ফড়িয়াপট্টিতে ট্রাক চাপায় শ্রমিক নিহতের প্রতিবাদে বিক্ষোভ ফড়িয়াপট্টিতে ট্রাক চাপায় শ্রমিক নিহতের প্রতিবাদে বিক্ষোভ - ajkerparibartan.com
ফড়িয়াপট্টিতে ট্রাক চাপায় শ্রমিক নিহতের প্রতিবাদে বিক্ষোভ

2:39 pm , October 27, 2019

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ নগরীর ফরিয়াপট্টিতে ট্রাক চাপায় এক শ্রমিক নিহত হয়েছে। গতকাল রোববার সকালে দুই সন্তানের জনক শ্রমিক আল আমিন (৩৫) নিহত হয়। নিহত আল আমিন নগরীর পলাশপুর এলাকার ভাড়াটিয়া বাসিন্দা ও বাকেরগঞ্জ উপজেলার গোমা এলাকার কদম আলী’র ছেলে। এই ঘটনার পর ট্রাকের হেলপার মিজানুর রহমানকে আটক করেছে পুলিশ। সে পটুয়াখালীর খেপুপাড়ার বাসিন্দা। এদিকে ট্রাক চাপায় শ্রমিকের মৃত্যুর প্রতিবাদে ফরিয়াপট্টির সকল চালের আড়ৎ বন্ধ করে দিয়ে বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করছেন অন্যান্য শ্রমিকরা। এর ফলে ফরিয়াপট্টির চালের আড়তে ব্যবসায়ীক কার্যক্রম বিকেল পর্যন্ত বন্ধ ছিল। বিকেলে মহানগর আওয়ামী লীগের শিল্প ও বানিজ্যবিষয়ক সম্পাদক নিরব হোসেন টুটুল এসে শ্রমিকদের বিচারের আশ্বাস দেন। তখন শ্রমিকরা কাজে যোগ দেয়।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছে, ‘এলাহী ব্রাদার্স এর শ্রমিক আল আমিন একটি ট্রাক থেকে চাল খালাস করছিলো। এ সময় পণ্যবাহী ট্রাকটির পেছনে অপর ট্রাক সরানোর জন্য হেলপার চেষ্টা করে। তখন ইঞ্জিন চালু করতে ট্রাকটি সামনের ট্রাকের সাথে ধাক্কা দেয়। এসময় অপর ট্রাকের পেছন থেকে পণ্য নামানোর কাজে ব্যস্ত থাকা শ্রমিক আল আমিন চাপা পড়ে। এতে গুরুতর অবস্থায় আল আমিনকে উদ্ধার করে শেবাচিম হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সকাল ৯টার দিকে তার মৃত্যু হয়। এ ঘটনার শ্রমিকদের মধ্যে ছড়িয়ে পড়লে আন্দোলন শুরু করেন মুদী ঘর হ্যান্ডেলিং শ্রমিকরা। তারা ফরিয়াপট্টির সকল ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে ক্ষতিপুরন দাবিতে বিক্ষোভ করে।
বরিশাল মুদিঘর হ্যান্ডেলিং শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি দেলোয়ার হোসেন পাইক বলেন, ‘আল আমিনের দুটি শিশু সন্তান রয়েছে। তাছাড়া ট্রাক চালকের অদক্ষতার কারনেই এই দুর্ঘটনা ঘটেছে। তাই ক্ষতিপুরণ না দেয়া পর্যন্ত আন্দোলন চলবে বলে জানিয়েছেন তিনি।
অপরদিকে কোতয়ালী মডেল থানার ওসি নুরুল ইসলাম বলেন, ‘ঘটনার পর পরই ট্রাকের ইঞ্জিন যে চালু করেছিলো সেই হেলপারকে আটক করা হয়েছে। তবে পালিয়ে গেছে ট্রাকটির চালক। এই ঘটনায় এখন পর্যন্ত কেউ মামলা বা লিখিত অভিযোগ দেয়নি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।
এদিকে খাদ্য ভান্ডারের মালিক স্বপন দত্ত জানান, ‘ট্রাকটি কলাপাড়ার খেপুপাড়া থেকে এসেছে। এটির মালিক আব্দুর বারেক মিয়া। তার ছেলেই ট্রাকের চালক। কিন্তু ঘটনা ঘটিয়েছে হেলপার মিজান। এখানে আড়ৎদারদের কোন দোষ নেই। তার পরেও শ্রমিকরা দোকানপাট বন্ধ করে দিয়েছে।

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT