প্রার্থী সংকটে বিএনপি আওয়ামী লীগে ছড়াছড়ি প্রার্থী সংকটে বিএনপি আওয়ামী লীগে ছড়াছড়ি - ajkerparibartan.com
প্রার্থী সংকটে বিএনপি আওয়ামী লীগে ছড়াছড়ি

3:21 pm , November 16, 2020

সাঈদ পান্থ ॥ করোনা ভাইরাস মহামারীর মধ্যেই উত্তেজনা ছড়াচ্ছে পৌরসভা নির্বাচন। বরিশালের ৬ পৌরসভার নির্বাচনকে ঘিরে মাঠে নেমেছেন ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের প্রায় অর্ধশত নেতা। প্রতিটি পৌরসভায় আওয়ামী লীগের মেয়ররা থাকলেও তাদের ডিঙিয়ে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হতে নানা ভাবে লবিং তদবির শুরু করেছেন। এদিকে কোন কোন পৌরসভায় এখনো বিএনপির প্রার্থীরা প্রস্তুতিই নিচ্ছে না। দলীয় সিদ্ধান্তের উপর নির্ভর করে তারা নির্বাচনী মাঠে নামবেন। অতীতের নির্বাচনগুলোর ধারাবাহিকতায় এবারও মেয়র প্রার্থী প্রশ্নে তৃনমূলের সমর্থন চাইতে পারে আওয়ামী লীগ। তবে মাঠ পর্যায়ে তৃনমূলের সমর্থণ প্রশ্নে কাউন্সিলরদের টাকার বিনিময়ে কিনে নেয়া বা প্রভাবশালী নেতাদের মাধ্যমে প্রভাবিত হয়ে তাদের পছন্দের প্রার্থীদের সমর্থনের বিষয়টি ঘটতে পারে বলে ধারনা অনেকের। পৌরসভা নির্বাচনের মেয়াদ অনেক বাকি থাকলেও সম্ভাব্য প্রার্থীরা তোড়জোড় শুরু করে দিয়েছেন। কোনো কোনো এলাকায় এই তোড়জোড়ের ব্যাপকতা দেখা যায়। নির্বাচন সামনে রেখে সম্ভাব্য প্রার্থী ভোটারদের বাড়ি বাড়ি যাওয়া শুরু করে দিয়েছে। আবার কেউ কেউ সভা সমাবেশও করতে শুরু করেছেন। গঠন করেছেন সমর্থক বাহিনী। পৌরসভা নির্মাচনকে সামনে রেখে বাড়ি, পাড়া-মহল্লা, হাট-বাজার ও রাজনৈতিক কার্যালয়গুলো এখনই প্রায় সরগরম। এদিকে শুধু মেয়র প্রার্থীরাই নয় জেলার ছয়টি পৌরসভার প্রতিটি ওয়ার্ডে সম্ভাব্য কাউন্সিলর প্রার্থীরা আগাম প্রচার প্রচারণা শুরু করেছেন। প্রতিটি ওয়ার্ডে প্রার্থীরা গণসংযোগ, মিছিল, কর্মীসভা ও উঠান বৈঠক শুরু করায় সর্বত্রই নির্বাচনী আমেজ ছড়িয়ে পরেছে। গত শনিবার বিকেলে গৌরনদী পৌরসভার ৬নং ওয়ার্ডের সম্ভাব্য কাউন্সিলর প্রার্থী সরকারি গৌরনদী কলেজ ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ও সরকারি গৌরনদী কলেজ ছাত্র সংসদের সাবেক ভিপি সুমন মাহমুদের সমর্থনে কর্মী সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। একইভাবে প্রায় প্রতিটি পৌরসভাই এখন আলোচনার কেন্দ্র বিন্দু হচ্ছে কে হবে পৌরসভার মেয়র বা কে কোন দলের সমর্থন পাচ্ছে।
জেলার গৌরনদী পৌরসভার মেয়র উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ হারিচুর রহমান। তিনি ছাড়াও এই পদে মনোনয়ন নিতে মাঠে নেমেছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এইচ এম জয়নাল আবেদিন ও পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি মনির হোসেন মিয়া। এদিকে এই পৌরসভায় বিএনপির প্রার্থী হতে মাঠে রয়েছেন পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক শাহ আলম ফকির ও যুবদলের সভাপতি সফিকুর রহমান স্বপন শরীফ। পাশাপাশি দুই দলের আরো অনেক নেতা প্রার্থী হতে মাঠে রয়েছে। একইভাবে মুলাদী পৌরসভার মেয়র ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি মোঃ সফিকউজ্জামান রুবেল ছাড়াও এখানে আওয়ামী লীগের আরো অনেক প্রার্থী মাঠে রয়েছে। যদিও উন্নয়ন কর্মকান্ডের মাধ্যমে এগিয়ে রয়েছেন বর্তমান মেয়র রুবেল। তবে এখানকার পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি আলমগীর হোসেন হিরন, উপজেলা কৃষক লীগ সভাপতি আবদুর রব মুন্সি, আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক সাহলে উদ্দিন হাওলাদার, মোসলেম উদ্দিন বয়াতি, শ্রমিক লীগের আহ্বায়ক দিদারুল আহসান খান, কেন্দ্রিয় যুবলীগ সদস্য দেলোয়ার হোসেন হাওলাদার, ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি আনোয়ার হোসেন তালুকদার মেয়র প্রার্থী হতে মাঠে নেমেছেন। পাশাপাশি উপজেলা ওয়ার্কার্স পার্টির সাবেক সভাপতি সেমিল চৌকিদার মেয়র পদে প্রার্থী হতে মাঠে রয়েছে। তবে এখনো বিএনপির কোন প্রার্থীকে পাওয়া যাচ্ছে না।
পৌরসভা নির্বাচনে শক্তি অবস্থানে রয়েছেন বাকেরগঞ্জ পৌরসভা মেয়র ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক লোকমান হোসেন ডাকুয়া। কিন্তু তারপরও মনোনয়ন দৌড়ে মাঠে রয়েছে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি নাসির উদ্দিন মাঝি, পৌর আওয়ামী লীগ সভাপতি মশিউর রহমান জোমাদ্দার ও ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ রিপন। একইভাবে বিএনপির মনোনয়ন পেতে মাঠে রয়েছে পৌর বিএনপির সভাপতি নাসির উদ্দিন জোমাদ্দার, সাবেক সভাপতি মতিউর রহমান মোল্লা, শাহিন তালুকদার ও ছাত্রদল নেতা কামরুল ইসলাম রাজিব। এখানে জাতীয় পার্টি থেকে পৌরসভার মেয়র পদে লড়ার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছেন স্থানীয় সংসদ সদস্য নাসরিন জাহান রতœার কন্যার ব্যারিষ্টার ফারহা ফিজা বিনতে আমিন। জেলার বানারীপাড়া পৌরসভার মেয়র ও জেলা আওয়ামী লীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক সুভাষ চন্দ্র শিল পৌরসভাকে মডেল পৌরসভা হিসেবে প্রতিষ্ঠার কারণে ও দুর্নীতিমুক্ত একটি প্রতিষ্ঠান করায় তিনি শক্ত অবস্থানে রয়েছে। কিন্তু তারপরও এখনে মেয়র হতে মাঠে তোরজোর চালাচ্ছেন উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি এ্যাড. মাহমুদ হোসেন মাখন, পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি সুব্রত লাল কুন্ডু, বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের সাবেক সভাপতি ওয়াহিদুজ্জামান দুলাল ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জিয়াউল হক মিন্টু। এখানে বিএনপির মনোনয়ন পেতে মাঠে রয়েছে উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক রিয়াজ আহম্মেদ মৃধা ও পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আবদুস সালাম। মেহেন্দিগঞ্জ উপজেলায় বর্তমান পৌর মেয়র ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব কামাল উদ্দিন খান ছাড়াও মেয়র পদে পেতে মাঠে নেমেছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি খোরশেদ আলম ভুলু, সাংগঠনিক সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান রিপন, সহ সম্পাদক আবদুল জব্বার কানন, যুবলীগ সভাপতি পারভেজ চান ও পৌর কাউন্সিলর জাহাঙ্গির হোসেন। বিএনপির প্রার্থী হতে মাঠে রয়েছে উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক গিয়াস উদ্দিন দিপেন, পৌর বিএনপির সভাপতি জিয়া উদ্দিন সুজন ও ইঞ্জিনিয়ার গাজী মো: জাহাঙ্গির। পাশাপাশি এখানে ইসলামী আন্দোলনের প্রার্থী থাকবে বলে স্থানীয় ভাবে জানা গেছে। এদিকে উজিরপুর পৌর মেয়র ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক গিয়াস উদ্দিন ব্যাপারির ছাড়াও এখানে মেয়র পদে প্রার্থীতা করতে চান উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মো: হেমায়েত উদ্দিন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সহ সভাপতি অশোক কুমার হাওলাদার, সেচ্ছাসেবকলীগের সাবেক আহ্বায়ক মো: ইকবাল হোসেন বালি ও উপজেলা সেচ্ছাসেবার লীগের সভাপতি কামাল হোসেন সবুজ। অপরদিকে এই পৌরসভার মেয়র হতে মাঠে রয়েছেন পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মো: শহিদুল ইসলাম খান ও উপজেলা ছাত্রদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক রফিকুজ্জামান লিটন।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০  




মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT