জাতিকে বিভাজন করে কোন লাভ হবেনা -আনোয়ার হোসেন মঞ্জু জাতিকে বিভাজন করে কোন লাভ হবেনা -আনোয়ার হোসেন মঞ্জু - ajkerparibartan.com
জাতিকে বিভাজন করে কোন লাভ হবেনা -আনোয়ার হোসেন মঞ্জু

2:53 pm , December 27, 2018

ভান্ডারিয়া প্রতিবেদক ॥ পিরোজপুর-২ আসনের মহাজোট প্রার্থী জাতীয় পার্টি-জেপি’র চেয়ারম্যান ও পানি সম্পদ মন্ত্রী আনোয়ার হোসেন মঞ্জু বলেন, আমরা নতুন নেতৃত্ব সৃষ্টি করার প্রচেষ্টায় ছিলাম এবং এখনও আছি। মাননীয় প্রধান মন্ত্রী ১৪ টি দল নিয়ে একটি ঐক্য গড়ে তুলেছেন। ঐক্যবদ্ধ থাকলে উন্নয়ন কাজ ত্বরান্বিত হয়। ভাগ্যের পরিবর্তন চাইলে ঝগড়া-ফ্যাসাদ, মারামারি, হানাহানিসহ সকল সংঘাতমূলক কাজ থেকে বিরত থেকে জনগণকে ঐক্যবদ্ধভাবে উন্নয়নের পক্ষে সক্রিয় হতে হবে। আমরা স্বাধীনতার জন্য যুদ্ধ করেছি। এই দেশে স্বাধীন করার পরও রাস্তায় পেটানো হয়েছে, টিয়ারসেল নিক্ষেপ করেছে। দেশ স্বাধীন হয়েছে মানুষের ভাগ্য পরিবর্তনের জন্য। স্বাধীনতাকে অর্থবহ করতে হলে সবাইকে ঐক্যবদ্ধভাবে স্বাধীনতার স্বপক্ষের শক্তিকে রাষ্ট্র ক্ষমতায় বসাতে হবে। উন্নয়নের ধারাকে অব্যাহত রাখতে আগামী ৩০ ডিসেম্বরের নির্বাচনে ভোট দেওয়ার ক্ষেত্রে সঠিক সিদ্ধান্ত নিতে হবে। তিনি গতকাল বিকালে ভান্ডারিয়া বাসস্ট্যান্ডে নির্বাচনী জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, গত ৩৩/৩৪ বছর মানুষ ভাগ্য পরিবর্তনের জন্য কাজ করে যাচ্ছি। আমি কখনো প্রতিহিংসা, মারমুখী রাজনীতি, মানুষকে এলাকা ছাড়া করা, মামলা দিয়ে হয়রানি করার নীতিতে বিশ্বাসী নই। ৪৭ বছর ধরে আমরা সবাই বাঙ্গালী, সবাই বাংলাদেশের মানুষ। জাতিকে বিভাজন করে কোন লাভ হবেনা। আমি ভান্ডারিয়ার মানুষ কে বিভাজন করিনাই। ভান্ডারিয়াসহ এই অঞ্চলের মানুষ আমরা একত্রে রয়েছি বলে ১৪ দল থেকে আমি বাইসাইকেল মার্কায় নির্বাচন করতে পারছি। এই ঐক্য ও ভান্ডারিয়াবাসীর প্রতি সম্মান দেখিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাকে মহাজোট থেকে মনোনয়ন দিয়ে ছেন। শেখ হাসিনার নৌকা ও জাতীয় পার্টি-জেপি’র বাইসাইকেল নির্বাচনী প্রতীক হিসাবে এক। সাইকেল প্রতীকে ভোট দিলে নৌকায় ভোট দেওয়া হবে। সাইকেলে ভোট দেওয়া মানে শেখ হাসিনাকে ভোট দেওয়া। ৩০ ডিসেম্বরের নির্বাচনে সাইকেল প্রতীকে ভোট দিয়ে আমাকে সংসদে পাঠালে আল্লাহর ইচ্ছায় অতীতের মতো উন্নয়ন ও মানুষের সেবা অব্যাহত রাখতে চাই। ভান্ডারিয়া উপজেলা জাতীয় পার্টি জেপির আহবায়ক মনিরুল হক জোমাদ্দারের সভপতিত্বে সভায় আরো বক্তব্য রাখেন মন্ত্রী পতœী সাবেক সংসদ সদস্য ও দৈনিক ইত্তেফাকের সম্পাদক তাসমীমা হোসেন মঞ্জু, পিরোজপুর জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মহিউদ্দিন মহারাজ, ভান্ডারিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান আতিকুল ইসলাম উজ্জল, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মাহিবুল ইসলাম মাহিম, আওয়ামী লীগের সভাপতি ফাইজুর রশীদ খসরু, উপজেলা জাতীয় পার্টি জেপির যুগ্ম আহ্বায়ক সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান গোলাম সরওয়ার জোমাদ্দার, ভান্ডারিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি লিয়াকত হোসেন তালুকদার, নিজামুল হক নান্না, উপজেলা জাতীয় পার্টি জেপির যুগ্ম আহ্বায়ক গৌরীপুর ইউপি চেয়ারম্যান মজিবুর রহমান চৌধুরী, টঙ্গীপাড়া আওয়ামীলীগের দপ্তর সম্পাদক হাফিজুর রশিদ তারিক, জাতীয় পার্টি জেপির কেন্দ্রিয় কমিটির সদস্য ইউসুব আকন, ভান্ডারিয়া হিন্দু বৌদ্য খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক বাবু উত্তম কুমার দাস, উপজেলা যুবসংহতির যুগ্ম আহ্বায়ক বাহাদুর সরদার, ছাত্র সমাজের যুগ্ম আহবায়ক আফজাল সরদার।

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT