লঞ্চঘাটে চাঁদাবাজি বন্ধে নগরীতে মাহিন্দ্র চালক-শ্রমিকদের মানববন্ধন লঞ্চঘাটে চাঁদাবাজি বন্ধে নগরীতে মাহিন্দ্র চালক-শ্রমিকদের মানববন্ধন - ajkerparibartan.com
লঞ্চঘাটে চাঁদাবাজি বন্ধে নগরীতে মাহিন্দ্র চালক-শ্রমিকদের মানববন্ধন

2:59 pm , October 27, 2021

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ নগরীর বরিশাল নৌ- বন্দরে মাহিন্দ্রা, মিশুক (থ্রি হুইলার) ও সিএনজিচালিত অটোরিকশা থেকে স্থানীয় সন্ত্রাসী সুমন ও তার সহযোগিদের চাঁদা আদায় বন্ধ করতে মানববন্ধন করা হয়েছে। গতকাল বুধবার নৌ-বন্দরের সামনে মানববন্ধন শেষে বিক্ষোভ মিছিল করেছে চালক ও শ্রমিকরা। মানববন্ধনে চালক ও শ্রমিকরা মেয়র ও প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন। ঘণ্টাব্যাপী মানববন্ধনে অংশগ্রহণকারী মাহিন্দ্র শ্রমিক জালাল বলেন, মহামারী করোনা ভাইরাসের কারণে মাহিন্দ্রা ও সিএনজি অটোরিকশা শ্রমিকদের আয় কমে গেছে। এর মধ্যে প্রতিরাতে নৌ-বন্দর এলাকায় লঞ্চের যাত্রী পরিবহন করার জন্য গাড়ি নিয়ে এলে ভাটার খাল এলাকার সুমন ও চাঁদমারী মাদ্রাসা গলির রাজিব, ফয়সাল ও মিলন সিরিয়াল দেয়ার জন্য চাঁদা আদায় করেন। বিষয়টি অনেকবার বলেছি ইউনিয়নকে। তারা কোনো পদক্ষেপ নেয়নি। একাধিক শ্রমিক জানান, মাহিন্দ্র, সিএনজি লঞ্চঘাট এলে সুমন ও তার সহযোগীরা সিরিয়াল দেয়ার জন্য অগ্রীম ৫ থেকে ১০ হাজার টাকা এবং প্রতিরাতে গাড়ি প্রতি ১০০ টাকা আদায় করেন। প্রতিবাদ করলে মারধরের শিকার হতে হয়। তাই চাঁদাবাজি বন্ধের প্রতিবাদে গাড়ি বন্ধ করে বিক্ষোভ করেছি। এ বিষয়ে মহানগর শ্রমিকলীগ সাধারণ সম্পাদক পরিমল চন্দ্র দাস জানান, আমি সবসময় সাধারণ শ্রমিকদের পাশে আছি। লঞ্চঘাট বা নৌ-বন্দর এলাকায় কোন গাড়ি থেকে কেউ চাঁদাবাজি করলে আইনানুগ ব্যাবস্থা নেয়া হবে।

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT