দক্ষিণাঞ্চলে করোনা সংক্রমন উর্ধ্বমুখী উদ্বেগে সাধারন মানুষসহ চিকিৎসক দক্ষিণাঞ্চলে করোনা সংক্রমন উর্ধ্বমুখী উদ্বেগে সাধারন মানুষসহ চিকিৎসক - ajkerparibartan.com
দক্ষিণাঞ্চলে করোনা সংক্রমন উর্ধ্বমুখী উদ্বেগে সাধারন মানুষসহ চিকিৎসক

3:22 pm , March 18, 2021

বিশেষ প্রতিবেদক ॥ দক্ষিণাঞ্চলে করোনা সংক্রমন আবার লাফিয়ে বাড়ছে। উদ্বেগ বাড়ছে সাধারন মানুষ সহ চিকিৎসকদের মাঝেও। বৃহস্পতিবার সকালের পূর্ববর্তি ৭ দিনে দক্ষিণাঞ্চলে সরকারী হিসেবে দুজনের মৃত্যু ছাড়াও ৫৯ জন নতুন কোভিড-১৯ রোগী শনাক্ত হয়েছে। মাত্র ৪৮ ঘন্টার ব্যবধানে ঝালকাঠিতেই দুজনের মৃত্যু হয়েছে। আর এ বিভাগের ৬ জলায় আক্রান্ত ৫৯ জনের মধ্যে প্রায় ৩০ জন নগরীর বাসিন্দা। এমনকি প্রতিদিনেই আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে। ফেব্রুয়ারীর প্রথম ১৫ দিনে দক্ষিণাঞ্চলের ৬ জেলায় যেখানে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ৬৪, সেখানে চলতি মাসের একই সময়ে তা ৮০’তে উন্নীত হয়েছে। আর ১২ মার্চ থেকে ১৮ মার্চ পর্যন্ত ৭ দিনে আক্রান্তের সংখ্যা ৫৯-এ দাড়িয়েছে। গত ১৪ ও ১৬ মার্চ ঝালকাঠিতে দুজনের মৃত্যু ঘটেছে। চার উপজেলার ছোট জেলা ঝালকাঠিতে এ পর্যন্ত ৮৫১ জন আক্রান্তের মধ্যে ১৮ জনের মৃত্যু হয়েছে।
পরিস্থিতির অবনতি রোধে এখনো তেমন কোন কঠোর পদক্ষেপ লক্ষনীয় নয়। এ অঞ্চলে সামাজিক দুরত্ব বজায় রাখা সহ মাস্ক ব্যবহার অতীত ঘটনায় পরিনত হয়েছে। এ পরিস্থিতিতে ইউপি নির্বাচনের দামামা বেজে উঠছে গ্রামে গঞ্জে। এমনকি বৃহস্পতিবার নগরীতেই বিশাল মোটর বাইকের মহড়া নিয়ে শক্তি প্রদর্শন করেন এক প্রার্থী।
অপরদিকে করোনা সংক্রমন বাড়লেও টিকা গ্রহনকারীর সংখ্যাও ক্রমশ হ্রাস পাচ্ছে দক্ষিণাঞ্চলে। ৭ ফেব্রুয়ারী থেকে এ পর্যন্ত দক্ষিণাঞ্চলে মাত্র ২ লাখ ৫ হাজারের মত টিকা গ্রহন করলেও তারমধ্যে নারীর সংখ্যা মাত্র ৭৩ হাজার। ইতোপূর্বে যেখানে এ অঞ্চলে একদিনে ১৬ হাজারের ওপর টিকা গ্রহন করেছে, এখন তা আড়াই হাজারে হ্রাস পেয়েছে।
বৃহস্পতিবার সকাল পর্যন্ত দক্ষিণাঞ্চলে সর্বমোট আক্রান্ত ১০ হাজার ৮৩২ জনের মধ্যে বরিশাল জেলার সংখ্যাই ৪ হাজার ৯৫৯। এরমধ্যে নগরীতে আক্রান্ত হয়েছেন ৩ হাজার ৭২০ জনের মত। আর দক্ষিণাঞ্চলে মৃত ২০৬ জনের মধ্যে বরিশাল জেলায়ই মৃত্যু হয়েছে ৮৯ জনের। যারমধ্যে নগরীতেই ৪৫ জন মারা গেছেন।
পটুয়াখালীতে এপর্যন্ত ১ হাজার ৭৫১ জন আক্রান্তের মধ্যে মারা গেছেন ৪১ জন। পিরোজপুরে আক্রান্তের সংখ্যা ১ হাজার ২১২ জন। মৃত্যু হয়েছে ২৫ জনের। বরগুনাতে নতুন করে সংক্রমন বাড়ছে। মঙ্গলবার সাকালের পূর্ববর্তি ২৪ ঘন্টায় ছোট এ জেলাটিত নতুন করে ৫ জনের সংক্রমনের খবর দিয়েছে স্বাস্থ্য বিভাগ। জেলাটিতে এ পর্যন্ত ১ হাজার ৪৫ জন আক্রান্তের মধ্যে মৃত্যু হয়েছে ২২ জনের। দ্বীপজেলা ভোলাতেও এ পর্যন্ত ১ হাজার ১৪ জন আক্রান্তের মধ্যে ১১ জন মারা গেছেন।
গত বছর ১৮ মার্চ দক্ষিণাঞ্চলে প্রথম শনাক্ত হবার পরে মার্চের শেষভাগে বরিশাল শের এ বাংলা মেডিকেল কলেজে প্রথম পিসিআর ল্যাব চালু হয়। আগষ্টে ভোলা জেনারেল হাসপাতালেও অনুরূপ একটি ল্যাব স্থাপনের পরে এ পর্যন্ত প্রায় ৫৮ হাজার নমুনা পরীক্ষা করা হলেও এ সংখ্যা আশানুরূপ নয় বলে মনে করছেন চিকিৎসা বিশেষজ্ঞগন। জনবল সংকটের কারনেও শের এ বাংলা মেডিকেল কলেজের আর-টি পিসিআর ল্যাবে নমুনা পরীক্ষার সংখ্যা বাড়ানো যাচ্ছে না।
দক্ষিণাঞ্চলে এখনো করোনা পজিটিভ শনাক্তের হার প্রায় ১৫%। আর স্বাস্থ্য বিভাগের অনুমিত হিসেব অনুযায়ী এ অঞ্চলে করোনা আক্রান্ত ১০ হাজার ৮৩২ জনের মধ্যে এ পর্যন্ত সুস্থ হয়ে উঠেছেন সাড়ে ১০ হাজারের ওপরে। সর্বশেষ হিসেব অনুযায়ী এ অঞ্চলে সুস্থতার হার প্রায় ৯৭%।

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT