মামলার বাদীই হত্যাকান্ডের পরিকল্পনাকারী ! মামলার বাদীই হত্যাকান্ডের পরিকল্পনাকারী ! - ajkerparibartan.com
মামলার বাদীই হত্যাকান্ডের পরিকল্পনাকারী !

3:09 pm , January 11, 2021

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ ঝালকাঠি জেলার নলছিটিতে রুমন বিশ্বাস হত্যাকান্ডের ঘটনায় ধু¤্রজাল সৃষ্টি হয়েছে। হত্যা মামলার বাদীই হত্যাকান্ডের পরিকল্পনাকারী বলে দাবী করেছেন ওই মামলায় আসামীদের স্বজনরা। সোমবার দুপুরে বরিশাল প্রেসক্লাবের সম্মেলন কক্ষে এক সংবাদ সম্মেলনে বিষয়টি জানান মারুফা আক্তার পপি নামে নলছিটির দপদপিয়া ইউনিয়নের এক বাসিন্দা। লিখিত বক্তব্যে মারুফা বলেন, ৩ জানুয়ারী দপদপিয়া ইউনিয়নে কুপিয়ে হত্যা করা হয় আনিসুুর রহমান রুমন বিশ্বাস (২২) নামে এক যুবককে। ওই ঘটনায় তার চাচাতো ভাই মিঠু বিশ্বাস বাদী হয়ে নলছিটি থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন ২২ জনকে আসামী করে। ওই মামলায় আমার ভাই আল মামুনকে প্রধান আসামী ও আমার এক মাত্র কলেজ পড়–য়া ছেলে জিহাদ খানকে তিন নম্বর ও আমার বাবা বীর মুক্তিযোদ্ধা আইয়ুব আলী হাওলাদারকে ১১ নম্বর আসামী করা হয়েছে ষড়যন্ত্র করে। হত্যার ঘটনায় নিহত রুমন বিশ্বাসের মা ও সৎ ভাই মামলার বাদী না হয়ে চাচাতো ভাই মিঠু বিশ্বাস বাদী হয়েছে যেটা সন্দেহজনক। মারুফা আক্তার আরো বলেন, রুমন বিশ্বাসের বাবা ছত্তার বিশ্বাস এর দুই বিবাহ। রুমন বিশ্বাস দ্বিতীয় ঘরের একমাত্র ছেলে। আর ছত্তার বিশ্বাসের প্রথম সংসারে আব্দুর রহিম বিশ্বাস নামে একজন ছেলে রয়েছে। রুমনের সাথে তার সৎ ভাই রহিম বিশ্বাসের বিরোধ ছিলো। আমাদের ধারণা জমি জমা বিরোধকে কেন্দ্র করে সৎ ভাইয়ের ষড়যন্ত্রের শিকার রুমন বিশ্বাস। মামলার বাদী মিঠু বিশ্বাস ও আজিজ বিশ্বাস এলাকার চিহ্নিত ভূমি দস্যু। তারা ওই এলাকার মানুষকে জিম্মি করে জমির দালালি করে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেয়। বড় অংকের টাকায় জমি বিক্রি হলেই তাদের ভাগ দিতে হয়। এদের বিরুদ্ধে থানায় একাধিক অভিযোগও রয়েছে। এর পূর্বেও মিঠু বিশ্বাস ও আজিজ বিশ্বাস আমার ভাই আল মামুনের বিরুদ্ধে একাধিক মামলা দায়ের করেন। আমার ভাই আল মামুন পরিবারের ২৬ শতাংশ জমি বিক্রি করে। যার আনুমানিক মূল্য ৩৯ লক্ষ টাকা। ১৬ লক্ষ টাকা আল মামুন বায়না বাবদ হাতে পায়। টাকা পাওয়ার খবওে মিঠু বিশ্বাস ও আজিজ বিশ্বাস আল মামুনের কাছে ৫ লক্ষ টাকা দাবী করে। চাঁদা না দিলে আল মামুনের পা কেটে ফেলবে বলে পরিকল্পনাও করে। এই কথা রুমন বিশ্বাস জানতে পেরে আমার ছেলে জিহাদকে জানায়। জিহাদ আল মামুনকে সতর্ক থাকার জন্য বলে। এদিকে রুমন বিশ্বাসকে হত্যাকান্ডের পর মিঠু বিশ্বাস, আজিজ বিশ্বাস ও রুমন এর সৎ ভাই রহিম বিশ্বাস ষড়যন্ত্র করে পরিকল্পিতভাবে মামলার প্রধান আসামী করা হয়েছে আল মামুনকে। এতে তারা সকল সম্পত্তি মালিক হতে পারবেন অনায়াসে। প্রকৃত পক্ষে হত্যার মূল পরিকল্পনাকারী মামলার বাদী মিঠু বিশ্বাস, আজিজ বিশ্বাস ও রহিম বিশ্বাস। মিঠু বিশ্বাস নিজেকে বাঁচাতে মামলার বাদী হয়েছে। এই মিঠু বিশ্বাস পর্দার আড়ালে থেকে হত্যার ইন্ধন জুগিয়েছে। আমরা চাই রুমন হত্যার বিচার হোক এবং প্রকৃতহত্যাকারীদের গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী জানাচ্ছি। সংবাদ সম্মেলনে আল মামুনের বোন আফরোজা খানম লাকি, দপদপিয়া ইউনিয়নের সংরক্ষিত মহিলা মেম্বার জেসমিন নাহার সিরিন, আল মামুনের স্ত্রী জুথি প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন। অভিযোগের বিষয়ে হত্যা মামলার বাদী মিঠু বিশ্বাস বলেন, যারা অভিযোগ করছে তারা ডাকাত পরিবার। এদের বিরুদ্ধে এলাকায় নানা অভিযোগ। এরা ভূমিদস্যু। মিথ্যা অভিযোগ করে মামলার কার্যক্রম বাঁধাগ্রস্থ করার চেষ্টা করছে তারা। প্রশাসন সুষ্ঠ তদন্ত করছে, প্রশাসনের উপর আমাদের আস্থা রয়েছে।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০৩১




মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT