দক্ষিণাঞ্চলের ৪৮টি ইউপিতে শান্তিপূর্ণ ভোট গ্রহন দক্ষিণাঞ্চলের ৪৮টি ইউপিতে শান্তিপূর্ণ ভোট গ্রহন - ajkerparibartan.com
দক্ষিণাঞ্চলের ৪৮টি ইউপিতে শান্তিপূর্ণ ভোট গ্রহন

3:17 pm , November 11, 2021

বিশেষ প্রতিবেদক ॥ আইনÑশৃংখলা বাহিনীর টহলের সাথে প্রশাসনের কঠোর মনোভাবের মধ্যে দক্ষিণাঞ্চলের ৪৮টি ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনে ভোট গ্রহন মোটামুটি শান্তিপূর্ণভাবে সম্পন্ন হয়েছে। এ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে ১৭৩, সংরক্ষিত নারী সদস্য পদে ৪৮৮ এবং সাধারন সদস্য পদে ১ হাজার ৫৭২ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। তবে ভোটের আগেই শাসক দল সমর্থিত ৬ চেয়ারম্যান ও ৭ সদস্য ছাড়াও ৬ জন সংরক্ষিত প্রার্থীরা বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন। সন্ধ্যায় এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত কোথাও বড় ধরনের কোন সহিংসতার খবর পাওয়া যায়নি। সকাল থেকেই ভোটারদের লাইন ছিল কেন্দ্রগুলোতে। বৃহস্পতিবার বরিশাল সদর উপজেলার ৬টি, আগৈলঝাড়ায় ৫টি ও বানরীপাড়ায় ১টি ছাড়াও পটুয়াখালীর সদর, গলাচিপা ও দশমিনাতে ১৯টি, পিরোজপুর সদর, নাজিরপুর ও ইন্দুরকানীতে ৯টি, ভোলার দৌলতখানে ৭টি এবং বরগুনা সদরে ১টি ইউপিতে ভোট গ্রহন সম্পন্ন হয়েছে। সকাল ৮টায় ভোট গ্রহন শুরু হলেও অনেক ভোটারই তার আগে পাঁচটি জেলার ৪৪৯টি কেন্দ্রের ২ হাজার ৪৮৭টি বুথে ভোট দিতে জড়ো হয়েছিলেন। এ নির্বাচনে ৪ লাখ ৭ হাজার ৩১ জন নারী সহ মোট ভোটার ৮ লাখ ২৮ হাজার ১৪ জন। এর মধ্যে ৭৫-৮০ ভাগ ভোটাধিকার প্রয়োগ করেছেন।
গত ২১ জুন দক্ষিণাঞ্চলের ১৭৩টি ইউনিয়ন পরিষদের মত বৃহস্পতিবারের ভোটেও ৬ চেয়ারম্যান সহ ১৯ জন প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হওয়ায় ভোটরদের মাঝে আগ্রহে কিছুটা ভাটা পড়ে। পাশাপাশি ভোটের আগে কয়েকটি জেলায় শাসক দল ও জোটের মধ্যে সহিংসতার ঘটনায়ও ভোটারদের মধ্যে অজানা আতংক থাকলেও পুলিশ প্রশাসনের কঠোর মনোভাবে দুপুরের আগেই চালচিত্র পাল্টে যায়। শাসক দলের কেউই ভোট কেন্দ্রগুলোতে বড় ধরনের প্রভাব বিস্তার করতে পরেনি।
এ নির্বাচনে দক্ষিণাঞ্চলের জেলাগুলোর নিজস্ব পুলিশ সদস্যের সাথে স্পেশাল আর্মড ফোর্স ছাড়াও পটুয়াখালী ও পিরোজপুরের জন্য ৬৬৮ জন অতিরিক্ত পুলিশ কর্মী মোতায়েন করা হয় বরিশাল রেঞ্জ থেকে। যারমধ্যে শুধু পটুয়াখালীতেই প্রায় সাড়ে ৪শ অতিরিক্ত ফোর্স মোতায়েন ছিল। নিজস্ব পুলিশ ফোর্সের বাইরে আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন ও র‌্যাব সদস্যরাও ছিল বিভিন্ন জেলায়। বরিশাল জেলার সদর উপজেলার ৬টি ইউনিয়ন পরিষদেও ভোট গ্রহনের লক্ষ্যে মহানগর পুলিশ সহ র‌্যাব ও এপিবিএন নজরদারী করে।
তবে বৃহস্পতিবারের এ নির্বাচনে ভোট গ্রহন যতটা অবাধ হয়েছে তার অনেকটাই নির্ভর করেছে পুলিশ ও প্রশাসনের ভুমিকার ওপরই। রাজনৈতিক ও নির্বাচনী পর্যবেক্ষক মহলের অভিমত এমনই।

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT