কলাপাড়ায় প্রধান শিক্ষকের হাতে সহকারি শিক্ষক লাঞ্ছিত কলাপাড়ায় প্রধান শিক্ষকের হাতে সহকারি শিক্ষক লাঞ্ছিত - ajkerparibartan.com
কলাপাড়ায় প্রধান শিক্ষকের হাতে সহকারি শিক্ষক লাঞ্ছিত

3:16 pm , January 12, 2019

কলাপাড়া প্রতিবেদক ॥ বিদ্যালয়ে ৩৫ বছর চাকুরি করার পর অবসরে যাওয়ার এক বছর আগেই প্রধান শিক্ষকের হাতে লাঞ্চিত হয়েছেন সহকারিক শিক্ষক মো. আব্দুল হাই। শিক্ষক বিলের ভাউচারে সাক্ষর না দেয়ায় প্রধান শিক্ষকের হাতে ধর্ম শিক্ষক লাঞ্চিত হওয়ার ঘটনাটি ঘটেছে শনিবার দুপুরে পটুয়াখালীর কলাপাড়া উপজেলার মিঠাগঞ্জ ইউনিয়নের তেগাছিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে। এ ঘটনা জানাজানি হওয়ায় বিক্ষুদ্ধ ওই বিদ্যালয়ের প্রাক্তন শিক্ষার্থীরা প্রধান শিক্ষক সাহাদুল ইসলামকে লাঞ্চিত করেছে। শিক্ষকের হাতে শিক্ষক লাঞ্চিত হওয়ার খবর এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে অভিভাবক ও শিক্ষার্থীদের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। প্রধান শিক্ষক তার হাতে সহকারি শিক্ষক লাঞ্চিত করার অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। লাঞ্চিত হওয়া শিক্ষক আব্দুল হাই জানান, ওই বিদ্যালয়ে তার বকেয়া বেতন ছয় হাজার আটশ টাকা বকেয়া রয়েছে। সেই বেতন বিল ভাউচারে তাকে মাত্র ৩৯’শ টাকা লিখে দিয়ে ভাউচারে স্বাক্ষর দিতে বলে প্রধান শিক্ষক। সাহাদুল ইসলাম। সহকারি শিক্ষক পুরো টাকা না পেলে ভাউচারে স্বাক্ষর করবেন না জানালে প্রধান শিক্ষক তার ঘাড় ধরে চেয়ারে বসিয়ে অকাথ্য গালাগাল করে লাঞ্চিত করে।
এ ব্যাপারে প্রধান শিক্ষক সাহাদুল ইসলাম শিক্ষককে লাঞ্চিত করার কথা অস্বীকার করে বলেন, এটা ভুল বোঝাবুঝি হয়েছে। আর তার সাথে কিছু যুবকের কথা কাটাকাটি হয়েছে। তাকে কেউ লাঞ্চিত করেনি।
বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও মিঠাগঞ্জ ইউপি চেয়ারম্যান কাজী হেমাছেু উদ্দিন হিরন জানান, শিক্ষক আঃ হাই তাকে লাঞ্চিত করার কথা তাকে জানিয়েছেন। কমিটির অন্য সদস্যদেও সাথে বসে বিষয়টি ফয়সালা করা হবে বলে জানান।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১  
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT