সাবেক অতিরিক্ত সচিব সিরাজ উদ্দিন আহমেদ সাবেক অতিরিক্ত সচিব সিরাজ উদ্দিন আহমেদ - ajkerparibartan.com
সাবেক অতিরিক্ত সচিব সিরাজ উদ্দিন আহমেদ

3:28 pm , March 15, 2022

স্বাধীনতা পদকে ভূষিত বাবুগঞ্জের সন্তান

সাইফুল ইসলাম, বাবুগঞ্জ ॥মহান স্বাধীনতা যুদ্ধে অসামান্য অবদান রাখার জন্য স্বাধীনতা পদকে ভুষিত হয়েছেন বরণ্য ইতিহাসবিদ, মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক, ১৯৭৫ সালের ১৫ আগষ্টে বঙ্গবন্ধু হত্যার প্রতিবাদকারী একমাত্র সরকারী পদস্থ কর্মকর্তা, শিক্ষাবিদ সাবেক অতিরিক্ত সচিব, বাবুগঞ্জের কৃতিসন্তান সিরাজ উদ্দীন আহমেদ। মঙ্গলবার মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব মো. জিল্লুর রহমান চৌধুরী স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে। সিরাজ উদ্দীন আহমেদ ১৯৪১ সালের ১৪ অক্টোবর বাবুগঞ্জ উপজেলার আরজি কালিকাপুর গ্রামে জন্মগ্রহন করেন। তার পিতার নাম জাহান উদ্দীন ফকির, মাতা লায়লী বেগম। তিনি সায়েস্তাবাদ এমএইচ মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে ১৯৫৬ সালে ম্যাট্রিক, বিএম কলেজ থেকে উচ্চমাধ্যমিক ও বিএ এবং?? ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ১৯৬২ সালে অর্থনীতিতে এমএ ও ১৯৬৮ সালে বিএল ডিগিও লাভ করেন। কর্মজীবনে অর্থ মন্ত্রণালয়ের উপসচিব, মহিলা ও শিশুবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের সাবেক বোর্ড গভর্ণর, বিনিয়োগ বোর্ডের নির্বাহী চেয়্যারম্যান ও বাংলাদেশ পাবলিক সার্ভিস কমিশনের সদস্য পদে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি বাবুগঞ্জে বিভিন্ন উন্নয়ন মূলক কর্মকান্ডে জড়িত। বাবুগঞ্জ ডিগ্রি কলেজের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা ও দাতা সদস্য হিসেবে বর্তমান গভণিং বডির সভাপতি। তিনি দক্ষিণ কোরিয়া, অস্ট্রেলিয়া ও ইন্দোনেশিয়ায় প্রশাসন ও অর্থনীতিতে প্রশিক্ষণ লাভের পাশাপাশি জাতিসংঘ, কমনওয়েলথ, ন্যাম ও সার্ক আয়োজিত নারী ও শিশু সম্মেলনে বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করেছেন। তিনি একজন ঐতিহাসিক গবেষক। তার প্রকাশিত গ্রন্থ বরিশালের ইতিহাস, শেরে বাঙলা ফজলুল হক, হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, মওলানা আবদুল হামিদ খান ভাসানী, তাজউদ্দীন আহমেদ, একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধ, স্বাধীনতার ঘোষণা, ভারত বিভাগ-ঐতিহাসিক ভুল ইত্যাদি। তার স্ত্রী অধ্যাপিকা মরহুম বেগম ফিরোজা জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের ভাইস পিন্সিপাল পদ থেকে অবসর গ্রহন করেছেন। তিনি দুই সন্তানের জনক প্রকৌশলী শাহরিয়ার আহমেদ শিল্পী ও শাকিল আহমেদ ভাস্কর (উপ-সচিব)। এছাড়াও দেশের আরো ৯ জন বিশিষ্ট ব্যক্তি ও একটি প্রতিষ্ঠানকে ২০২২ সালের স্বাধীনতা পুরস্কার প্রদানের সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। তারা হলেন স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধে বীর মুক্তিযোদ্ধা ইলিয়াস আহমেদ চৌধুরী, শহীদ কর্নেল খন্দকার নাজমুল হুদা (বীর বিক্রম), আব্দুল জলিল, প্রয়াত মোহাম্মদ ছহিউদ্দিন বিশ্বাস এবং প্রয়াত সিরাজুল হক। চিকিৎসাবিদ্যায় পুরস্কার পাচ্ছেন অধ্যাপক ডা. কনক কান্তি বড়–য়া ও অধ্যাপক ডা. মো. কামরুল ইসলাম। সাহিত্যে পুরস্কার পাচ্ছেন প্রয়াত মো. আমির হামজা এবং স্থাপত্যে প্রয়াত স্থপতি সৈয়দ মাইনুল হোসেন। গবেষণা ও প্রশিক্ষণে পুরস্কার পাচ্ছে বাংলাদেশ গম ও ভুট্টা গবেষণা ইনস্টিটিউট (বিডাব্লিউএমআরআই)। উল্লেখ্য জাতীয় পর্যায়ে গৌরবোজ্জ্বল ও কৃতিত্বপূর্ণ অবদানের স্বীকৃতি হিসেবে ১৯৭৭ সাল থেকে প্রতিবছর স্বাধীনতা পুরস্কার দিচ্ছে সরকার। এটি দেশের সর্বোচ্চ রাষ্ট্রীয় পুরস্কার। সরকার ১৯৭৭ সাল থেকে প্রতি বছর এ পুরস্কার দিয়ে আসছে।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১  
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT