কুয়াকাটায় খাল পুনরুদ্ধারে কৃষকদের মানববন্ধন ও স্মারকলিপি প্রদান কুয়াকাটায় খাল পুনরুদ্ধারে কৃষকদের মানববন্ধন ও স্মারকলিপি প্রদান - ajkerparibartan.com
কুয়াকাটায় খাল পুনরুদ্ধারে কৃষকদের মানববন্ধন ও স্মারকলিপি প্রদান

3:13 pm , August 4, 2020

কুয়াকাটা প্রতিবেদক ॥ কুয়াকাটা পৌর এলাকার নবীনপুর গ্রামের কচ্ছপখালী খাল দখলমুক্ত করে জলাবদ্ধতা থেকে রক্ষা পেতে রোববার রাত আটটায় কুয়াকাটা প্রেসক্লাবের সামনের সড়কে মানববন্ধন করেছে কচ্ছপখালী খাল পুনরুদ্ধার কমিটি। এসময় স্থানীয় সাংসদ আলহাজ্ব অধ্যক্ষ মহিববুর রহমান এমপি মানববন্ধনে অংশগ্রহনকারীদের সমস্যার কথা শেনেন এবং তা সমাধানে তিনি তাদের পাশে থাকবে বলে আশ্বস্ত করেন। তাৎক্ষনিক এমপি মুহিব কুয়াকাটা পৌর মেয়র আঃ বারেক মোল্লা কে বিষয়টি সমাধানের জন্য বলেন। পৌর মেয়র খালের পানির প্রবাহ সচল রাখতে আগামী দুই মাসের মধ্যে একটি কালভার্ট করে দেয়ার প্রতিশ্রুতি দেন। এসময় পৌর কাউন্সিলর পান্না হাওলাদারের নেতৃত্বে অপর একটি পক্ষ খাল পুনরুদ্ধার কমিটির বিরুদ্ধে সরকারী রাস্তার উন্নয়ন কাজ চার মাস ধরে বন্ধ করে রাখার অভিযোগ করে এমপির কাছে। মানববন্ধন শেষে স্থাণীয় সাংসদের কাছে একটি স্বারক লিপি দিয়েছে কচ্ছপখালী খাল পুনরুদ্ধার কমিটি। স্বারক লিপিতে কচ্ছপখালী খাল পুনরুদ্ধার কমিটি ৫টি দাবী জানান। দাবী গুলো হলো ১. কচ্ছপখালী খালের সীমানা জরিপ এবং সরকারী ম্যাপ তৈরী করে রেকর্ডে অর্šÍভূক্ত করা। ২.সরকার ঘোষণা করুক,পুর্বের খালের জমির চিত্র পরিবর্তন করা যাবে না। ইতিমধ্যেই যে সমস্ত জমির চিত্র পরিবর্তন করা হয়েছে,তা সংশোধন করতে হবে। ৩.খালের প্রবাহমান পানি নিস্কাশনের ব্যবস্থা করতে হবে এবং তিনটি বাঁধ কেটে দিয়ে একটি বাঁধে স্লুইস গেট বা কালভার্ট স্থাপণ করতে হবে। ৪.কালভার্ট করার জন্য জনগনের চলাচল উপযোগী বিকল্প একটি সরকারী রাস্তা (যা ব্যক্তি মালিকানাধীণ তার কাটার বেড়া দেয়া আছে) ব্যবস্থা করা। ৫.খাল খনন করতে হবে। যাতে কৃষকরা সেচের কাজে খালের পানি ব্যবহার করতে পারেন এবং কৃষি কাজ শুরু করা যায়। পাশাপাশি পরিবেশ রক্ষার জন্য জোরদাবী জানান তারা। মানববন্ধনকালে কচ্ছপখালী খাল পুনরুদ্ধার কমিটির আহবায়ক মোঃ শাহজাহান মৃধা বলেন,কয়েক বছর ধরে একটি স্বার্থান্বেষী মহল কচ্ছপখালী খালে বাঁধ দিয়ে মাছ চাষ করে আসছে। যাদের নামে প্রবাহমান খাল ভূমিহীন বন্ধোবস্ত দেয়া হয়েছে। তারা খালটি ভোগদখল করছে না। ভোগদখল করছে একটি প্রভাবশালী মহল। শাহজাহান মৃধা আরও বলেন, খাল বন্ধোবস্ত গ্রহিতারা খালের বন্ধোবস্ত বাতিল করে অন্য জায়গা থেকে জমি দেয়ার জন্য জেলা প্রশাসকের কাছে আবেদন করেছে। অথচ খালটি ভোগদখল ও মাছ চাষ করছে প্রভাবশালী একটি মহল। খালে বাঁধ দিয়ে মাছ চাষ করার কারনে কচ্ছপখালী, আজিমপুর,দোভাসী পাড়া,নবীনপুর,পাঞ্জুপাড়া ও থঞ্জুপাড়া গ্রামে জলাবদ্ধায় কয়েক হাজার একর ফসলি জমি ও বাড়িঘর তলিয়ে গিয়ে ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে এসব গ্রামবাসী। খালের উপর থাকা বাঁধ কেটে দিয়ে পানির প্রবাহ সচল করার দাবী জানান কচ্ছপখালী খাল পুনরুদ্ধার কমিটি।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০  




মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT