শেবামেক এর ভর্তি বাণিজ্য তদন্তে স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিদপ্তরের কমিটি গঠন শেবামেক এর ভর্তি বাণিজ্য তদন্তে স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিদপ্তরের কমিটি গঠন - ajkerparibartan.com
শেবামেক এর ভর্তি বাণিজ্য তদন্তে স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিদপ্তরের কমিটি গঠন

3:48 pm , May 30, 2021

 

হেলাল উদ্দিন ॥ বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজে (শেবামেক) ভর্তি বানিজ্যের অভিযোগ তদন্তে তদন্ত কমিটি গঠন করেছে স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিদপ্তর। গতকাল রোববার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিদপ্তরের মহা পরিচালক অধ্যাপক ডাঃ এ এইচ এম এনায়েত হোসেন। তিনি বলেন, কারিগরি শিক্ষা ও গবেষনা বিভাগের পরিচালক প্রফেসর কামাদা প্রসাদকে তদন্ত কমিটির প্রধান করে কমিটি গঠন করতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। একই সঙ্গে দ্রুততার সাথে প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে। বিষয়টি নিশ্চিত করে তদন্ত কমিটির প্রধান প্রফেসর কামাদা প্রসাদ বলেন, ডিজি স্যার স্বাক্ষরিত একটি চিঠি পেয়েছি। এখনো পূর্নাঙ্গ কমিটি গঠন করা হয়নি। তবে কমিটি ৩ সদস্য বিশিষ্ট হবে। তিনি বলেন, কবে নাগাদ তদন্তের জন্য বরিশাল সফর করা হবে তা পরবর্তীতে জানিয়ে দেওয়া হবে। এদিকে তদন্ত কমিটি গঠনের চিঠি পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ ডাঃ মনিরুজ্জামান শাহীন। তথ্য মতে, গত বছরের ৪ নভেম্বর পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক বাহলুল হক চৌধুরী বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষে একটি চিঠি প্রদান করেন। তাতে ১৯৯৬-৯৭ শিক্ষা বর্ষের এমবিবিএস ভর্তিতে জালিয়াতি হয়েছে উল্লেখ করে ভর্তির রেকর্ডস সমূহ তলব করে কলেজ কর্তৃপক্ষ কে অনুরোধ করা হয়। ওই চিঠির প্রেক্ষিতে কলেজ কর্তৃপক্ষ নথিপত্র খুজতে গিয়ে না পেয়ে গত ৫ এপ্রিল তৎকালীন ছাত্র শাখায় কর্মরত জাহাঙ্গীর হোসেন ও স্টোর কিপার নাদিরুজ্জামানকে শোকজ করে ৫ কার্য দিবসের মধ্যে নথিপত্র বুঝিয়ে দিতে নির্দেশ প্রদান করে। কিন্তু নানা অযুহাতে নথিপত্র বুঝিয়ে না দিয়ে তালবাহানা শুরু করে অভিযুক্তরা। কলেজ কর্তৃপক্ষ প্রথম দিকে কঠোর অবস্থানে থাকলেও শেষ ভাগে তাদের অবস্থান পিচ্ছিল হয়। শেষ পর্যন্ত রেকর্ড সমূহ বুঝিয়ে না দিলেও কলেজ কর্তৃপক্ষ পরবর্তী কোন পদক্ষেপ গ্রহন না করে তদন্ত প্রক্রিয়ার পথ রুদ্ধ করে দেয়।
এ বিষয়ে দৈনিক আজকের পত্রিকায় একাধিক অনুসন্ধানী প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়। তাতে বেড়িয়ে আসে দুই অভিযুক্ত জাহাঙ্গীর ও নাদিরুজ্জামানের অনিয়ম দূর্নীতির বিস্ময়কর সব তথ্য। এমনকি তুলে ধরা হয় এদের স্থাবর অস্থাবর সম্পত্তির চিত্র। স্বয়ং চিকিৎসক থেকে শুরু করে স্বাস্থ্য সেক্টর ও সচেতন মহল থেকে এদের মুখোস উন্মোচন করার জন্য দাবী তোলা হয়।
পুরো বিষয়টি গত সপ্তাহে পরিবর্তনের পক্ষ থেকে স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালককের কাছে বিষয়টি তুলে ধরা হলে তিনি তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের কথা জানান।

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT