গৌরনদী বন্দরে অগ্নিকান্ডে পুড়েছে ১৪ দোকান গৌরনদী বন্দরে অগ্নিকান্ডে পুড়েছে ১৪ দোকান - ajkerparibartan.com
গৌরনদী বন্দরে অগ্নিকান্ডে পুড়েছে ১৪ দোকান

3:16 pm , October 2, 2021

আগুন নেভাতে গিয়ে আহত-১২

গৌরনদী প্রতিবেদক ॥ গৌরনদী উপজেলা সদরে বৃহৎ বানিজ্যিক কেন্দ্র গৌরনদী বন্দরে অগ্নিকান্ডে ১২ টি দোকান পুড়ে গেছে। এছাড়াও আংশিকভাবে পুড়ে ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে আরো দুইটি দোকান। গতকাল শনিবার সকাল সাড়ে ১০টায় এ ঘটনা ঘটে। গৌরনদী ও উজিরপুর ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা এক ঘন্টা চেষ্টায় আগুন নেভাতে সক্ষম হয়েছে। আগুন নেভাতে গিয়ে ফায়ার সার্ভিস কর্মী ও ব্যবসায়ীসহ কমপক্ষে ১২ জন আহত হয়। অগ্নিকান্ডে ক্ষয়ক্ষতির পরিমান দেড় কোটি টাকা।
ব্যবসায়ী ও স্থানীয়রা জানান, সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে গৌরনদী বন্দরের লেপ-তোষক ব্যবসায়ী বাদশা খলিফার (৫৫) দোকানের বৈদ্যুতিক সকসার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত ঘটে। মুহুর্তের মধ্যে আগুন ছড়িয়ে পড়ে । অগ্নিকান্ডে বন্দরের বাদশা খলিফার লেপ তোষক, অমল সাহা ও নজরুল ইসলামের হার্ডওয়ার, মোঃ তারেক হোসেন, বিভূতি রঞ্জন ও বারেক হাওলাদার ও দুলালের মুদি দোকান, সেকেন্দার বয়াতির টিনের আড়ৎ, ফজলু ঘরামী ও মা মেডিকেল হলসহ ১৪টি দোকান সম্পূর্নভাবে ভস্মীভুহ হয়। গৌরনদী বন্দর বনিক সমিতির সাধারন সম্পাদক ভোলা সাহা জানান, অগ্নিকান্ডে ক্ষয়ক্ষতির পরিমান দেড় কোটি টাকারও বেশী।
গৌরনদী ফায়ার সার্ভিস ষ্টেশনের ইনচার্জ বিপুল হোসেন জানান, বাদশা খলিফার দোকানের বৈদ্যুতিক সকসার্টিক থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়। গৌরনদী ও উজিরপুর ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা ঘন্টাব্যাপি চেষ্টা চালিয়ে আগুন নেভাতে সক্ষম হন। ক্ষয়ক্ষতি নিরুপনের কাজ চলছে তবে ব্যবসায়ীদের দাবি ক্ষয়ক্ষতির পরিমান কোটি টাকারও বেশী। আগুন নেভাতে গিয়ে ব্যবসায়ী নজরুল ইসলাম, দুলাল ও বাদশা খলিফা, ফায়ার সার্ভিস কর্মী অরিফুর রহমান, সাব্বির মোল্লা, আব্দুস সালাম, রেজাউল করিমসহ কমপেক্ষ ১২ জন আহত হয়েছে।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT