ডাকাতদের দেখে চিৎকার দেয়ায় খুন হয়েছে সাবেক ব্যাংক কর্মকর্তা ডাকাতদের দেখে চিৎকার দেয়ায় খুন হয়েছে সাবেক ব্যাংক কর্মকর্তা - ajkerparibartan.com
ডাকাতদের দেখে চিৎকার দেয়ায় খুন হয়েছে সাবেক ব্যাংক কর্মকর্তা

3:29 pm , September 3, 2021

ভোলা থেকে স্বর্নালংকার উদ্ধার ॥ ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ নগরী কাশিপুরের চহঠা এলাকার নিজ বাসায় সংঘবদ্ধ ডাকাতদের হাতে হত্যার শিকার হয়েছেন সাবেক ব্যাংক কর্মকর্তা। ডাকাতদের দেখতে পেয়ে চিৎকার দেয়ায় হত্যার শিকার হতে হয়েছে সাবেক ব্যাংক কর্মকর্তা ও হোমিও চিকিৎসক মঞ্জুর মোর্শেদকে। ডাকাতি ও হত্যায় জড়িত তিন ডাকাত সদস্যকে গ্রেপ্তারের পর রহস্য উদ্ধার হয়েছে। এছাড়াও সাবেক ব্যাংক কর্মকর্তার বাসা থেকে লুট করা ৩ ভরি ১৪ আনা স্বর্ন উদ্ধার করা হয়েছে। গ্রেপ্তার তিনডাকাত সদস্য ডাকাতি ও হত্যার দায় স্বীকার করে আদালতে স্বীকারোক্তিমুলক (১৬৪ ধারায়) জবানবন্দিও দিয়েছে। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা মহানগর গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) মোস্তাফিজুর রহমান এ তথ্য জানিয়েছেন।
তিনি জানান, গত ১১ আগস্ট দিবাগত রাতে নগরীর ৩০ নং ওয়ার্ডের চহঠার নিজ বাসায় খুন হয় অগ্রণী ব্যাংকের সাবেক কর্মকর্তা এবং নব বায়ো-হোমিও চিকিৎসালয়ের প্রতিষ্ঠাতা অধ্যাপক ডা. মঞ্জুর মোর্শেদ। গত বুধবার বুধবার (১ সেপ্টেম্বর) নগরীর শের এ বাংলা সড়ক এলাকা থেকে ডাকাতি ও হত্যায় জড়িত তরিকুল ইসলাম সাকিব, আলমগীর হাওলাদার ও পটুয়াখালী থেকে জামালকে গ্রেপ্তার করা হয়। তাদের জিজ্ঞাসাবাদে তারা ডাকাতি ও হত্যায় জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে। তারা পুলিশের কাছে (১৬১ ধারায়) ও আদালতে বিচারকের কাছে (১৬৪ ধারায়) স্বীকারোক্তিমুলক জবানবন্দি দিয়েছে।
তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই মোস্তাফিজুর রহমান জানান, ডাকাতি ও হত্যার ঘটনাটি সম্পুর্ন ক্লু-লেস ছিল। ডিবি ছাড়াও পুলিশের বেশ কয়েকটি টিম ঘটনার ছায়া তদন্ত করে। তারা ঘটনার ক্লু উদ্ধারে সোর্স নিয়োগসহ ওই এলাকার বাসিন্দাদের বিভিন্ন তথ্য-উপাত্ত সংগ্রহ করা এবং তথ্য প্রযুক্তির সহায়তা নেয়। এর মাধ্যমে সংঘবদ্ধ আন্ত.জেলা ডাকাত চক্রের সন্ধান পায় তারা। চক্রটি গত ৩ জুলাই রাতে নগরীর ফিশারী রোড এলাকায় মনোয়ার হোসেনের বাড়িতে চুরি করে। এরপর তারা সাবেক ব্যাংক কর্মকর্তার বাসায় হানা দেয়। তথ্য প্রযুক্তির মাধ্যমে চক্রের সদস্যদের অবস্থান শনাক্ত করে নগরীর শের-ই-বাংলা সড়কের ভাড়া বাসা থেকে তরিকুল ইসলাম শাকিব (২৮) এবং আলমগীর হাওলাদারকে (৪০) গ্রেপ্তার করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদে দুজন স্বীকার করে তারাসহ ৫ জনের একটি ডাকাত দল ডাকাতি ও হত্যায় জড়িত ছিল। তারা ডাকাতির জন্য গ্রিল কেটে ঘরে প্রবেশ করে হত্যা ও ডাকাতি করেছে। তাদের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে পটুয়াখালীতে অভিযান চালিয়ে অপর সদস্য জামালকে গ্রেপ্তার করা হয়।
মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, ডাকাত চক্রটি ডাকাতির উদ্দেশ্যে অনেক দিন থেকেই সাবেক ব্যাংক কর্মকর্তা ও হোমিও চিকিৎসক মঞ্জুর মোর্শেদ এবং তার বাসা পর্যবেক্ষন করে। মঞ্জুর মোর্শেদ বাসায় একা থাকেন নিশ্চিত হয়ে হানা দেয় তারা। ডাকাতরা স্বীকার করেছে, ডাকাতি শেষে দেখে ফেলে চিৎকার করে। তখন তাকে মারধর করা হয়। এতে গুরুতর আহত হয়ে মারা গেছে। পরে তার মৃত্যু নিশ্চিত হয়ে ডাকাতরা বাসা থেকে বের হয়।
এসআই আরো জানায়, ডাকাতরা বাসা থেকে কোন অর্থ নেয়নি। স্বর্নালংকার লুট করেছে। তাদের স্বীকারোক্তি অনুযায়ী ভোলার বাংলা বাজার এলাকার গৌরাঙ্গ জুয়েলার্সে বিক্রি করা ৩ ভরি ১৪ আনা ওজনের স্বর্ণালংকার উদ্ধার করা হয়েছে। চক্রের অপর দুই সদস্যর কাছে লুট করা স্বর্নালংকার ও ডাকাতিতে ব্যবহৃত অস্ত্র রয়েছে। তাদের গ্রেপ্তার ও অস্ত্র-স্বর্নালংকার উদ্ধারে অভিযান চলছে।
গ্রেফতারকৃতরা ১৪৪ ধারায় খুন ও ডাকাতির ঘটনা স্বীকার করে নেওয়ায় রিমান্ড আবেদন করা হবে না বলে জানিয়েছেন তদন্তকারী কর্মকর্তা। ডাকাতদের গ্রেপ্তার ও হত্যার রহস্য উদ্ধার হওয়ায় গত বৃহস্পতিবার মহানগর পুলিশ কমিশনার মো. শাহাবুদ্দিন খান (বিপিএম-বার) সংবাদ সম্মেলন করেন।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০  
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT