শেবাচিম হাসাপাতালের ১১০ পদে জনবল নিয়োগে অনিশ্চয়তা শেবাচিম হাসাপাতালের ১১০ পদে জনবল নিয়োগে অনিশ্চয়তা - ajkerparibartan.com
শেবাচিম হাসাপাতালের ১১০ পদে জনবল নিয়োগে অনিশ্চয়তা

2:46 pm , November 25, 2021

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ ঝুলে আছে শেবাচিম হাসপাতালের চলতি অর্থ বছরের জন্য আউটসোর্সিং এর মাধ্যমে জনবল নিয়োগ প্রক্রিয়া। প্রায় দেড় মাস পূর্বে মন্ত্রনালয় হাসপাতাল পরিচালককে বিভিন্ন পদে ১১০ জন জনবল নিয়োগের জন্য নির্দেশ দেয়। কিন্তু এ বিষয়ে এখন পর্যন্ত কোন পদক্ষেপ বা সিদ্ধান্ত গ্রহন করা হয়নি। চিঠিতে নিয়োগ প্রক্রিয়া ও পদ্ধতি স্পষ্ট করে উল্লেখ করা হলেও পরিচালক রহস্যজনক ভাবে নিজেকে এই প্রক্রিয়া থেকে দুরে রেখেছেন। এমনকি বিষয়টি সম্পর্কে স্পষ্ট ও সুনির্দিষ্ট নির্দেশনা পেতে মন্ত্রনালয়ের উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তাদের সাথে মৌখিক আলোচনাও করেছেন। তারপরও তিনি নিয়োগ প্রক্রিয়া ত্বরান্বিত করেননি। এছাড়া নিয়োগ না দেওয়ার ক্ষেত্রে অনাগ্রহের বিষয়টিও তার বক্তব্যে স্পষ্ট হয়েছে। তিনি বলেন, প্রয়োজন না হলে আউটসোসির্ং থেকে জনবল নিয়োগ প্রদানের বাধ্যবাধকতা নেই। এতে সরকারের অর্থ বেচে যায়।হাসপাতালে বর্তমানে যে জনবল রয়েছে তাতে আউটসোর্সিং থেকে নিয়োগের জরুরী প্রয়োজন নেই। তারপরও কয়েক দিনের মধ্যে বিষয়টি নিয়ে স্বাস্থ্য সচিবের সাথে সাক্ষাত করার কথা বলেছেন তিনি। জানা গেছে বিগত সময়ে আউটসোর্সিং প্রক্রিয়ায় জনবল নিয়োগ নিয়ে প্রতিষ্ঠান কর্তৃপক্ষকে নানা সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়েছে। এ কারনেই এবার তার সর্বোচ্চ সতর্ক অবস্থান। তবে স্বাস্থ্য মন্ত্রনালয়ের অতিরিক্ত সচিব (প্রশাসন) সাবিনা ইয়াসমিন বলেন, চিঠিতে সব কিছু স্পষ্ট করে বলা আছে। সে অনুযায়ী পরিচালক নিয়োগ প্রদানের ব্যবস্থা গ্রহন করবেন। সারা দেশের অধিকাংশ হাসপাতালে আউটসোসির্ং এর মাধ্যমে একই প্রক্রিয়ায় নিয়োগ হচ্ছে। সেক্ষেত্রে তিনি কেন বিলম্ব করছেন তা আমার বোধগম্য নয়। তারপরও কোন বিষয়ে জানার থাকলে তিনি সংশ্লিষ্টদের সাথে কথা বলতে পারতেন।
চিঠিতে স্বাক্ষর করা প্রশাসন বিভাগের উপ সচিব আনজুমান আরা বলেন, চিঠিতে নিয়োগের প্রক্রিয়া ও সেবা গ্রহন নীতিমালা ২০১৮ এর ৩ (২) এর অনু”েচ্ছদ উল্লেখ করা হয়েছে। যে ধারা অনুযায়ী ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমেই জনবল নিয়োগ করা হয়ে থাকে। এখানে অস্পষ্টতার কিছু নেই।
প্রসঙ্গত গত ৬ অক্টোবর ১১ টি ক্যাটাগরিতে সর্বমোট ১১০ জন সেবাকর্মীর সেবা ক্রয়ের সম্মতি দেয়া হয়। ১১০ জনের মধ্যে পরিচ্ছন্নতা কর্মী পদে সর্বোচ্চ ৩৫ জন, আয়া পদে ২৫ জন, ওটি, ইমার্জেন্সি, স্ট্রেচার এ্যাটেনডেন্ট পদে ১০ করে, কেয়ারটেকার, ল্যাব এ্যাটেনডেন্ট পদে ৫ জন করে, ট্রলিম্যান পদে ৪ জন এবং মালী, ইমেজিং এ্যাটেনডেন্ট, স্যানিটারী হেলপার পদে ২ জন করে অনুমোদন দেওয়া হয়।

এই বিভাগের আরও খবর

বসুন্ধরা বিটুমিন

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০  
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT