নিজ ফার্মেসীতে টিকটক শিরিনের রহস্যজনক মৃত্যু নিজ ফার্মেসীতে টিকটক শিরিনের রহস্যজনক মৃত্যু - ajkerparibartan.com
নিজ ফার্মেসীতে টিকটক শিরিনের রহস্যজনক মৃত্যু

2:55 pm , October 28, 2019

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ নগরীর লঞ্চঘাট এলাকায় নিজ ঔষধের ফার্মেসীতে শিরিন খানম ওরফে টিকটক শিরিনের রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। রোববার রাত ১০টার দিকে তিনি আকস্মিকভাবে অসুস্থ হয়ে ফার্মেসীর মধ্যে ঢলে পড়ে। তাকে উদ্ধার করে শেবাচিম হাসপাতালে নিয়ে গেলে জরুরী বিভাগের দায়িত্বরত চিকিৎসক মৃত ঘোষনা করেন। শিরিন খানম নগরীর ব্যাপ্টিস্ট মিশন রোড এলাকার বাসিন্দা হুমায়ুন কবিরের স্ত্রী এবং লঞ্চ ঘাটের ৩ নম্বর গেট সংলগ্ন শিরিন মেডিকেল হলের মালিক। আগে পরের বেশ কয়েকটি বিষয়কে সামনে এনে শিরিনের মৃত্যুর প্রকৃত রহস্য উদঘাটনে এরই মধ্যে তদন্ত শুরু করেছে কোতয়ালী মডেল থানা পুলিশ। এটি হত্যা নাকি আত্মহত্যা সে বিষয়টি উদঘাটনের চেষ্টা করছেন তারা। তাছাড়া গতকাল সোমবার তার মৃতদেহ ময়না তদন্ত শেষে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করেছে কোতয়ালী পুলিশ। যদিও এই ঘটনায় নিহতের ভাই দেলোয়ার হোসেন বাদী হয়ে কোতয়ালী মডেল থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। ওই মামলায় শিরিনের শরীরে বিষাক্ত ইনজেকশ পুশ করে হত্যার অভিযোগ আনা হয়েছে। তাছাড়া মৃত্যুর কিছু সময় পূর্বে তার ফেসবুজ লাইভের ভিডিও রেকর্ড এটিকে পরিকল্পিত হত্যার ইঙ্গিত দিচ্ছে। শিরিনের শুভাকাঙ্খী এবং কয়েকজন ঘনিষ্ট সূত্র জানিয়েছে, ‘‘মৃত্যুর পূর্বে শিরিন তিন দফায় ফেসবুক লাইভে আসেন। সেখানে তিনি তার মালিকাাধীন শিরিন মেডিকেল হল’ সহ বিভিন্ন সমস্যার কথা তুলে ধরেন। এমনকি কে কে তার মালিকানাধীন ‘শিরিন মেডিকেল হল’ থেকে তাকে উৎখাতের ষড়যন্ত্র করছে তাদের নামও প্রকাশ করেন। একটি ফেসবুক লাইভে শিরিন তার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রকারী হিসেবে বেশ কয়েকজনের নাম উল্লেখ করে। পাশাপাশি ষড়যন্ত্রের শিকার হয়ে তিনি যে মানসিক যন্ত্রণায় রয়েছেন বলেও প্রকাশ করেন। এ সময় তিনি ‘জনগণ এর বিচার করবে বলেও উল্লেখ করেন।’
ভিডিওতে শিরিন খানম আরও বলেন, ‘আমার প্রতিষ্ঠান থেকে উৎখাত করতে ষড়যন্ত্রকারীরা আল্টিমেটাম দিয়েছে। আগামী ৩০ অক্টোবর তারা আমার কাছ থেকে দোকানটি ছিনিয়ে নিতে সকল বন্দোবস্তের ছকও করে ফেলেছেন।
অপর একটি ভিডিতে দেখা যায়, শিরিন তার নিজের দোকানে কয়েকজন ব্যক্তির সাথে কথা বলছেন। কোন একটি কাগজ নিয়ে সেখানে কথা কাটাকাটি হচ্ছে। ভিডিওটিতে ফার্মেসীতে বসা এক ব্যক্তিকে বার বার দেখানো হয়। এসময় শিরিনের কান্না করার শব্দও শোনা যায়। এর ফলে শিরিনের মৃত্যু রহস্যময় হয়ে উঠেছে।
এদিকে ভিডিও নিয়ে এলাকাবাসি এবং স্থানীয়দের মধ্যে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে। তারা বলেন, ‘শিরিনের বিরুদ্ধে অভিযোগ ছিলো স্থানীয় মুসল্লিদের। তিনি নামাজের সময় তার মালিকানাধীন শিরিন মেডিকেল হলে উচ্চ শব্দে গান বাজাতেন। আজানের সময় তিনি তার ফার্মেসীতে বসে উচ্চস্বরে লোকজন নিয়ে কথা-বার্তা বলতেন। বেশিরভাগ সময় তার ফার্মেসীতে ক্রেতার চেয়ে অন্য ধরণের লোকজনের আনাগোনা ছিল। এ কারনে ঔষধের দোকান সংলগ্ন স্টিমারঘাট জামে মসজিদের মুসল্লিরা বিরক্ত দীর্ঘ দিন ধরে। এর প্রতিবাদ স্বরুপ মুসল্লিদের দাবির প্রেক্ষিতে মসজিদ কমিটির সাধারণ সম্পাদক ও ওয়ার্ড কাউন্সিলর এটিএম শহিদুল্লাহ কবিরের স্মরণাপন্ন হন। এর পর কাউন্সিলর কবির ওই স্টলের মুল মালিক ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ নেতা প্রিন্সকে বিষয়টি অবগত করান। এ কারণে শিরিনের ধারনা হয়েছিল ওয়ার্ড কাউন্সিলর তার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছে। আর এ কারনেই কয়েকজনকে ফাঁসানোর চেষ্টা করা হচ্ছে বলে মনে করছেন স্থানীয়রা।
এদিকে অপর কয়েকটি সূত্র শিরিনের মৃত্যুর সাথে অন্য কারোর জড়িত থাকার বিষয়টি ইঙ্গিত করছেন। তারা জানান, ‘সাম্প্রতিককালে নকল ঔষধ বিক্রির অপরাধে র‌্যাবের হাতে আটক হয়েছিলো শিরিন খানম। এ সময় মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে তাকে কারাদন্ডও দেয়। এ কারনে বেশ কিছুদিন কারাগারে থাকতে হয় তাকে। ওই ঘটনাকে কেন্দ্র করে শিরিনের বিরুদ্ধাচারণ করে বেশ কিছু পত্রিকায় প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। তাই জেল থেকে বের হয়ে ক্ষোভে ‘আজকের ক্রাইম নিউজ’ নামের অনলাইন নিউজ পোর্টাল চালু করেন তিনি।
সূত্র জানায়, ‘ওই নিউজ পোর্টালে নির্বাহী সম্পাদক হিসেবে তার নাম দেয়া ছিল। পত্রিকাটির পাঠক বৃদ্ধি করার লক্ষ্যে শিরিনের জনপ্রিয় ফেসবুক আইডিটি একই অনলাইন পোর্টালের অংশিদার মোহাম্মদ বেল্লাল হোসেন তালুকদার লিটনও পরিচালনা করতো। যার সুবাধে আইডি পাসওয়ার্ড সবই ছিলো বেল্লালের কাছে।
তবে সম্প্রতি পত্রিকাটির মালিকানা নিয়ে শিরিনের সাথে বেল্লাল হোসেন লিটনের মধ্যে বিরোধের সৃষ্টি হয়। এ নিয়ে তাদের দু’জনের মধ্যে কথা কাটাকাটির সূত্র ধরে লিটন শিরিনকে দেখে নেয়ার হুমকিও দিয়েছিল। তাছাড়া রোববার রাত থেকে শিরিনের ওই পোর্টালে তার নাম দেখা যায়নি। তবে মৃত্যুর পূর্বে নাকি পরে তার নাম সরিয়ে ফেলা হয়েছে সে বিষয়টিও খতিয়ে দেখছে পুলিশ।
যদিও কোতয়ালী মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আসাদুজ্জামান জানিয়েছেন, ‘এই ঘটনায় একটি হত্যা মামলা দায়ের হয়েছে। নিহতের ভাই দেলোয়ার হোসেন বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেন। মামলায় নামধারী ৭ জনকে আসামী করা হয়েছে।
তিনি বলেন, ‘মামলায় শিরিনকে বিষাক্ত ইনজেকশন পুশ করে হত্যার অভিযোগ আনা হয়েছে। তাছাড়া শিরিনের হাতে একটি ক্যানুলা পড়ানো ছিলো। এটি কিভাবে তার হাতে পড়ানো ছিল সে বিষয়টি এখনও নিশ্চিত হওয়া যায়নি। হতে পারে ওই ক্যানুলার মাধ্যমে তার শরীরে বিশাক্ত ইনজেকশন পুশ করা হয়েছে।
আসাদুজ্জামান বলেন, ‘হত্যার কারন হিসেবে আরও বেশ কিছু আলামত রয়েছে। বিশেষ করে মৃত্যুর পূর্বে শিরিন ফেসবুক লাইভে বেশ কয়েকজনের নাম উল্লেখ করেছেন। যাদের বিরুদ্ধে সে ষড়যন্ত্রের কথা উল্লেখ করেছে। তবে ওই ভিডিওতে শিরিনের কথায় তাকে অনেকটা আবেগতারিত মনে হয়েছে। যে কারনে এটি আত্মহত্যাও হতে পারে। তবে ময়না তদন্ত রিপোর্ট না পাওয়া পর্যন্ত কিছু বলা সম্ভব হচ্ছে না।
অপরদিকে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা কোতয়ালী মডেল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) ফিরোজ আলম মামুন বলেন, ‘সোমবার মৃতদেহের ময়না তদন্ত সম্পন্ন করে লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। পাশাপাশি এরই মধ্যে মামলার তদন্ত কার্যক্রমও শুরু হয়েছে।

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT