শতভাগ করোনা ডেডিকেটেড হিসাবে চূড়ান্ত অনুমোদন পেয়েছে সদর হাসপাতাল শতভাগ করোনা ডেডিকেটেড হিসাবে চূড়ান্ত অনুমোদন পেয়েছে সদর হাসপাতাল - ajkerparibartan.com
শতভাগ করোনা ডেডিকেটেড হিসাবে চূড়ান্ত অনুমোদন পেয়েছে সদর হাসপাতাল

3:17 pm , August 4, 2021

হেলাল উদ্দিন ॥ অবশেষে শতভাগ করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতাল হিসাবে চূড়ান্ত অনুমোদন পেয়েছে বরিশাল জেনারেল (সদর) হাসপাতাল। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন স্বাস্থ্য মন্ত্রনালয়ের স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের হাসপাতাল শাখার যুগ্ম সচিব উম্মে সালমা তানজিলা। তিনি বলেন, মঙ্গলবার সংশ্লিষ্ট দপ্তরগুলোতে এ সংক্রান্ত চিঠি ইস্যু করা হয়েছে। ফলে শতভাগ অর্থ্যাৎ একশ শয্যা হিসাবে খুব অল্প সময়ের মধ্যে এ হাসপাতালে করোনা রোগীদের চিকিৎসা কার্যক্রম শুরু হবে। ইতিমধ্যেই এ হাসপাতালে ২২ বেডের করোনা ইউনিট চালু রয়েছে। নিশ্চিত করা হয়েছে সেন্ট্রাল অক্সিজেন ব্যবস্থার। মন্ত্রনালয়ের চিঠি পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বরিশাল জেলা সিভিল সার্জন ও সদর হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. মো. মনোয়ার হোসেন।
আর বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক ডাঃ বাসুদেব কুমার দাস বলেন, অনুমোদন দিলে চিঠি অবশ্যই পাওয়া যাবে। হয়ত চেক করা হয়নি। তিনি আরো বলেন, অনুমোদন প্রাপ্তির আগেই আমরা দুই-তৃতীংাশ কার্যক্রম সম্পন্ন করেছি। আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে শতভাগ কার্যক্রম শুরু হবে। এদিকে করোনা ডেডিকেটেড হিসাবে কার্যক্রম শুরু হলে পূর্ব সিদ্ধান্ত অনুযায়ী হাসপাতালের বহি.বিভাগ ছাড়া অন্যান্য চিকিৎসা সেবা বন্ধ রাখা হবে। ডায়রিয়াসহ অন্যান্য সকল রোগীদের শেবাচিম হাসপাতালে চিকিৎসা সেবা প্রদানের ব্যবস্থা করা হয়েছে।
করোনা রোগীর চাপ সামলাতে ও স্বাভাবিক চিকিৎসা সেবা প্রদান করতে চলতি মাসের শুরুর দিকে সদর হাসপাতালকে শতভাগ করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতাল হিসাবে অনুমোদন দিতে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের কাছে আবেদন করে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। এর পরই স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক এ সংক্রান্ত আবেদনে অনুমোদন দিয়ে পরবর্তী কার্যক্রমের জন্য স্বাস্থ্য মন্ত্রনালয়ে প্রেরন করেন।
জেলা সিভিল সার্জন বলেন, যেহেতু ১’শ শয্যার হাসপাতাল। তাই আমরা করোনা ডেডিকেটেড হিসাবেও একশ’ শয্যাই চালু রাখব। তবে ৮০ জন রোগীকে সেন্ট্রাল অক্সিজেন সুবিধা দেয়া সম্ভব হবে। বাকি ২০ জনকে দেওয়া হবে সিলিন্ডার ব্যবস্থার মাধ্যমে। তিনি আরো বলেন, সদর হাসপাতাল থেকে ডেপুটেশনে ৮ জন চিকিৎসক অন্যত্র বদলী করা হলেও ৬ জন কে ইতিমধ্যে ফেরত আনা হয়েছে। তারপরও চিকিৎসকসহ অন্যান্য জনবলের সংকট রয়েছে। কারন করোনা রোগীদের চিকিৎসায় নিয়োজিত ডাক্তার নার্সদের ১৪ দিনের কোয়ারিন্টাইনে পাঠাতে হয়। তখন বিকল্প চিকিৎসকের প্রয়োজন হয়। তবে আশা করছি কার্যক্রম শুরু হলে সব সংকট দুর হবে।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০  
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT