দক্ষিণাঞ্চলে বাড়ছে করোনা সংক্রমন কমছে টিকা গ্রহনকারীর সংখ্যা দক্ষিণাঞ্চলে বাড়ছে করোনা সংক্রমন কমছে টিকা গ্রহনকারীর সংখ্যা - ajkerparibartan.com
দক্ষিণাঞ্চলে বাড়ছে করোনা সংক্রমন কমছে টিকা গ্রহনকারীর সংখ্যা

2:50 pm , March 16, 2021

বিশেষ প্রতিবেদক ॥ দক্ষিণাঞ্চলে করোনা সংক্রমন ও মৃত্যুর সংখ্যা বৃদ্ধির সাথে টিকা গ্রহনকারীর সংখ্যাও ক্রমশ হ্রাস পাওয়ায় চিকিৎসা বিশেষজ্ঞগনের মাঝে উদ্বেগ বৃদ্ধি করছে। অথচ ডিসেম্বরের শেষ থেকে ফেব্রুয়ারীর শেষভাগ পর্যন্ত এ অঞ্চলে পরিস্থিতির যথেষ্ট উন্নতি ঘটেছিল। চলতি মাসের প্রথম ১৫ দিনে দক্ষিণাঞ্চলের ৬ জেলায় সরকারী হিসেবে ৮০ জন নতুন কোভিড-১৯ রোগী শনাক্ত হয়েছে। আর মৃত্যু হয়েছে ৪ জনের। অথচ ফেব্রুয়ারীর প্রথম ১৫ দিনে আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ৬৪। মৃত্যু হয়েছিল দুজনের। গত ৩দিনে ঝালকাঠিতে দুজনের মৃত্যু হয়েছে। তবে গোটা বিভাগে আক্রান্তের সিংহভাগ নগরীতে। অথচ সমগ্র দক্ষিণাঞ্চলের মাত্র ৬% মানুষ এ নগরীতে বাস করে।
গত ৭ ফেব্রুয়ারী থেকে সারা দেশের সাথে দক্ষিণাঞ্চলেও করোনা প্রতিষেধক টিকা প্রদান শুরু হবার পরে তাএকদিনে ১৬ হাজার অতিক্রম করলে ইতোমধ্যে তা আড়াই হাজারেরও নিচে হ্রাস পেয়েছে। গত ১৩ মার্চ দক্ষিণাঞ্চলের ৬ জেলায় মাত্র ২ হাজার ২১১ জন টিকা গ্রহন করেন। মঙ্গলবারও মাত্র ২ হাজার ৪৪০ জন সহ দক্ষিণাঞ্চলে মোট টিকা গ্রহনকারীর সংখ্যা ছিল ২ লাখ ২ হাজার ৩২৬ জন। যার মধ্যে নারীর সংখ্যা এক-তৃতীয়াংশের কিছু বেশী। এ পর্যন্ত সমগ্র দক্ষিণাঞ্চলে মাত্র ৭০ হাজার ৯৬২ নারী টিকা গ্রহন করেছেন। টিকা নেয়া পুরুষের সংখ্যা ১ লাখ ৩১ হাজার ৩৬৪ । অব্যবহৃত থাকায় ইতোমধ্যে বরিশাল সহ দক্ষিণাঞ্চলের ৪টি জেলা থেকে লক্ষাধিক ডোজ অন্যত্র পাঠানো হয়েছে।
গত বছর ১৮ মার্চ দক্ষিণাঞ্চলে প্রথম কোভিড-১৯ রোগী শনাক্ত হবার প্রায় এক বছর পরে গত ২৬ ফেব্রুয়ারী এ অঞ্চল ছিল করোনা শনাক্ত শূণ্য। কিন্তু ২৭ ফেব্রুয়ারী থেকে পুনরায় শনাক্ত হতে শুরু করে। আর মার্চের প্রথমভাগ থেকে রোগীর সংখ্যা ক্রমশ বাড়ছে।
স্বাস্থ্য বিভাগের মতে, মঙ্গলবার পর্যন্ত দক্ষিণাঞ্চলের ৬ জেলায় মোট কোভিডÑ১৯ রোগী শনাক্তের সংখ্যা ছিল ১০ হাজার ৭৯৪। যারমধ্যে বরিশাল জেলার সংখ্যাটাই ৪ হাজার ৯৩৭। এরমধ্যে নগরীতেই আক্রান্ত হয়েছেন ৩ হাজার ৬৯৬ জন। গত ১৫ দিনে জেলায় আক্রান্ত ৪৪ জনের মধ্যে মহানগরীতেই সংখ্যাটা ৩৩। এ হিসেবে বিভাগের মোট শনাক্ত রোগীর প্রায় ৩৫%-এর বেশী নগরীতে। আর এ পর্যন্ত দক্ষিণাঞ্চলে করোনা সংক্রমনে মৃত ২০৬ জনের মধ্যে জেলায় মারা গেছে ৮৯ জন। তবে এরমধ্যে নগরীতেই মারা গেছেন ৪৮ জন। দক্ষিণাঞ্চলে সর্বশেষ গড় মৃত্যুহার প্রায় ১.৮৫% হলেও নগরীতে তা অনেক বেশী।
স্বাস্থ্য বিভাগের সর্বশেষ হিসেবে দক্ষিণাঞ্চলে এখনো করোনা পজিটিভ শনাক্তের হার ১৪%-এর উপরে। আর স্বাস্থ্য বিভাগের অনুমিত হিসেব অনুযায়ী দক্ষিনাঞ্চলে করোনা আক্রান্ত ১০ হাজার ৭৯৪ জনের মধ্যে এ পর্যন্ত সুস্থ হয়ে উঠেছেন ১০ হাজার ৪৮৬ জন। সর্বশেষ হিসেব অনুযায়ী এ অঞ্চলে সুস্থতার হার ৯৭%-এর কিছু বেশী।
মঙ্গলবার পর্যন্ত দক্ষিণাঞ্চলের ৬ জেলার মধ্যে বরিশালে মোট আক্রান্ত ৪ হাজার ৯৩৭ জন। মারা গেছেন ৮৯ জন। পটুয়াখালীতে মোট অক্রান্ত ১ হাজার ৭৫০ জনের মধ্যে মৃত্যু হয়েছে ৪১ জনের। এ সময়কালে পিরোজপুরে আক্রান্ত ১ হাজার ২০৭ জন আক্রান্তের মধ্যে মৃত্যু হয়েছে ২৫ জনের। বরগুনাতে ১ হাজার ৪০ জন আক্রান্তের মধ্যে মারা গেছেন ২২ জন। ভোলাতে আক্রান্ত ১ হাজার ১০ জনের মধ্যে ১১ জনের মৃত্যু হয়েছে। আর ঝালকাঠীতে ৮৫০ জন আক্রান্তের মধ্যে ১৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। যার মধ্যে গত তিন দিনেই দুজন মারা গেছেন।
এদিকে মঙ্গলবার সকালের পূর্ববর্তি ২৪ ঘন্টায় দক্ষিণাঞ্চলে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ৮ জন। যারমধ্যে বরিশালের সংখ্যাটাই ৫। মহানগরীতে ৪ জন। এ সময়ে ভোলাতে ২ ও পিরোজপুরে আরো একজন কোভিড-১৯ রোগী শণাক্ত হয়েছে। বরিশাল শের এ বাংলা মেডিকেল কলেজের আরটি-পিসিআর ল্যাব ও ও ভোলা জেলা হাসপাতালের ল্যাবে এ পর্যন্ত প্রায় ৫৫ হাজার মানুষের নমুনা পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে।
তবে সাম্প্রতিককালে করোনা রোগী সনাক্তের ক্ষেত্রে নমুনা পরীক্ষার সংখ্যা যথেষ্ঠ হ্রাস পাবার সাথে নুন্যতম স্বাস্থ্য বিধি অনুসরনেরও কোন বালাই নেই দক্ষিণাঞ্চলে। করোনা মহামারি থেকে উত্তরনে চিকিৎসা বিশেষজ্ঞগন আরো বেশী করে নমুনা পরিক্ষার পাশাপাশি মাস্ক পরা সহ পরিপূর্ণ স্বাস্থ্য বিধি অনসুরনের তাগিদ দিয়েছেন। নচেত সামনে অত্যন্ত দুঃসময় অপেক্ষা করছে বলেও মন্তব্য করেছেন তারা।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০৩১  
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT