হাতুরে চিকিৎসকরা দিচ্ছে স্পর্শকাতর রোগের চিকিৎসা হাতুরে চিকিৎসকরা দিচ্ছে স্পর্শকাতর রোগের চিকিৎসা - ajkerparibartan.com
হাতুরে চিকিৎসকরা দিচ্ছে স্পর্শকাতর রোগের চিকিৎসা

3:09 pm , April 12, 2019

পরিবর্তন ডেস্ক ॥ বিভিন্ন উপজেলার সাধারণ রোগীদের জিম্মি করে স্পর্শকাতর রোগের চিকিৎসা দিয়ে যাচ্ছেন হাতুরে চিকিৎসকরা। গ্রাম্য চিকিৎসকদের কাছ থেকে চিকিৎসা নিয়ে অনেক সময় নিজেদের অজান্তেই আরো কঠিন রোগে আক্রান্ত হয়ে পরছেন সাধারণ রোগীরা। সরেজমিন দেখা দেছে, উজিরপুর উপজেলার শিকারপুর বন্দরের গ্রাম্য চিকিৎসক সঞ্জয় কুমার রায় শিকারপুর বন্দরে নিজের নামের নিচে মেডিসিন, মহিলা ও শিশুরোগে অভিজ্ঞ, কোমর ও ঘারের ব্যাথা, প্যারালাইসিস, নাক, কান, গলা, চর্ম ও অর্শরোগের মত স্পর্শকাতর রোগের চিকিৎসা দিয়ে আসছেন। এমনকি নিজেই ডায়গনষ্টিক সেন্টার খুলে ইচ্ছেমত টেষ্ট বানিজ্যে করে আসছেন। শিকারপুর বন্দরের একাধিক ব্যবসায়ীরা জানান, সঞ্জয় রায় একজন গ্রাম্য চিকিৎসক হয়ে স্পর্শকাতর রোগের চিকিৎসা দেয়াসহ সাধারণ রোগিদের বিভিন্ন পরিক্ষা নিরিক্ষা দিয়ে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে। এবিষয়ে গ্রাম্য চিকিৎসক সঞ্জয় কুমার রায়ের কাছে জানতে চাইলে, তিনি বক্তব্য দিতে অস্বীকৃতি জানান। উজিরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কর্মকর্তা একেএম শামছুদ্দিন জানান, দীর্ঘ বছর রোগীদের চিকিৎসা সেবা দিয়েও নিজেদের অভিজ্ঞ লিখতে পারিনা। অথচ গ্রাম্য চিকিৎসকরা বিভিন্ন রোগের অভিজ্ঞ হলো কিভাবে তা জানা নেই। তিনি আরও জানান, উজিরপুর উপজেলায় অপচিকিৎসা ঠেকাতে খুব শিগ্রই আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। অপরদিকে জেলার গৌরনদী উপজেলার চাঁদশী গ্রামের রনজিৎ রায় নামের একজন হোমিওপ্যাথিতে প্রশিক্ষণ নিয়ে অশর্^ রোগ, ব্রেষ্ট টিউমার, জরায়ু টিউমারসহ বিভিন্ন চিকিৎসার নামে সাধারণ রোগিদের অপচিকিৎসা দিয়ে আসছেন। জেলা সিভিল সার্জন ডাঃ মনোয়ার হোসেন জানান, গ্রাম্য চিকিৎসকদের চিকিৎসা ও ব্যবস্থাপত্র দেওয়ার কোন সুযোগ নেই। তারা শুধু রোগিদের পরামর্শ দিতে পারবেন।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮  
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT