নথুল্লাবাদ বাস টার্মিনালে বিসিসি’র জমিতে অবৈধ স্থাপনা করে চলছে লিটন মোল্লার চাঁদাবাজি নথুল্লাবাদ বাস টার্মিনালে বিসিসি’র জমিতে অবৈধ স্থাপনা করে চলছে লিটন মোল্লার চাঁদাবাজি - ajkerparibartan.com
নথুল্লাবাদ বাস টার্মিনালে বিসিসি’র জমিতে অবৈধ স্থাপনা করে চলছে লিটন মোল্লার চাঁদাবাজি

4:06 pm , August 11, 2020

শামীম আহমেদ ॥ নগরীর কেন্দ্রীয় নথুল্লাবাদ বাস টার্মিনাল এলাকার চারদিকে অবৈধভাবে দখল করে সিটি কর্পোরেশনের জমিতে দোকান ও বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠান স্থাপন করে অর্থ হাতিয়ে নিচ্ছেন কাশিপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান কামাল হোসেন লিটন মোল্লা। নগরীর প্রভাবশালী রাজনৈতিক নেতার ঘনিষ্টজন পরিচয় ব্যবহার করে সাব কোয়ালা, লিজ ও ভাড়া দিয়ে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে শ্রমিক-কর্মচারী কল্যান তহবিলের সভাপতি ও বাস মালিক গ্রুপ সমিতির সদস্য লিটন মোল্লা ও সেবা পরিবহন বাসে গণ ধর্ষনকারী বাহিনীর সদস্যরা। মাসের পর মাস সিটি কর্পোরেশনের জমিতে নিত্য নতুন প্রতিষ্ঠান উঠিয়ে পজেশন বিক্রি,সাবলিজ সহ মোটা অংকে টাকার বিনিময়ে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের মালিকদের কাছে ভাড়া নিয়ে অবৈধ টাকার পাহাড় গড়ছে লিটন মোল্লা। আর জমির মালিক বিসিসি লক্ষ লক্ষ টাকার রাজস্ব থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।
সরেজমিনে দেখা গেছে, টার্মিনালের প্রবেশের দু’ধারে খালি খোলা জায়গায় অবৈধভাবে দোকান করে সৌন্দর্য নষ্ট করা হয়েছে। এছাড়া ট্রাফিক আইল্যান্ড সংলগ্ন ফুটপাতে বিভিন্ন ফলের দোকানদারদের কাছ থেকে অগ্রিম পজেশন দিয়ে প্রতিমাসে বিশাল অংকের টাকা উত্তোলন করে লিটন মোল্লা সহ তার বাহিনী ভাগ-বাটোয়ারা করে। শুধু সামনের অংশ নয়, টার্মিনালের পিছনের অংশ দখল করে নিয়ে প্রতিটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান থেকে ভাড়া আদায় করার মাধ্যমে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নিচ্ছেন। লিটন মোল্লা ও তার বাহিনীর ভয়ে এ ব্যাপারে ব্যবসায়ী মুখ খুলতে সাহস পায় না।
এ বিষয়ে বাস মালিক গ্রুপের সাধারন সম্পাদক গোলাম মাসরেক বাবলু বলেন, টার্মিনালের সামনে বিসিসি’র জমিতে কারা অবৈধভাবে দখল করে বিভিন্ন দোকান ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বসিয়ে ভাড়া আদায় করে, তা সিটি কর্পোরেশনের দেখার বিষয়।
সিটি কর্পোরেশন কর্তৃপক্ষ তাদের জমি যদি উদ্ধার না করে সেখানে মালিক সমিতির কোন কিছুই বলার নেই।
সূত্রমতে দীর্ঘদিন কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল মালিক গ্রুপ সমিতির সাবেক সভাপতি ও মহানগর শ্রমিক লীগ সভাপতি আহতাব আহমেদকে ২০১৯ সালের ডিসেম্বর মাসে হটিয়ে ২০১৬ সালের সেবা পরিবহনের গণধর্ষনকারী কয়েকজন সদস্যকে সাথে নিয়ে লিটন মোল্লা বাস টার্মিনালের দখল নেয়।এর পর থেকেই তিনি তার রাজত্ব পাকাপোক্ত করতে শুরু করে দূরপাল্লার বাস কাউন্টার থেকে প্রতিমাসে ১৫ থেকে ২৫ হাজার টাকা চাঁদা।
একই সময়ে টার্মিনালে প্রবেশের দু’পাশে নিত্যনতুন দোকান-ব্যবসা প্রতিষ্ঠান স্থাপন করে পজেশন সহ প্রতিমাসে ভাড়া দিয়ে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছেন লিটন মোল্লা ও তার বাহিনীর সদস্যরা।
এ বিষয়ে লিটন মোল্লার মুঠো ফোনে একাধিকবার কল করা হলেও তাকে পাওয়া যায়নি।
এ ব্যাপারে বিসিসি প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ ইসরাইল হোসেন বলেন, বিষয়টি স্ট্রেট অফিসারকে দিয়ে খোঁজ নিয়ে অবৈধভাবে থাকা দখলকরাদের বিরুদ্ধে আইনগত ও জমি উদ্ধারের কার্যকরী ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০  




মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT