গৌরনদীতে ভাগনীর নিন্মাঙ্গে গরম খুন্তির ছ্যাকা, মামি গ্রেপ্তার গৌরনদীতে ভাগনীর নিন্মাঙ্গে গরম খুন্তির ছ্যাকা, মামি গ্রেপ্তার - ajkerparibartan.com
গৌরনদীতে ভাগনীর নিন্মাঙ্গে গরম খুন্তির ছ্যাকা, মামি গ্রেপ্তার

1:14 pm , November 26, 2020

গৌরনদী প্রতিবেদক ॥ গৌরনদী উপজেলার উত্তর বিজয়পুর গ্রামের মামার বাড়িতে আশ্রিত ভাগ্নি কন্যা শিশু পাশের বাড়ি খেলতে যাওয়ায় ক্ষিপ্ত হয়ে মামি শাহনাজ বেগম শিশুটিকে গরম খুন্তির ছ্যাকা দিয়ে নিন্মাঙ্গ নাভির নিচে ঝলছে দিয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। আহত শিশুকে গৌরনদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেেেছ। এ ঘটনায় শিশুর বাবা বাদি হয়ে বৃহস্পতিবার গৌরনদী মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেছে। পুলিশ এজাহারভূক্ত আসামি মামি শাহনাজকে গ্রেপ্তার করে ওই দিন আদালতের মাধ্যমে বরিশাল কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠিয়েছে। স্থানীয় লোকজন ও পুলিশ জানান, গৌরনদী উপজেলার গোবরধন গ্রামের মৃত লোকমান হাওলাদারের পুত্র সফিকুল ইসলাম (৩৩) ৫ বছল পূর্বে একই উপজেলার পাশ্ববর্তি উত্তর বিজয়পুর গ্রামের আখি আক্তারকে বিয়ে করেন। বিয়ের পরে তাদের একটি কন্যা সন্তান জন্ম নেয়। সম্প্রতি সময়ে স্বামী স্ত্রীর মধ্যে দাম্পত্য কলহ শুরু হলে সফিকুল ইসলামের স্ত্রী আখি আক্তার (২৫) তার ৪ বছর ৯ মাসের কন্যা সন্তান এ্যালমা আক্তারকে নিয়ে তার বড় ভাই রমজান সরদারে বাড়িতে আশ্রয় নেন। রমজান সরদারের নিঃসন্তান স্ত্রী শাহনাজ পারভিন আরাফত হোসেন (৩) বছরের একটি শিশু দত্তক নেন। এ্যালমা আক্তার মামাতো ভাই আরাফত হোসেনকে নিয়ে প্রায়ই পাশের বাড়ি খেলাধুলা করতে যেত। এতে মামি রাগ করে প্রায়ই এ্যালমাকে মারধর করতেন। বাদি বলেন, গত শনিবার খেলা শেষে সন্ধ্যায় তার মেয়ে এ্যালমা মামি বাড়িতে ফিরলে মামি শাহনাজ বেগম খুন্তি গরম করে এ্যালমার নিন্মাঙ্গে নাভির নিচে ছ্যাকা দেয়। এতে মেয়ে ডাক চিৎকার দিলে আশে পাশের লোকজন শিশুটিকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করেন। শিশুর বাবা সফিকুল ইসলাম অভিযোগ করে বলেন, মেয়েকে গরম খুন্তির ছ্যাকা দিয়ে ঝলসে দিয়ে তাকে হাসপাতালে পর্যন্ত নেননি। বিষয়টি আমি জানার পরে আত্মীয় স্বজনদের জনালে তারা কোন ব্যবস্থা নেননি। অভিযোগের ব্যাপারে জানতে চাইলে থানা হাজতে থাকা শাহনাজ বেগম কোন কথা বলতে রাজি হননি। গৌরনদী মডেল থানার পরিদর্শক (ওসি তদন্ত) মোঃ তৌহীদুজ্জামান বলেন, এ ঘটনায় মেয়ের বাবা সফিকুল ইসলাম বাদি হয়ে বৃহস্পতিবার শাহনাজ বেগমকে আসামি করে একটি মামলা দায়ের করেছে। পুলিশ আসামি শাহনাজ বেগমকে বৃহস্পতিবার গ্রেপ্তার করে আদালতের মাধ্যমে বরিশাল কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠিয়েছে।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT