অক্ষমদের প্রয়োজনে বাড়িতে গিয়ে টিকা দেওয়া হবে-মেয়র সাদিক আব্দুল্লাহ অক্ষমদের প্রয়োজনে বাড়িতে গিয়ে টিকা দেওয়া হবে-মেয়র সাদিক আব্দুল্লাহ - ajkerparibartan.com
অক্ষমদের প্রয়োজনে বাড়িতে গিয়ে টিকা দেওয়া হবে-মেয়র সাদিক আব্দুল্লাহ

3:42 pm , February 23, 2022

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহ বলেছেন, আগামী ২৬ মার্চ সারাদেশে বিশেষ টিকা কার্যক্রম পরিচালিত হবে। নির্দেশনা অনুযায়ী ওইদিন সারাদেশের সঙ্গে নগরীতে প্রথম ডোজ দেওয়া হবে। এর আওতায় যারা এখনও টিকা নিতে পারেননি তারা সহজেই তা নিতে পারবেন। এ লক্ষ্যে বরিশাল সিটি করপোরেশন এলাকায় নির্ধারিত সাতটি কেন্দ্রের পাশাপাশি ১৫টি মোবাইল টিম নগরজুড়ে কাজ করবে। পাশাপাশি অসুস্থ, শারীরিক প্রতিবন্ধী ও চলাচলে অক্ষমদের প্রয়োজনে বাড়িতে গিয়ে টিকা দেওয়া হবে। সে ধরনের প্রস্তুতিও আমরা নিয়েছি। মঙ্গলবার রাতে নগরীর কালিবাড়ি রোডের সেরনিয়াবাত ভবনে আয়োজিত কোভিড-১৯ গণটিকা কার্যক্রম বাস্তবায়নের লক্ষে সব পেশাজীবীদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় তিনি এ কথা বলেন। মেয়র সাদিক আব্দুল্লাহ বলেন, বরিশাল নগরে জনসংখ্যা রয়েছে ছয় লাখের মতো আর ভোটার দুই লাখ ৪১ হাজার। এদের টিকা দেওয়ার লক্ষ্যমাত্রা আমরা মোটামুটি অর্জন করেছি। আর হয়তো অল্প কিছু বাকি আছে, তারা হয়তো এখানে থাকেন না। তবে যারা আমাদের ভোটার না অন্য জেলা থেকে এসেছেন, তাদের টিকার আওতায় আনতে না পারলে সার্থকতা নেই। তিনি বলেন, ২৬ ফেব্রুয়ারি গণটিকার কার্যক্রম সম্পর্কে নগরের ৩০টি ওয়ার্ডে প্রচারণা চলবে। মানুষকে টিকা নিতে সবাই মিলে উৎসাহ দিতে হবে। মিডিয়াকে বড় ভূমিকা রাখতে হবে। সভায় বরিশাল সিটি করপোরেশনের স্বাস্থ্য বিভাগের ডা. খন্দকার শুভ্র বলেন, প্রতিটি মোবাইল টিমে দুজন করে টিকা দেওয়ার জন্য ও তিনজন স্বেচ্ছাসেবক থাকবে। আর এসব মোবাইল টিম লঞ্চঘাট, বাস টার্মিনাল, বাজার, আদালত প্রাঙ্গণ ও কলোনিগুলোতে গুরুত্ব দিয়ে টিকা কার্যক্রম পরিচালনা করবে। এদিকে বরিশাল জেলার সিভিল সার্জন ডা. মারিয়া হাসান বলেন, বিভাগ ও জেলার মধ্যে শুধুমাত্র বরিশাল সিটি করপোরেশন টিকা কার্যক্রমে এগিয়ে রয়েছে। বরিশাল সিটি করপোরেশন এরইমধ্যে তাদের লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে গেছে। তারা এ পর্যন্ত ১২৪ পার্সেন্ট লক্ষ্যমাত্রা অর্জন করেছেন। এখন তারা আমাদের সাপোর্ট দেওয়ার জন্য কাজ করে যাচ্ছেন। আর শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে টিকা নেওয়ার হার ১০৫ দশমিক ২৯ শতাংশ বলে জানিয়েছেন মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর বরিশাল আঞ্চলিক পরিচালক প্রফেসর মোয়াজ্জেম হোসেন। তার মতে কওমি মাদ্রাসার শিক্ষার্থীরাও টিকা গ্রহণ করায় শতভাগের ওপরে লক্ষ্যমাত্রা চলে গেছে। আর এসবই সিটি করপোরেশনের বিশেষ উদ্যোগের কারণে সম্ভব হয়েছে।তিনি বলেন, একমাত্র বরিশাল জেলার মধ্যে সিটি করপোরেশন শিক্ষার্থীদের আলাদা ভ্যাকসিন দেওয়ার উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। তাদের জন্য পানি ও খাবারের ব্যবস্থা করেছে। তারা এমনভাবে স্বেচ্ছাসেবক নিয়োগ দিয়েছে, যে কোনো ধরনের বিরক্তি ছাড়া শিক্ষার্থীরা নিয়মানুযায়ী ভ্যাকসিন নিতে পেরেছেন।এতে আরও উপস্থিত ছিলেন বিভাগীয় পরিচালক স্বাস্থ্য ডা. মো. হুমায়ুন শাহীন খান, শের ই বাংলা মেডিক্যাল কলেজের অধ্যক্ষ ডা. মনিরুজ্জামান শাহিন, শের ই বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ডা. সাইফুল ইসলাম, বিএম কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক গোলাম কিবরিয়া, বরিশাল কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক আব্বাস উদ্দিন, হাতেম আলী কলেজের অধ্যক্ষ মোস্তফা কামাল, সরকারি মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ জহির উদ্দিন ফারুক, সাংস্কৃতিক সংগঠন সমন্বয় পরিষদের অধ্যাপক সভাপতি নজমুল হোসেন আকাশ, সরকারি জিলা স্কুলের প্রধান শিক্ষক মো. নুরুল ইসলাম, সরকারি বালিকা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মাহাবুবা হোসেন, জনপ্রতিনিধি ও সুশীল সমাজের প্রতিনিধিরা।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১  
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT