মন্ডপে মন্ডপে চলছে দূর্গাপুজার শেষ প্রস্তুতি মন্ডপে মন্ডপে চলছে দূর্গাপুজার শেষ প্রস্তুতি - ajkerparibartan.com
মন্ডপে মন্ডপে চলছে দূর্গাপুজার শেষ প্রস্তুতি

2:53 pm , September 24, 2019

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ আসছে পূঁজোর দিন। ৩রা অক্টোবর থেকে বেঁজে উঠবে পূঁজার ঢাক। তাই মহানগরীসহ বরিশাল জেলার ৬১৩টি মন্ডপে চলছে শেষ মুহুর্তের প্রস্তুতি। রং-তুলির পড়ে অধিকাংশ মন্ডপেই চলছে প্রতিমা সাজসজ্জা।
এদিকে পূঁজা উদযাপন পরিষদ ও সরকারি তথ্য মতে, এবছর শারদীয় দূর্গাপূঁজার মন্ডপের সংখ্যা বেড়েছে। গত বছরের থেকে ১৬টি মন্ডপ বেড়েছে। তাই গত বছর যেখানে ৫৯৭টি মন্ডপে দুর্গাপূঁজা হয়েছে সেখানে এবার ৬১৩টি মন্ডপে পূঁজার আয়োজন করা হয়েছে। এ বছর দুর্গাপূঁজার মন্ডপের সাথে সাথে সাজ সজ্জার ক্ষেত্রে আসছে ভিন্নতা। প্রায় প্রতিটি মন্ডপেই চলছে সাজসজ্জার প্রতিযোগিতা। খরচের দিকে না তাকিয়ে দুর্গা দেবিকে বরণ করতে সর্বোচ্চ আয়োজন চলছে তাদের। তাছাড়া দুর্গাপূঁজাকে কেন্দ্র করে এরই মধ্যে শুরু হয়েছে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর নজরদারী। প্রতিটি মন্ডপ এলাকায় টহল ব্যবস্থা জোরদারের পাশাপাশি গোয়েন্দা ও সাদা পোশাকধারী পুলিশ সদস্য মোতায়েন হয়েছে। পুঁজা সুষ্ঠু, সুন্দর ও উৎসব মুখর পরিবেশে সম্পন্ন করার লক্ষ্যে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে করা হয়েছে অনুদানের ব্যবস্থা। প্রতি বছরের ন্যায় এবারও প্রতিটি মন্ডপের জন্য ৫শত কেজি করে চাল বরাদ্দ রাখা হয়েছে। মন্ডপের স্বেচ্ছাসেবকদের দেয়া হচ্ছে টি-সার্ট।
খোঁজ নিয়ে জানাগেছে, বরিশাল জেলায় এবার ৬১৩টি মন্ডপে পূঁজা অনুষ্ঠিত হবে। যার মধ্যে সিটি এলাকায় মোট ৪১টি মন্ডপে দুর্গাপূজার আয়োজন করা হয়েছে। এর মধ্যে ৩৫টি সার্বজনীন ও ৬টি ব্যক্তিগত মন্ডপ।
এছাড়া সিটি এলাকার বাইরে ৫৭২টি মন্ডপে দূর্গাপূঁজার আয়োজন করা হবে। এর মধ্যে বরিশাল সদর উপজেলায় ২১টি, আগৈলঝাড়া উপজেলায় সর্বোচ্চ ১৪৭টি, উজিরপুর উপজেলায় ১১০টি, গৌরনদী উপজেলায় ৮০টি, বাকেরগঞ্জ উপজেলায় ৭২টি, বানারীপাড়া উপজেলায় ৫৮টি, মেহেন্দিগঞ্জ উপজেলায় ২৪টি, বাবুগঞ্জ উপজেলায় ২৩টি, হিজলা উপজেলায় ১৪টি ও মুলাদী উপজেলায় ১০টি মন্ডপে পূঁজা হবে বলে জানিয়েছেন জেলা ও মহানগর পূঁজা উদযাপন পরিষদের নেতৃবৃন্দ।
এদিকে দুর্গাপূঁজার অনুষ্ঠান উৎসবে পরিনত করতে বিভিন্ন বিষয় নিয়ে গতকাল মঙ্গলবার জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সভা কক্ষে প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত হয়। ওই সভায় জেলা প্রশাসক বলেন, উৎসব যাতে কান্নার কারন না হয় সে দিকে সকলের দৃষ্টি রাখতে হবে। সার্বিক অনাকাঙ্খিত ঘটনার জন্য সবাইকে সতর্ক থাকতে হবে। আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর পাশাপাশি প্রতিটি মন্ডপে নিজস্ব স্বেচ্ছাসেবক সদস্যদের নিয়োজিত রাখার আহ্বান জানান তিনি।
সভায় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো. শহিদুল ইসলাম, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) প্রশান্ত কুমার দাসসহ জেলা ও মেট্রোপলিটন পুলিশের প্রতিনিধি, র‌্যাব, ফায়ার সার্ভিস, আনসার সদস্য এবং পূঁজা উদযাপন কমিটির নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT