সাড়ে ৫ লাখ চিংড়ির রেনু পোনাসহ আটক ২০ সাড়ে ৫ লাখ চিংড়ির রেনু পোনাসহ আটক ২০ - ajkerparibartan.com
সাড়ে ৫ লাখ চিংড়ির রেনু পোনাসহ আটক ২০

12:58 pm , June 3, 2021

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ বরিশালে সাড়ে ৫ লাখ গলদা চিংড়ির রেনু পোনাসহ ২০ জনকে আটক করা হয়েছে। এদের মধ্যে আনুমানিক ৪ লাখ গলদা চিংড়ির রেনু পোনাসহ ১৯ জনকে নৌ-পুলিশ এবং দেড়লাখ রেনুপোনাসহ ১ জনকে উপজেলা প্রশাসন আটক করেছে। জানাগেছে, বৃহষ্পতিবার (০৩ জুন) ভোরে নগরের শহীদ আব্দুর রব সেরনিয়াবাত সেতুর ঢালে চেকপোষ্ট বসিয়ে এ অভিযান চালায় বরিশাল সদর নৌ থানা পুলিশের সদস্যরা। বিষয়টি নিশ্চিত করে নৌ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাসনাত জামান জানান, একটি ট্রাকে ২০ টি ড্রামে ভর্তি করে রেনুপোনাগুলো ভোলা থেকে খুলনার দিকে নেয়া হচ্ছিলো। এসময় অভিযান চালিয়ে ট্রাকে থাকা রেনুপোনাসহ ১৯ জনকে আটক করা হয়। আটককৃতরা জানিয়েছে প্রতি ড্রামে ২০ হাজার করে গলদা চিংড়ির রেনু পোনা রয়েছে। তিনি আরো জানান, বিষয়টি মৎস বিভাগ ও উপজেলা প্রশাসনকে জানানো হয়েছে। পাশাপাশি এ বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহনের বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। এদিকে বরিশাল সদর উপজেলা পরিষদের সামনে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে আরো দেড় লাখ গলদা চিংড়ির রেনুপোনা সহ একটি পিকআপ ও এক পাচারকারীকে আটক করেছে উপজেলা প্রশাসন। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ মুনিবুর রহমান জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে আনসার সদস্যদের সহায়তায় উপজেলা পরিষদের (থানা কাউন্সিল) সামনের সড়কে অভিযান চালানো হয়। এসময় পটুয়াখালীর দশমিনা থেকে ঢাকামুখী একটি পিকআপে ৫ টি ড্রামভর্তি দেড়লাখ গলদা চিংড়ির রেনু পোনা পাওয়া যায়। পাশাপাশি এসময় ১ জনকে আটক করা হয়, পরে তাকে উপজেলা ভূমি কর্মকর্তা পরিচালিত ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে কারাদন্ড দেয়া হয়। তিনি আরো জানান, এখান থেকে পাওয়া তথ্যানুযায়ী নৌ পুলিশ অভিযান চালিয়ে ১৯ জনকে ২০ টি ড্রামভর্তি রেনুপোনাসহ আটক করেন। তাদেরও উপজেলা ভূমি কর্মকর্তা পরিচালিত ভ্রাম্যমান আদালতের নিকট সোপর্দ করা হয়েছে। এদিকে রেনুপোনাগুলো অবমুক্ত করা হবে বলে জানিয়েছেন মৎস কর্মকর্তারা।

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT