শীত শুরু ॥ সন্ধ্যার পর থেকে অনুভুত হয় বেশি শীত শুরু ॥ সন্ধ্যার পর থেকে অনুভুত হয় বেশি - ajkerparibartan.com
শীত শুরু ॥ সন্ধ্যার পর থেকে অনুভুত হয় বেশি

3:26 pm , November 7, 2020

 

হেলাল উদ্দিন ॥ আসি আসি করে শীতকাল এসেই পড়ল। শনিবার ভোর ৫ টা। নগরীর লঞ্চঘাট এলাকায় দায়িত্ব পালন করছেন পুলিশের কয়েকজন সদস্য। তারা প্রত্যেকেই ইউনিফর্মের উপর জ্যাকেট পড়ে আছেন। এ প্রতিবেদকের সঙ্গে আলাপকালে উপস্থিত পুলিশ সদস্যদের একজন জানান, সপ্তাহখানেক আগেও শীতের পোশাক পরার কথা মাথায়ও আসেনি। হঠাৎ করে গত দুদিন ধরে হু হু বাতাসের সঙ্গে বেশ ঠান্ডা পড়তে শুরু করেছে। বিশেষ করে রাত জেগে টহল দেয়ার সময় ঠান্ডা যেন একটু বেশিই জেঁকে ধরছে। এই হঠাৎ ঠান্ডা থেকে বাঁচতেই গরম জ্যাকেট পরেছেন বলে জানান তারা।
কিছুদুর এগিয়ে সিটি মার্কেটের পাশে পাইকারী সবজি বাজারে গিয়ে দেখা গেল একজন সবজি বিক্রেতা কানে-মাথায় মাফলার জড়িয়ে আছেন। রিয়াজ নামের ওই ব্যক্তি জানান,তিনি নগরীর বগুরা রোডে ভ্যানে করে সবজি বিক্রি করেন। প্রতিদিন ফজরের নামাজের পরপর সিটি মার্কেটের এই সবজি বাজারে সবজি কিনতে আসেন। রিয়াজ বলেন গত বৃহস্পতিবার থেকে হঠাৎ করে ঠান্ডা অনুভূত হচ্ছে। বিশেষ করে ফজরে সবজি কিনতে আসার সময় বেশ শীত লাগছে। তাই মাফলারসহ শীতের পোশাক পরতে হয়েছে তাকে। রিয়াজের মতো ভোরে ঘরের বাইরে বের হওয়া অনেককেই দেখা গেছে গায়ে চাদর জড়িয়ে কিংবা একটু ভারী পোশাক পরে বের হতে। কেউ আবার প্যান্টের পকেটে হাত ঢুকিয়ে হালকা জবুথবু ভঙ্গিতে ছুটছেন গন্তব্যের দিকে।গত দুদিন ধরে নগরবাসীর মনে প্রশ্ন, তবে কি শীত এসেই গেল?নগরীর বিভিন্ন এলাকার বাসিন্দাদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, হঠাৎ করেই যেন নগরীতে শীতের আমেজ শুরু হয়েছে। ধীরে ধীরে কমতে শুরু করেছে তাপমাত্রা। কাঠফাটা গরম কমে গিয়ে এখন অবশ্য বিরাজ করছে নাতিশীতোষ্ণ আবহাওয়া। না গরম, না ঠান্ডা এমন সুন্দর আবহাওয়ায় শহুরে মানুষের চলাফেরায়ও স্বাচ্ছন্দ্য ফিরেছে। কিছুদিন আগেও যেখানে ফ্যান-এসি ছাড়া চলতই না, সেখানে এখন কেউ কেউ রাতের বেলায় গায়ে জড়াচ্ছেন কাঁথা।
এদিকে, হঠাৎ করেই শীত এসে পড়ায় অনেকটা তাড়াহুড়ো করে প্রস্তুতি নিচ্ছেন কাপড় ব্যবসায়ীরা। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, নগরীর মোহসীন মার্কেট,সিটি মার্কেটসহ বিভিন্ন মার্কেটের ব্যবসায়ীরা গত কয়েকদিন ধরে শীতের কাপড় মজুদ করতে শুরু করেছেন। টুকটাক বিক্রিও হচ্ছে।
বরিশালের আবহাওয়া অফিসের তথ্যে জানা গেছে,গতকাল শনিবার বিকেলে বরিশালে তাপমাত্রা ছিলো ২৬ ডিগ্রি আর সন্ধ্যায় ছিলো ২৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস। যা রাতে কমে ১৮ ডিগ্রিতে নেমে আসবে। এছাড়া উত্তর-পশ্চিম থেকে ঘন্টায় ৭ থেকে ১৪ কিলোমিটার বেগে মৃদু হাওয়া বাতাস বয়ে যাচ্ছে। তবে নেই কোন বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা।
এদিকে কেন্দ্রীয় আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হচ্ছে, চলতি মাসে দিন ও রাতের তাপমাত্রা ক্রমান্বয়ে হ্রাস পাবে। শুক্রবার সন্ধ্যা ৬টা থেকে শনিবার সন্ধ্যা ৬টা পর্য়ন্ত পূর্বাভাসে বলা হয়, উপমহাদেশীয় উচ্চচাপ বলয়ের বর্ধিতাংশ পশ্চিমবঙ্গ ও তৎসংলগ্ন এলাকা পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে। মৌসুমি লঘুচাপ বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করছে। শনিবার অস্থায়ীভাবে আকাশ মেঘলা আকাশসহ সারাদেশের আবহাওয়া শুষ্ক থাকতে পারে। সারাদেশে রাত ও দিনের তাপমাত্রা অপরিবর্তিত থাকতে পারে। শুক্রবার দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল টেকনাফে ৩১ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস ও সর্বনিম্ন ছিল শ্রীমঙ্গলে ১৪ দশমিক ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০  




মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT