গ্রাহকদের পাওনা টাকার দাবীতে বিক্ষোভ গ্রাহকদের পাওনা টাকার দাবীতে বিক্ষোভ - ajkerparibartan.com
গ্রাহকদের পাওনা টাকার দাবীতে বিক্ষোভ

12:44 pm , September 10, 2021

পিরোজপুরে এহসান গ্রুপের প্রতিষ্ঠাতা রাগীব আহসান সহ চার ভাই গ্রেফতার

পিরোজপুর প্রতিবেদক ॥ গ্রাহকদের কয়েক হাজার কোটি টাকা আত্মসাৎ করে গা ঢাকা দেওয়া পিরোজপুরের মাল্টিপারপাস কোম্পানি এহসান গ্রুপের পরিচালক মুফতী মাওলানা রাগীব আহসান ও তার তিন ভাইকে গ্রেফতার করেছে ডিবি পুলিশ। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ঢাকার একটি বাসা থেকে এহসান গ্রুপের পরিচালক মুফতী মাওলানা রাগীব আহসান ও তার ভাই আবুল বাশারকে গ্রেফতার করেছে ডিবি পুলিশ এবং অপর দুই ভাই মুফতী মাওলানা মাহমুদুল হাসান ও মোঃ খাইরুল ইসলাম কে গ্রেফতার করে খলিশাখালী নিজ বাড়ি থেকে বলে জানান পিরোজপুর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আ.জ.মো. মাসুদুজ্জামান মিলু। এ ঘটনায় গ্রাহকদের অনেকেই পাওনা টাকার দাবীতে বিক্ষোভ করেছে বিভিন্ন জায়গায়।
পিরোজপুর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আ.জ.মো. মাসুদুজ্জামান জানান, প্রতারনা ও অর্থ আত্মসাৎ এর অভিযোগে পিরোজপুর সদর থানায় মুফতী মাওলানা রাগীব আহসান প্রধান আসামী করে দুটি মামলায় এহসান গ্রুপের পাঁচ জন কমর্মকর্তা আসামী করা হয়। আমাদের অধিযাচন বলে ঢাকা মেট্রোপলিটন ডিবি ও র‌্যাবকে যৌথ অভিযান চালিয়ে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ঢাকার একটি বাসা থেকে অভিযান চালিয়ে মুফতী মাওলানা রাগীব আহসান ও তার ছোট ভাই আবুল বাশারকে ঢাকা থেকে গ্রেফতার করে। একই সময় পিরোজপুর শহরের ছোট খলিশাখালী এলাকা থেকে অপর দুই ভাইকে গ্রেফতার করা হয়েছে।
গ্রেফতারকৃতরা হল এহসান গ্রুপের পরিচালনা পরিষদের অন্যতম সদস্য এবং এহসানগ্রুপের অন্যতম উপদেষ্ঠা খলিশাখালী মাদ্রাসার মোহতামিম মাওলানা আব্দুর রবের বড় পুত্র মুফতী মাওলানা রাগীব আহসান, পুত্র মাওলানা মাহমুদুল হাসান, পুত্র মোঃ খাইরুল ইসলাম ও ছোট পুত্র আবুল বাশার। তাদের বিরুদ্ধে পিরোজপুর সদর থানায় এহসান গ্রুপে টাকা আমানতকারী মাওলানা ইয়াইয়া হাওলাদার নামের এক জনকে পিটিয়ে আহত করার অভিযোগ রয়েছে। এছাড়াও মাল্টিপারপাস কোম্পানি এহসান গ্রুপের অন্যতম প্রতিষ্ঠান আল্লাহর দান বস্ত্রালয় ও পিরোজপুর বস্ত্রালয়ের পরিচানার দায়িত্বে ছিলেন মুফতী মাওলানা রাগীব আহসানের অন্যান্য ভাইয়েরা।
এহসান গ্রুপের পরিচালক মুফতী মাওলানা রাগীব আহসান ও তার তিন ভাইকে গ্রেফতারের পরে ক্ষোভে ভেটে পড়েছে পিরোজপুরের বিভিন্ন উপজেলার গ্রাহকরা। ভুক্তভুগী গ্রাহকরা জানান মুফতী মাওলানা রাগীব আহসান কয়েক হাজার কোটি টাকা আত্মসাৎ করে গাঢাকা দিয়েছে। সাথে তার পরিবারের সদস্যরা শতভাগ জড়িত রয়েছে। যখনই গ্রাহকরা টাকার দাবী নিয়ে বড় খলিশাখালী মাদ্রাসায় তার বাবার কাছে যেতো তখনই তার পরিবারের সদস্যরা মিলে গ্রহকে মারধর করতো। একাধিক গ্রাহক পাওনা টাকা চাইতে গিয়ে মুফতী মাওলানা রাগীব আহসান এর পরিবারের হাতে লাঞ্চিত হয়েছে। মাদ্রসার শিক্ষক, মাদ্রাসার ছাত্র, ইমাম, মুয়াজ্জিন, ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী, ভিক্ষুক, চাকুরীজীবী, ব্যবসায়ী, শিক্ষক, সহ প্রায় কয়ের হাজার গ্রাহকদের থেকে দুই হাজার কোটি টাকার বেশি হাতিয়ে নিয়েছে মুফতী মাওলানা রাগীব আহসান।
গ্রাহক শহিদুল ইসলাম জানান, এহসান রিয়েল এস্টেট এন্ড বিল্ডার্স লিমিটেড পিরোজপুর যার রেজি নং সি-৯৩৬৭৮/১১, টি আই এন নং ০২৩-২০০-০০৩৪, ট্রেড লইসেন্স নং ১২৮২৪ এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক মুফতী মাওলানা রাগীব আহসান কয়েক হাজার গ্রাহকদের থেকে জেলার বিভিন্ন উপজেলা থেকে দুই হাজার কোটি টাকা নেয়ার অভিযোগ রয়েছে। আমাদের পাওনা টাকা ফেরত চাই। এহসান গ্রুপের সকল সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করা হোক।
পিরোজপুর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আ.জ.মো. মাসুদুজ্জামান গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান আমাদের অধিযাচন বলে ঢাকা মেট্রোপলিটন ডিবি ও র‌্যাবকে যৌথ অভিযান চালিয়ে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ঢাকার একটি বাসা থেকে এহসান গ্রুপের মূল হোতা রাগিব আহসান সহ দুই জনকে এবং পিরোজপুর শহরের ছোট খলিশাখালী এলাকা থেকে অপর দুই ভাইকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আসামীদের আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে। বাকী আসামী শামীম খানকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০৩১  
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT