সরকার প্রাণীসম্পদ খাতে দক্ষ জনবল ও উদ্যোক্তা সৃষ্টির উদ্যেগ নিয়েছে সরকার প্রাণীসম্পদ খাতে দক্ষ জনবল ও উদ্যোক্তা সৃষ্টির উদ্যেগ নিয়েছে - ajkerparibartan.com
সরকার প্রাণীসম্পদ খাতে দক্ষ জনবল ও উদ্যোক্তা সৃষ্টির উদ্যেগ নিয়েছে

3:00 pm , November 10, 2021

বরিশালে কর্মশালায় অভিমত

বিশেষ প্রতিবেদক ॥ প্রাণীসম্পদে আমরা স্বয়ংম্ভরতা অর্জিত হলেও এ খাতে দক্ষ জনবলের ব্যাপক ঘাটতি আছে। এমনকি মাংস এবং দুধ বাজারজাত প্রক্রিয়াও আধুনিক হয়নি। এ সংকট উত্তোরনের প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তর প্রাণিসম্পদ ও ‘ডেইরি উন্নয়ন প্রকল্পÑএলডিডিপি’ একটি যুগোপযোগী পদক্ষেপ বলে জানিয়ে এর আওতায় খামারীদের নিয়ে প্রডিউসার গ্রুপ গঠন করে প্রাণীসম্পদ খাতে দক্ষ জনশক্তি ও নতুন উদ্যোক্তা সৃষ্টি করা হবে বলে বরিশাল বিভাগীয় কর্মশালায় জানান হয়েছে। প্রাণীসম্পদ অধিদপ্তর এবং জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থার (এফএও) যৌথ আয়োজনে নগরীর বিডিএস মিলনায়তনে কর্মশালায় এলডিডিপি প্রকল্পের আওতায় খামারিদের নিয়ে প্রডিউসার গ্রুপ গঠন ও সংহতকরণ সংক্রান্ত বুধবারে বরিশাল বিভাগীয় কর্মশালায় এসব তথ্য জানান হয়েছে।
কর্মশালায় প্রধান অতিথি প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ডা. মনজুর মোহাম্মদ শাহজাদা বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বর্তমান সরকার গ্রামীণ জনগোষ্ঠীর উন্নয়নে কাজ করছে। প্রাণিসম্পদ খাতে সম্পৃক্ত জনশক্তি দেশের উন্নয়নের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বিধায় সরকার এ খাতকে গুরুত্ব দিচ্ছে বলেও জানান তিনি। এ খাতে দক্ষ জনশক্তি তৈরির মাধ্যমে সরকার উদ্যোক্তা সৃষ্টি করছে যাতে তারা স্বাধীনভাবে কাজ করতে পারে। প্রাণী সম্পদের মহাপরিচালক বলেন, বাস্তব অভিজ্ঞতা ও পারিপার্শ্বিক পরিস্থিতি বিবেচনায় নিয়ে প্রান্তিক মানুষদের প্রশিক্ষণ দিয়ে তাদের দক্ষতা বৃদ্ধি করা হবে। তৃণমূল মানুষদের দক্ষ জনশক্তিকে পরিণত করতে না পারলে জাতিকে সামনে এগিয়ে নেয়া যাবে না বলেও জানান তিনি। আগামীর লক্ষ্য তৃণমূল মানুষদের দক্ষ জনশক্তিতে পরিণত করা। এভাবে আমরা টেকসই উন্নয়ন করতে চাই। প্রাণীসম্পদ অধিদপ্তরের বরিশাল বিভাগীয় ভারপ্রাপ্ত পরিচালক ডা. নুরুল আমিন-এর সভাপতিত্বে কর্মশালায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন, ন্যাশনাল এনিমেল হেলথ বিশেষজ্ঞ একেএম মোস্তফা আনোয়ার। প্রকল্পর লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য উপস্থাপন করেন, এফএওর কারিগরি বিশেষজ্ঞ জুলিয়াস মাকামি, পিএইচডি ন্যাশনাল কনসালটেন্ট খান মো. শহিদুল হক। উল্লেখ্য, প্রাণিসম্পদ ও ডেইরি উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় দেশের ৬১টি জেলায় গাভীর ৩ হাজার ৩৩৪টি, গরু মোটাতাজাকরণের ৬৬৬টি, ছাগল ও ভেড়ার ৫০০টি এবং দেশি মুরগির ১ হাজার সহ মোট ৫ হাজার ৫০০টি প্রডিউসার গ্রুপ গঠন ও সংহতকরণের লক্ষ্যমাত্রা রয়েছে। প্রডিউসার গ্রুপ সমূহে ১ লাখ ৬৫ হাজার পরিবার সংযুক্ত হবে। এর মাধ্যমে প্রাণীসম্পদ খাতের প্রান্তিক খামারিদের বিভিন্ন ভেল্যু চেইন ভিত্তিক প্রডিউসার গ্রুপে যুক্ত করে তাদের জ্ঞান ও প্রযুক্তিগত, বাজারজাতকরণ, ঋণ ও ব্যবসায়িক পরিকল্পনা বিষয়ে দক্ষতা বৃদ্ধিমূলক প্রশিক্ষণ প্রদান করার পরিকল্পনা রয়েছে।

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT