চরফ্যাসনে গ্রাম পুলিশের যাতায়াত ভাতার টাকা আত্মসাতের অভিযোগ চরফ্যাসনে গ্রাম পুলিশের যাতায়াত ভাতার টাকা আত্মসাতের অভিযোগ - ajkerparibartan.com
চরফ্যাসনে গ্রাম পুলিশের যাতায়াত ভাতার টাকা আত্মসাতের অভিযোগ

3:19 pm , December 5, 2020

চরফ্যাসন প্রতিবেদক ॥ চরফ্যাসনের অফিস খরচের নামে গ্রামপুলিশের যাতায়ত ভাতার টাকা আত্মসাতের অভিযোগ উঠেছে। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ের স্থানীয় সরকার শাখার অফিস সহকারী মনির আলমের বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ করেছেন সংশ্লিষ্ট্ গ্রামপুলিশ সদস্যরা। অভিযোগে জানাগেছে, চরফ্যাসন উপজেলায় ২শ জন গ্রামপুলিশ সদস্য কর্মরত আছেন। তাদের মধ্যে ১৮৩ জনের ২২ মাসের যাতায়ত ভাতা বাবদ ৪৬ লাখ ৫১ হাজার ২শ টাকা বরাদ্দ পাওয়া গেছে । এদের মধ্যে ১৬৮ জনের ২২ মাসের যাতায়ত ভাতা বাবদ জন প্রতি ২৬ হাজার ৪শ টাকা এবং অপর ১৫ জনের জনপ্রতি ১৪ হাজার ৪শ টাকা করে বরাদ্দ পাওয়া গেছে। উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয় স্থানীয় সরকার শাখা থেকে এই ভাতার টাকা বিরতণ করা হচ্ছে। অভিযোগ উঠেছে, এই ভাতার টাকা বিতরণের দায়িত্বরত উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয়ের স্থানীয় সরকার শাখার অফিস সহকারী মো. মনির আলম প্রত্যেকের কাজ থেকে ২হাজার ৪শ টাকা করে রেখে বাকী ২৪ হাজার হাজার টাকা গ্রামপুলিশ সদস্যদের হাতে তুলে দেন।নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক গ্রামপুলিশ সদস্যরা জানান, বিতরণকারী অফিস সহকারী মনির আলম নিজের খরচ বাবদ ৪শ টাকা, উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয়ের খরচ বাবদ ১ হাজার টাকা এবং উপজেলা স্থানীয় সরকার প্রকৌশলীর কার্যালয়ের খরচ বাবাদ ১ হাজার টাকা হিসেবে মোট ২৪শ টাকা রেখে বাকী টাকা বুঝিয়ে দেয়া হয়েছে। যদিও অভিযুক্ত মো. মনির আলম কোন টাকা রেখে দেয়ার কথা অস্বীকার করেছেন। উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. রুহুল আমিন জানান, এই টাকা রেখে দেয়ার কোন সুযোগ নেই। কেউ কোন অজুহাতে টাকা রাখলে অভিযোগ প্রাপ্তি সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮  
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT