শেবাচিমের করোনা ইউনিটের আইসিইউ নিয়ে চলছে দখলদারিত্ব শেবাচিমের করোনা ইউনিটের আইসিইউ নিয়ে চলছে দখলদারিত্ব - ajkerparibartan.com
শেবাচিমের করোনা ইউনিটের আইসিইউ নিয়ে চলছে দখলদারিত্ব

3:12 pm , August 2, 2021

বিশেষ প্রতিবেদক ॥ বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ (শেবাচিম) হাসপাতালের করোনা ইউনিটের আইসিইউতে চলছে দখল সাম্রাজ্য। পুলিশ গিয়েও দখলমুক্ত করতে পারেনি শষ্যা। রোগীর স্বজনরা অদৃশ্য শক্তির প্রভাব দেখায়। জরুরি রোগীরা পাচ্ছে না সেবা। পরিস্থিতি সামালে আরো কঠোর হবার চিন্তা করছে কর্তৃপক্ষ।
শেবাচিম হাসপাতালের করোনা ইউনিটের ফাইলে দেখা যায়, এখানকার ৫নং বেডের জাকির হোসেনের বাড়ি নগরীর কাশিপুর এলাকায়। গত ২৫ জুন তিনি করোনার উপসর্গ নিয়ে সিসিইউতে ভর্তি হন। একই ভাবে ৪ নং বেডের মোঃ অপু ভর্তি হয় ২ জুলাই। এরা দুজনেই সুস্থ্য হয়ে ওঠার পরেও বেড ছাড়ছেন না। একইভাবে ৩ নং বেডের রোগীও সুস্থ্য হবার পরেও বেড ছাড়তে চাননি। পরে রোববার রাতে পুলিশ আসার খবরে তিনি বিছানা নিয়ে চলে গেছেন। অন্য দুজনের বেড শুন্য করতে পহেলা জুলাই রাতে বিষয়টি বিভাগীয় ও জেলা প্রশাসন এবং পুলিশকে জানানো হয়। বেড থেকে রোগী নামাতে ঐ রাতেই পুলিশ পাঠানো হয়। কিন্তু নামানো যায়নি। শেবাচিম কর্তৃপক্ষ ভাবছেন কঠিন সিদ্ধান্ত নেয়ার কথা। শেবাচিম হাসপাতালের পরিচালক এইচ এম সাইফুল ইসলাম বলেছেন, এখানকার করোনা ইউনিটে আইসিইউ বেড ছিলো ২২ টি। গতকাল সোমবার আরো ৪টি সংযুক্ত করে বেড সংখ্যা বাড়িয়ে করা হয়েছে ২৬টি। পর্যাপ্ত অক্সিজেন সরবরাহ নিশ্চিত করেও কিছু রোগীর কারনে সমস্যা হয়ে যাচ্ছে।
এদিকে সরে জমিনে গিয়ে দেখা গেছে, অপেক্ষমান অনেক মুমুর্ষু রোগীর স্বজনরা হন্য হয়ে ঘুরছেন একটি আইসিইউ বেডের জন্য। রোগী মারা গেলেও মিলছেনা এ বেড। আইসিইউ’র একটি বেড একবার কোন রোগীর দখলে এলে এটি না ছাড়তে চালানো হচ্ছে নানা তদবির। এমন ঘটনার নির্মম শিকার হচ্ছে সাধারন মূমুর্ষু রোগীরা। আইসিইউ বেডে একজন রোগী মারা গেলে অন্যরা ছুটে যান বেড দখলের জন্য।
গত বছর মার্চে শেবাচিম হাসপাতালে ১০ বেড নিয়ে শুরু হয় করোনা ইউনিট। এখন এখানে বেড সংখ্যা ৩০০। এতে রোগী থাকে অন্তত ৩৫৩ জন। এতো ভীড়ের মধ্যে এখানে রয়েছে মাত্র ২৬টি আইসিইউ বেড। সাথে কিছু হাই ফ্লো ক্যানেল নেজুলা ও কিছু অক্সিজেন সাপোর্ট থাকলেও রোগীদের ধারনা প্রান বাঁচাতে চাই আইসিইউ। এখানে কর্তব্যরতরা সুস্থ্য হয়ে ওঠা রোগীদের আসন বদলে কেবিনের অফার করেও ব্যর্থ হচ্ছেন। বার বার তাগাদা দিলে রোগীর স্বজনরা ভাংচুরের ঘটনাও ঘটাচ্ছে অদৃশ্য শক্তির ভয় দেখিয়ে।
গত বছর ৮ মার্চ থেকে চালু হওয়া শেবাচম হাসপাতালের করোনা ইউনিটে এখন পর্যন্ত ১ হাজার ৯৮৪ জন করোনা রোগীসহ ৬ হাজার ৩৯৬ রোগী ভর্তি হয়েছেন। এদের মধ্যে ২৩২ জন করোনা পজেটিভসহ মারা গেছেন মোট ১ হাজার ১১৭ জন। এ অবস্থায় যতসামান্য আইসিইউ সেবাটিকে দখল ঝামেলা মুক্ত করতে স্থানীয় সচেতন মহল আহবান জানিয়েছেন।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০  
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT