কিশোরকে কাউন্সিলরের নির্যাতন ঘটনার তদন্ত শুরু কিশোরকে কাউন্সিলরের নির্যাতন ঘটনার তদন্ত শুরু - ajkerparibartan.com
কিশোরকে কাউন্সিলরের নির্যাতন ঘটনার তদন্ত শুরু

3:25 pm , April 17, 2021

ঝালকাঠি প্রতিবেদক ॥ ঝালকাঠির বিকনায় মাদকসেবী চক্রের ভিডিও ভাইরাল করার সন্দেহে গভীর রাতে বাড়ীতে প্রবেশ করে মায়ের সামনে রিয়াজ সিকদার কাজল (১৬) নামের এক কিশোরকে ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও তার সহযোগীদের নির্যাতনের অভিযোগ তদন্ত শুরু করেছে থানা পুলিশ। ঝালকাঠি পুলিশ সুপার ও থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার কাছে নির্যাতিত কিশোর রিয়াজের মা নওমুসলিম মেহেরীন আক্তার লিখিত অভিযোগ দায়ের করার দুই দিন পর বৃহস্পতিবার এএসআই সাইফুল ইসলাম ঘটনাস্থল পরিদর্শন ও বিভিন্ন জনের স্বাক্ষ্য গ্রহন করেছে। এ সময় বাদী মেহেরীন আক্তার ও প্রত্যক্ষদর্শী প্রতিবেশীরা ছাড়াও নির্যাতনকারী মাদকসেবী চক্রের বেশ কিছু সদস্য তদন্ত স্থলে উপস্থিত ছিলো বলে জানাগেছে।
রিয়াজের মা মেহেরীন আক্তার জানান, ১০ এপ্রিল রাত ১২টার দিকে স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর রেজাউল করিম জাকির ওরফে জিএস জাকির প্রায় ৮/১০জন সন্ত্রাসী তাকে প্রান নাশের হুমকি দিয়ে ঘরে প্রবেশ করে এবং ঘরের মধ্যে তার একমাত্র ছেলে এবার এসএসসি পরীক্ষার্থী রিয়াজ সিকদারকে হত্যার উদ্দেশ্যে খুজতে থাকে। তখন সে ছেলেকে খোজার কারন জানতে চাইলে হুমকির স্বরে বলে তোর ছেলে ফেক আইডি চালায় আর সেই আইডি দিয়া আমার লোকজনের বিভিন্ন ভিডিও ফেসবুকে ছেড়েছে। তোর ছেলে আমার মান-সম্মান সব নষ্ট করছে। তখন সে তার ছেলে কোন ফেক আইডি চালায় না, কারন সে ছেলের অজান্তে তার ফোন প্রায়ই চেক করেন বলে জানান।
লিখিত অভিযোগে সে আরো উল্লেখ করেন, এ সময় তার কিশোর পুত্র রিয়াজকে কাউন্সিলর জিএস জাকিরের হাতে থাকা জিআই পাইপ দিয়েও বেধরক পিটিয়ে সহযোগীদের হাতে তুলে দেয়। তখন তার সহযোগী কাউন্সিলর জিএস জাকিরের ভগ্নিপতি তৌহিদুল, মুজ্জামেলের পুত্র মুরাদ, হোসেনের পুত্র জুম্মান,মিজানের পুত্র মারুফ, মাদবরের পুত্র রাকিবসহ অজ্ঞাতনামা ৮/১০জন সন্ত্রাসী তার ছেলেকে রাতভর হকিস্টিক দিয়ে বেধরক মারধোর করে। এক পর্যায়ে কাউন্সিলর জিএস জাকির তার কিশোর পুত্র রিয়াজকে পিস্তল দিয়ে গুলি করার চেষ্টা করলে সাথে থাকা লোকজন তাকে শান্ত করে।স্বাক্ষীরা মূমূর্ষ অবস্থায় রিয়াজকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিতে চাইলেও সারারাত তাদের জিম্মি করে রাখে ও পরের দিন ১১ এপ্রিল বেলা ১১টায় ঝালকাঠি হাসপাতালে আনলে চিকিৎসকরা তাকে ভর্তি করে।
উল্লেখ্য, গত চারদিন আগে ঝালকাঠি পৌরসভার ১নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ও ঝালকাঠি জেলা যুবলীগের আহবায়ক রেজাউল করিম জাকিরের পালিত সন্ত্রাসী জুম্মান, মারুফ ও রাকিবের ইয়াবা সেবনের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়লে সমালোচনার ঝড় ওঠে এবং দীর্গদিন ধরে এলাকায় গড়ে তোলা নেশার সা¤্রাজ্য জনসমক্ষে বেড়িয়ে আসায় নিজের ইমেজ রক্ষায় কাউন্সিলর রেজাউল করিম জাকির ওরফে জিএস জাকির দিশেহারা হয়ে কিশোর রিয়াজকে অমানুষিক নির্যাতনসহ এলাকার আরো বেশ কয়েক কিশোর-যুবকের বাড়ীতে হানা দিয়ে এলাকা ছাড়া করে বলে অভিযোগ ওঠে। যাদের মধ্যে নাইম হাওলাদার নামে এক কিশোর ইতিমধ্যে ঝালকাঠি থানায় জিডি (নং-৪৪৫) দায়ের করেছে এবং বাকী কয়েক যুবক নিজেদের বাড়ী-ঘর ছেড়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছে।
এ বিষয়ে স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও জেলা যুবলীগের আহবায়ক রেজাউল করিম জাকির জানায়, তার ওয়ার্ডে এধরনের কোন ঘটনা ঘটেছে কিনা আমি জানিনা এবং এরকম ঘটনার সাথে আমার জড়িত থাকার প্রশ্নই ওঠেনা।
এ ব্যাপারে ঝালকাঠি থানার এএসআই সাইফুল ইসলাম জানায়, নওমুসলিম মেহেরীন আক্তারের অভিযোগের বিষয়ে তিনি সরেজমিনে তদন্ত করেছেন। শীগ্রই তদন্ত রিপোর্ট তার উর্ধতন কর্মকর্তাদের কাছে প্রদান করবেন।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০  
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT