উজিরপুের হুমকির মুখে শতবর্ষী বটবৃক্ষ! উজিরপুের হুমকির মুখে শতবর্ষী বটবৃক্ষ! - ajkerparibartan.com
উজিরপুের হুমকির মুখে শতবর্ষী বটবৃক্ষ!

3:20 pm , June 14, 2021

 

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ হাইভোল্টেজ বিদ্যুতের তার ঢুকিয়ে দেয়া হয়েছে শতবর্ষী বটবৃক্ষের বিস্তৃত শাখা প্রশাখার মধ্যদিয়ে। হাইভোল্টেজ বিদ্যুতের তারে কারণে কালের স্বাক্ষী বৃক্ষটি হত্যা করার পরিকল্পনা করা হয়েছে বলে স্থানীয়রা অভিযোগ করেন। ইতোমধ্যে স্মৃতি বিজরীত বটগাছটি রক্ষার জন্য এলাকার সচেতন মহল উপজেলা নির্বাহী অফিসার এবং পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের কাছে আবেদন করেও কোন সুফল পাননি। তাই এলাকাবাসি ঐতিহ্যবাহী এ বটবৃক্ষটি রক্ষার জন্য পরিবেশবাদী, বৃক্ষপ্রেমী, আইনী সংস্থাসহ প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন। শতবর্ষী বটবৃক্ষটির অবস্থান জেলার উজিরপুর উপজেলার জল্লা ইউনিয়নের কারফা বাজারে।
স্থানীয় একাধিক প্রবীণ ব্যক্তিরা জানান, বট গাছটির নাম আবাস, গৃহ, স্মৃতি, বন্ধু, ছায়া, মায়া, আবেগ, অনুভব, অনুভূতি। এর সু-শীতল ছায়াতলে হাজারো পাখির বসবাস। এ বট বৃক্ষকে কেন্দ্র করে গড়ে উঠেছে অত্র এলাকার কয়েকশ’ বছরের ঐতিহ্যবাহী পুরানো বাজার। যার নাম কারফা বটতলা বাজার। তারা আরও জানান, পুরো এলাকার হাজারো মানুষের হৃদয়ের স্পন্দন ছায়া সু-নিবিড়, সু-শীতল শতবর্ষী বটবৃক্ষটি হাজারো মানুষের আবেগের জায়গা ও কালেরস্বাক্ষী। সূত্রমতে, স্থানীয় একটি স্ব-মিলের জন্য হাইভোল্টেজ বিদ্যুতের তার ঢুকিয়ে দেয়া হয়েছে শতবর্ষী বট বৃক্ষের বিস্তৃত শাখা প্রশাখার ভেতর দিয়ে। ফলে হাইভোল্টেজ বিদ্যুতের তার দিয়ে বট বৃক্ষটিকে ধীরে ধীরে হত্যার পরিকল্পনা করা হয়েছে। কালের স্বাক্ষী শতবর্ষী বট বৃক্ষটি রক্ষার জন্য এলাকাবাসীর কাছ থেকে লিখিত অভিযোগ প্রাপ্তির সত্যতা স্বীকার করে উপজেলা নির্বাহী অফিসার প্রণতি বিশ্বাস বলেন, ইতোমধ্যে বট বৃক্ষের মধ্যদিয়ে বিদ্যুতের লাইন সরিয়ে অন্য জায়গা থেকে লাইন দেয়ার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের অনুরোধ করা হয়েছে।

এই বিভাগের আরও খবর

বসুন্ধরা বিটুমিন

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮২৯৩০৩১  
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT