চরম দূর্ভোগে বরিশাল-ঢাকা নৌ-রুটের লঞ্চ যাত্রীরা চরম দূর্ভোগে বরিশাল-ঢাকা নৌ-রুটের লঞ্চ যাত্রীরা - ajkerparibartan.com
চরম দূর্ভোগে বরিশাল-ঢাকা নৌ-রুটের লঞ্চ যাত্রীরা

2:57 pm , February 23, 2021

লঞ্চ মালিকদের স্বেচ্চাচারিতা-বন্দর কর্তৃপক্ষের দায়িত্বহীনতায়

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ বরিশাল-ঢাকা নৌ রুটে লঞ্চ যাতায়াতে যাত্রী চাপ দীর্ঘ দিনের। প্রায় প্রতি বছরই এই রুটে যুক্ত হচ্ছে নতুন নতুন বিলাস বহুল লঞ্চ। যুগ যুগ ধরে চলমান রোটেশন প্রথা বাতিল হলেও মালিকদের স্বেচ্চাচারিতা আর বন্দর কর্তৃপক্ষের দায়িত্বহীনতায় এখনো চরমে রয়েছে এই রুটে যাত্রী ভোগান্তি। গতকাল মঙ্গলবার যার বাস্তব চিত্র দেখা গেছে। দিনভর দৌড়ঝাপ করেও কাঙ্খিত কেবিন না পাওয়ায় অনেক যাত্রীকেই পড়তে হয়েছে বিড়ম্বনায়। এমনকি বাধ্য হয়ে অনেককে যাত্রা বাতিল করতে হয়েছে। সাধারনত বিশেষ দিন ছাড়াও এই রুটে উভয় প্রাপ্ত থেকে দৈনিক ৫ থেকে ৭ টি লঞ্চ চলাচল করে। বিশেষ দিনে এ সংখ্যা আরো বেড়ে যায়। তারপরও এই রুটে যাত্রী চাপ লেগেই থাকে। তৃতীয় শ্রেনী বা ডেকে স্থান সংকুলান একটু সহজ হলেও ভিআইপি ও প্রথম শ্রেনীর টিকিট সংকট সাড়া বছরই থাকে। খুব কম যাত্রী রয়েছেন যারা যাত্রার দিন কাউন্টারে যোগাযোগ করেই টিকিট পেয়েছেন।
গতকাল মঙ্গলবার বরিশাল লঞ্চ ঘাটে গিয়ে দেখা গেছে মাত্র ৪ টি লঞ্চ (এ্যাডভেঞ্চচার-৯,সুন্দরবন-১১ সুরভী-৮ এবং কুয়াকাটা-২) ঢাকা যাওয়ার জন্য রাখা হয়েছে। যা স্বাভাবিক দিনের চেয়েও কম। যে কারনে সাধারন মানুষ প্রথম শ্রেনী তো দুরের কথা ডেকেও সামান্য স্থানটুকু পায়নি। এক কথায় তিল ধারনের ঠাই ছিলোনা ৪ টি লঞ্চে। জানা গেছে, আজ থেকে শুরু হচ্ছে চরমোনাইর বাৎসরিক মাহফিল। যে কারনে রিজার্ভ বুকিং হয়ে এই রুটের বেশ কিছু লঞ্চ মুসল্লী নিয়ে চরমোনাই অবস্থান করছে এবং কিছু চরমানাইয়যাওয়ার পথে রয়েছে। তারপরও এই রুটের মোট লঞ্চের সংখ্যার হিসাবে রয়েছে একাধিক রিজার্ভ লঞ্চ। রিজাভের মোহে লঞ্চ মালিকরা মাথায়ই রাখেননি এই রুটের যাত্রীদের চাহিদা ও ভোগান্তির কথা। এদিকে শুধু লঞ্চ মালিকই নয় নিয়ন্ত্রনকারী সংস্থা বন্দর কর্তৃপক্ষও মালিকদের পক্ষ নিয়ে বেমালুম ভুলে ছিলেন দায়িত্ব পালনের বিষয়টি। তারা প্রয়োজনীয় লঞ্চ রাখতে মালিক পক্ষকে সামান্য চাপটুকুও প্রয়োগ করেননি। যা বরিশাল বন্দর কর্মকর্তা মোস্তাফিজুর রহমান এর কথায় স্পষ্টভঅবে উঠে এসেছে। তিনি বলেন, সোমবার ঢাকা থেকে ৫ টি লঞ্চ ছেড়ে আসার কথা ছিলো। কিন্তু আসে ৪ টি। আমি ঢাকায় যোগাযোগ করেছিলাম এবং মালিকদেরও অনুরোধ করেছিলাম লঞ্চের সংখ্যা বাড়ানোর জন্য। কিন্তু তারা লঞ্চ বাড়ায়নি। চাপ প্রয়োগের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন চাপ প্রয়োগের রাইট (অধিকার) আমাদের রয়েছে। কিন্তুু আমরা তা করিনি। ভবিষ্যতে এরকম পরিস্থিতি সঠিক ভাবে মোকাবেলা করা হবে। এ বিষয়ে জানতে একাধিক লঞ্চ মালিককে ফেন করেও তাদের বক্তব্য পাওয়া সম্ভব হয়নি।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮




মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT