দক্ষিণাঞ্চলে প্লাবন পরিস্থিতির অবনতি দক্ষিণাঞ্চলে প্লাবন পরিস্থিতির অবনতি - ajkerparibartan.com
দক্ষিণাঞ্চলে প্লাবন পরিস্থিতির অবনতি

2:40 pm , September 7, 2021

সাগর আর উজানের ঢলে

বিশেষ প্রতিবেদক ॥ ভাদ্রের বড় অমাবশ্যার সাথে উত্তর পশ্চিম বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট লঘুচাপের প্রভাবে ফুসে ওঠা সাগরের জোয়ার আর উজানের নদÑনদীর বণ্যার পানির ভাটিমুখি ¯্রােতে দক্ষিণাঞ্চল সহ উপকুলভাগ জুড়ে প্লাবন পরিস্থিতির অবনতি অব্যাহত রয়েছে। সমগ্র দক্ষিণাঞ্চল সহ উপকুলভাগের নদ-নদী স্বাভাবিক জোয়ারের চেয়ে ৪-৬ ফুট উচ্চতায় প্রবাহিত হচ্ছে। ফলে কয়েক লাখ হেক্টরের রোপা আমন ছাড়াও উঠতি আউশের জমি প্লাবনের কবলে পড়েছে। নগরীর অনেক এলাকায় কীর্তনখোলানদীর পানি প্রবেশ করেছে। নদীর জোয়ারে সাথে সকাল থেকে ভারী বর্ষনে নগরীর বেশ কয়েকটি রাস্তা প্লাবিত হয়েছে। একই পরিস্থিতি পটুয়াখালী ও বরগুনা শহরেও। জোয়ারের সাথে দক্ষিণÑপূর্বের হাওয়ায় সাগরের পানির প্রবাহ আরো বৃদ্ধি পাচ্ছে। সাগর মাঝারী মাত্রায় উত্তাল রয়েছে। কুয়াকাটায় ব্যাপক গর্জনের সাথে ৫Ñ৮ ফুট উচ্চতার ঢেউ আছড়ে পড়ছে। সাগর ফুসে জোয়ারের পানি দক্ষিণাঞ্চলকে প্লাবিত করায় দেশের উত্তরাঞ্চলের বণ্যা পরিস্থিতির উন্নতি ব্যাহত হবে আরো অন্তত ৪-৫ দিন। দক্ষিণাঞ্চলের সবগুলো নদ-নদী বিপদ সীমার ৪৫ থেকে ৬৫ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। পায়রা সমুদ্র বন্দরকে ৩ নম্বর এবং বরিশাল সহ দক্ষিণাঞ্চলের সব নদী বন্দরকে ১ নম্বর সতর্ক সংকেতের আওতায় রাখা হয়েছে।
মৌসুমী বায়ু দক্ষিণাঞ্চল সহ সারা দেশে মাঝারী অবস্থায় রয়েছে বলে জানিয়ে উত্তর বঙ্গোপসাগরে তা প্রবল অবস্থায় বলে জানিয়েছে আবহাওয়া বিভাগ। তবে বৃষ্টিপাত এখনো সীমিত রয়েছে। মঙ্গলবার সকাল ৬টার পূর্ববর্তী ২৪ ঘন্টায় বরিশালে ২ মিলিমিটার বৃষ্টি হলেও সকাল ৬টা থেকে দুপুর ১২ পর্যন্ত বরিশালে ২৪ মিলি মিটার বৃষ্টি হয়েছে। তবে দুুপুরের পর থেকে দক্ষিণাঞ্চলের আকাশ মেঘাচ্ছন্ন থাকলেও মাঝে মধ্যেই সূর্য উকি দেয়। বঙ্গোপসাগর থেকে সঞ্চালনশীল মেঘমালা উপকুলভাগ অতিক্রম করে দক্ষিনাঞ্চল পেরিয়ে উত্তরে ধেয়ে যাচ্ছে।
গত বছরও ভাদ্রের অমাবশ্যায় ভর করে দক্ষিণাঞ্চল সহ সমগ্র উপকুলভাগে প্লাবনে বিশাল জনপদ ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছিল। ফসলের ক্ষতি ছিল ব্যাপক। অমাবশ্যার শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত ৩ দিনে বরিশালে ৩৬৫ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছিল। ফলে দক্ষিণাঞ্চলে উঠতি আউশ সহ রোপা আমনের বিপুল পরিমান জমি প্লাবিত হয়ে প্রায় দেড় লাখ টন চালের উৎপাদন ঘাটতি হয়।
এবার দক্ষিনাঞ্চলের ১১টি জেলায় ৭ লাখ ২৮ হাজার হেক্টরে আমন অবাদের লক্ষ্য অর্জন করতে যাচ্ছেন কৃষি যোদ্ধাগন। বরিশাল কৃষি অঞ্চলের ১১টি জেলায় এবার আমন থেকে প্রায় ১৯ লাখ টন চাল উৎপাদনের লক্ষ্য রয়েছে কৃষি মন্ত্রনালয়ের। কিন্তু বর্তমান দূর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ায় পরিস্থিতি কতটুকু অনুকুলে থাকবে, তা নিয়ে শংকিত কৃষকগন।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০৩১  
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT