বিভাগের ৩৫ লক্ষাধিক শিক্ষার্থীর হাতে নতুন বই বিভাগের ৩৫ লক্ষাধিক শিক্ষার্থীর হাতে নতুন বই - ajkerparibartan.com
বিভাগের ৩৫ লক্ষাধিক শিক্ষার্থীর হাতে নতুন বই

3:08 pm , January 1, 2019

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ কুয়াশায় মোড়ানো শীতের সকাল। তা উপেক্ষা করেই স্কুলে ছুটে আসে ক্ষুদে শিক্ষার্থীরা। নতুন বছরের প্রথম দিনেই নতুন বই হাতে পেয়ে আনন্দে উচ্ছসিত হয়ে পড়ে তারা। নতুন বই বুকে জড়িয়ে দৌড়ে ছুটে চলে আপন ঠিকানায়। এদিকে বছরের প্রথম দিনেই বরিশাল বিভাগের ৩৫ লাখ ৫ হাজার ১৫২ জন শিক্ষার্থীর হাতে তুলে দেয়া হচ্ছে নতুন বই। গতকাল মঙ্গলবার সকাল ৯টা থেকে বরিশাল মহানগরী সহ বিভাগের ৬টি জেলার প্রতিটি স্কুলে আনুষ্ঠানিকভাবে উৎসব মুখর পরিবেশে বিনা মূল্যের বই বিতরন করা হয়। তাই বছরের প্রথম দিনেই নতুন বই হাতে পেয়ে আনন্দ-উচ্ছাসেআত্মহারা কোমলমতি শিক্ষার্থীরা। প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর বরিশাল বিভাগীয় কার্যালয় এবং মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা আঞ্চলিক পরিচালক এর কার্যালয় সূত্রে জানাগেছে, এ বছর বিভাগের ৬ জেলায় বিভিন্ন স্তরে ৩৫ লাখ ৫ হাজার ১৫২ জন শিক্ষার্থীদের জন্য ২ কোটি ৭০ লাখ ৩২ হাজার ৯৩৭ কপি বইয়ের চাহিদা ছিলো। প্রাথমিক শিক্ষা বরিশাল বিভাগীয় সহকারী পরিচালক মোহাম্মদ আরিফ বিল্লাহ জানান, প্রাক-প্রাথমিক ও প্রাথমিক স্তরে মোট ২২ লাখ ৪৩ হাজার ১১৫ শিক্ষার্থীর জন্য এক কোটি সাত লাখ ৩৭ হাজার ১১ কপি চাহিদা ছিলো। তাছাড়া প্রাথমিক স্তরে ইংরেজি ভার্সনে বইয়ের চাহিদা ছিলো ১২ হাজার ১০৮ কপি।
অপরদিকে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বরিশাল বিভাগীয় উপ-পরিচালক মোকছেদুল ইসলাম বলেন, মাধ্যমিক, দাখিল, ভোকেশনার, কারিগরি ট্রেড ও দৃষ্টি প্রতিবন্ধি মিলিয়ে ১২ লাখ ৬২ হাজার ৩৭ শিক্ষার্থীর জন্য ১ কোটি ৬২ লাখ ৯৫ হাজার ৯২৬ কপি বইয়ের চাহিদা ছিলো। যার মধ্যে ইংরেজী ভার্সনে জন্য ৯ হাজার ৪১৫ কপি। বিভাগীয় শিক্ষা কর্মকর্তারা জানান, শুধুমাত্র প্রাক-প্রাথমিক ও প্রাথমিক স্তরের জন্য চাহিদা অনুযায়ী শতভাগ বই পেয়েছেন তারা। তবে মাধ্যমিক স্তুরে চাহিদার শতভাগ পাওয়া যায়নি। বিশেষ করে মাধ্যমিক স্তরে ৯৮ দশমিক ১৩ ভাগ, দাখিল স্তরে ৯২ দশমিক ৮১ ভাগ, দৃষ্টি প্রতিবন্ধি স্তরের জন্য ১০ দশমিক ২০ ভাগ, কারিগরি ট্রেডের জন্য ৯১ দশমিক ৫৯ ভাগ, এসএসসি ভকেসনালে জন্য ৭২ দশমিক ৭১ ভাগ, দখিল ভকেসনালের জন্য ২১ দশমিক ৮৬ ভাগ বই পাওয়া গেছে। তবে এবতেদায়ি ও ইংরেজি ভার্সনের জন্য চাহিদা অনুযায়ী শতভাগ বই পাওয়া গেছে। এদিকে বিনা মুল্যে বই বিতরন উপলক্ষ্যে বিভাগীয় পর্যায়ে বই উৎসব উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এর মধ্যে প্রাক-প্রাথমিক ও প্রাথমিক স্তুরে বিভাগীয় পর্যায়ে বই উৎসবের উদ্বোধন করেন বিভাগীয় কমিশনার রাম চন্দ্র দাস। নগরীর সাগরদী পিটিআইতে উদ্বোধনী অনুষ্ঠান হয়।
এছাড়াও বিভাগীয় কমিশনার রাম চন্দ্র দাস নগরীর শহীদ আব্দুর রব সেরনিয়াবাত সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও হালিমা খাতুন বালিকা বিদ্যালয়ে মাধ্যমিক পর্যায়ের বই বিতরন উৎসবের উদ্বোধন করেন।
জেলা পর্যায়ে বই উৎসবের উদ্বোধন করেন বরিশাল প্রশাসক এসএম অজিয়র রহমান। তিনি অমৃত কিন্ডার গার্ডেনে প্রাথমিক স্তর এবং জিলা স্কুল ও সরকারি বালিকা বিদ্যালয়ে মাধ্যমিক স্তুরের বই উৎসব এর উদ্বোধন করেছেন।
তাছাড়া বরিশাল কলেক্টরেট স্কুলে বই উৎসবে উপস্থিত ছিলেন মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর বরিশাল বিভাগীয় উপ-পরিচালক মো. মোকছেদুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন। নগরীর ভাটিখানা বীনাপানি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের হাতে নতুন বই তুলে দেন বরিশাল সদর উপজেলা চেয়ারম্যান সাঈদুর রহমান রিন্টু। উল্লেখ্য ২০১০ সাল থেকে বছরের ১ম দিনে বিনামূল্যে শিক্ষার্থীদের মাঝে বই দেয়া হচ্ছে। সরকারিভাবে এতো বই দেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের হাতে বছরের প্রথম দিনে বিতরণের ইতিহাস বিশ্বের কোথাও নেই।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১  
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT