হিজলায় নির্বাচনী অফিসে হামলা-ভাংচুর হিজলায় নির্বাচনী অফিসে হামলা-ভাংচুর - ajkerparibartan.com
হিজলায় নির্বাচনী অফিসে হামলা-ভাংচুর

1:00 am , June 18, 2021

 

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ হিজলা উপজেলায় ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের প্রচারণাকে কেন্দ্র করে বিদ্রোহী প্রার্থীর অফিস ভাঙচুর ও লুটপাটের অভিযোগ পাওয়া গেছে। বুধবার দিবাগত রাতে উপজেলার কাউরিয়া বাজারে এ ঘটনা ঘটে। দফায় হামলা-সংঘর্ষে দুই গ্রুপের আটজন আহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আওয়ামী লীগ প্রার্থীর পক্ষে দায়ের করা মামলায় বিদ্রোহী প্রার্থীর দুই কর্মীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। সংঘর্ষের পর কাউরিয়া বাজারে উত্তপ্ত পরিস্থিতি বিরাজ করছে। আহতদের হিজলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। আহতরা হলেন- মিজানুর রহমান (৪০), আব্দুর রহিম (৫০), রায়হান (১৬), কাশেম খান (৩৫), নূর মোহাম্মদ (৫০), মোহাম্মদ শফিক (২৫) ও সাইফুল ইসলাম (২৮)। পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার ব্যক্তিরা হলেন- কোভিদ হাওলাদার ও সুদেব দাস। জানা গেছে, বুধবার সন্ধ্যা সাড়ে সাতটার দিকে উপজেলার কাউরিয়া বাজারে আওয়ামী লীগের প্রার্থী অধ্যাপক শাহজাহান তালুকদার নির্বাচনী প্রচারণা চালাচ্ছিলেন। এসময় বিদ্রোহী প্রার্থী মুন্সী মোহাম্মদ ইসহাক আমিনের আনারস মার্কার পক্ষে বাজারের মধ্যে মাইক বাজিয়ে প্রচারণা চলছিলো। মাইকের শব্দে আওয়ামী লীগ প্রার্থীর প্রচারকাজে বিঘœ ঘটলে তারা বাঁধা দেন। এর জেরে উভয় গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ ও দফায় দফায় হামলার ঘটনা ঘটে। এসময় আওয়ামী লীগ সমর্থিত নেতাকর্মীরা বিদ্রোহী প্রার্থীর নির্বাচনী অফিসে হামলা ভাঙচুর ও লুটপাট চালায় বলে অভিযোগ করেন প্রার্থী মুন্সি মোঃ ইসাহাক আমিন। এতে দুই গ্রুপের আটজন আহত হয়েছেন। সংঘর্ষের ঘটনার পর হিজলা থানায় আওয়ামীলীগ সমর্থিত প্রার্থী অধ্যাপক শাহজাহান তালুকদারের ভাতিজা মিন্টু তালুকদার ২১ জনের নামউল্লেখ ও অজ্ঞাত আরো ১০-১৫ জনকে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করেছেন। এ মামলায় পুলিশ বিদ্রোহী প্রার্থীর কর্মী কোভিদ হাওলাদার ও সুদেব দাসকে গ্রেপ্তার করেছে। আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী মুন্সী মোহাম্মদ ইসহাক আমিন বলেন, আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থীর কর্মীরা কাউরিয়া বাজারে নির্বাচনী প্রচারণায় এসেই তার দলীয় কার্যালয়ের মধ্যে থাকা নেতাকর্মীদের ওপর অতর্কিত হামলা চালায়। এ সময় নির্বাচনী কার্যালয়ে ভাঙচুর ও লুটপাট করা হয়েছে। এ ঘটনায় হিজলা থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। তবে পুলিশ তার মামলা গ্রহণ করেননি। উল্টো আওয়ামী লীগ প্রার্থীর পক্ষ থেকে মামলা গ্রহণ করে তার দুই কর্মীকে আটক করা হয়েছে বলে জানান তিনি। এ ব্যাপারে আওয়ামীলীগ সমর্থিত প্রার্থী অধ্যাপক শাহজাহান তালুকদার ও হিজলা থানার ওসি অসীম কুমার সিকদারের মোবাইল ফোনে একাধিকবার কল করা হলেও তারা তা রিসিভ করেননি।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০৩১  
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT