উপজেলার সংরক্ষিত ভাইস চেয়ারম্যানের ভাইয়ের কা- উপজেলার সংরক্ষিত ভাইস চেয়ারম্যানের ভাইয়ের কা- ajkerparibartan.com
উপজেলার সংরক্ষিত ভাইস চেয়ারম্যানের ভাইয়ের কা-

3:38 pm , July 24, 2021

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ চাঁদা না দেয়ায় আওয়ামী লীগ নেতাকে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে নির্যাতনের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে বরিশাল সদর উপজেলার চরবাড়িয়া ইউনিয়নের কাগাসুরা গ্রামে। উপজেলার সংরক্ষিত ভাইস চেয়ারম্যান রেহানা বেগম এর ছোটভাই রাসেল মুন্সী বৃহস্পতিবার রাতে আওয়ামী লীগ নেতাকে তার বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে কাগাশুরা বাজারে এনে নির্যাতন করেন। নির্যাতনের শিকার আওয়ামী লীগ নেতা হলো মোহাম্মদ খলিলুর রহমান। তিনি চরবাড়িয়া ইউনিয়ন এর ৩ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক। তিনি শুক্রবার সন্ধ্যায় কাউনিয়া থানায় এ ঘটনায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন তিনি।
ওই অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, কাগাশুরা গরুর হাট নিয়ে রাসেল মুন্সীর সাথে খলিলুর রহমানের দ্বন্দ্ব হয়। খলিল অনুসারীরা কাগাশুরা গরুর হাটের ইজারা পেলে ক্ষিপ্ত হয় রাসেল ও তার অনুসারীরা। গরুর হাট চলাকালীন সময়ে রাসেল অনুসারীরা দুই দফা হাটে হামলা চালান। এই জের ধরে বৃহস্পতিবার রাতে খলিলুর রহমানকে বাড়ি থেকে তুলে আনে রাসেল মুন্সির অনুসারী সালাম ও মিলন এর নেতৃত্বাধীন একদল সন্ত্রাসী। তাকে নিয়ে যাওয়া হয় বাজারের রাসেল মুন্সির কাছে। এরপর সেখানে রাসেল মুন্সি তাকে বেধড়ক মারধর করে ও হত্যার হুমকি দেয়।
হামলার শিকার আওয়ামীলীগ নেতা খলিলুর রহমান বলেন, কোন কারন ছাড়াই রাসেল মুন্সির ক্যাডার সালাম ও মিলনের নেতৃত্বে কয়েকটি মোটরসাইকেল এসে তাকে তুলে নিয়ে যায়। এরপর রাসেল মুন্সির কাছে নেয়ার পর বেধড়ক মারধর করে। এ ঘটনায় তিনি কাউনিয়া থানায় অভিযোগ দিয়েছেন। তিনি জানান, রাসেল নিজেকে ছাত্রলীগ নেতা পরিচয় দিলেও তিনি অনুপ্রবেশকারী হিসেবে ছাত্রলীগ থেকে বহিষ্কৃত। এখন বিএনপি জামাতের একটি গ্রুপকে সাথে নিয়ে তিনি আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের উপর নির্যাতন চালাচ্ছেন।
তবে মারধরের বিষয়টি অস্বীকার করে রাসেল মুন্সী জানান, কথা বলার জন্য খলিলকে ডেকে আনা হয়েছিল এর চাইতে বেশি কোনো ঘটনা ঘটেনি।
কাউনিয়া থানার ওসি মোঃ আজিমূল করিম জানান, চরবাড়িয়া ইউনিয়নের ৩ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক খলিলুর রহমান তাকে মারধোর ও হুমকির ঘটনায় থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেছেন। সেখানে উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান এর ছোট ভাই রাসেল মুন্সী, সালাম ও মিলন নামের তিন ব্যক্তির নাম উল্লেখ করেছেন। আমরা বিষয়টি তদন্ত করছি। প্রমাণ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT