের নাম উল্লেখ ও ৫/৬ জনকে অজ্ঞাত করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। ২০২০ সালের ২০ জুলাই রাজাপুর থানার ইন্সপেক্টর মো: মাঈনুদ্দিন ও আবুল কালাম আজাদ ৯ জনকে অভিযুক্ত করে আদালতে চার্জশীট প্রদান করে। আদালত ২৫ জন সাক্ষীর মধ্যে ২২ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে চারজনের যাবজ্জীবন কারাদন্ড ও ৫ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে তিন মাসের কারাদন্ড প্রদান করেন। পাশাপাশি ৫ আসামীকে মামলা থেকে খালাস প্রদান করেন।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১  
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT