বরিশাল-২ আসনে মহাজোটে এড. ইউনুস ঐক্যফ্রন্টের সান্টু’র মনোনয়ন প্রায় নিশ্চিত বরিশাল-২ আসনে মহাজোটে এড. ইউনুস ঐক্যফ্রন্টের সান্টু’র মনোনয়ন প্রায় নিশ্চিত - ajkerparibartan.com
বরিশাল-২ আসনে মহাজোটে এড. ইউনুস ঐক্যফ্রন্টের সান্টু’র মনোনয়ন প্রায় নিশ্চিত

3:17 pm , November 22, 2018

শাকিল মাহামুদ বাচ্চু, উজিরপুর ॥ সন্ধ্যা নদীর দুই প্রান্তে উজিরপুর ও বানারিপাড়া উপজেলা নিয়ে গঠিত বরিশাল-২ আসনে নানা জল্পনা কল্পনার অবসান ঘটিয়ে মহাজোট প্রার্থী হিসাবে তালুকদার মোহাম্মদ ইউনুস ও ঐক্যফ্রন্ট’র প্রার্থী হিসাবে বিএনপি নেতা শরফুদ্দিন আহাম্মেদ সান্টু’র মনোনয়ন প্রায় নিশ্চিত, বাকী মাত্র আনুষ্ঠানিকতা। ফলে দু শিবিরেই শুরু হয়েছে নির্বাচনের প্রস্তুতি। এ তথ্য একাধিক নির্ভরযোগ্য সূত্রের। দলের প্রতীক বরাদ্দের চিঠি নিয়ে প্রার্থীরা বিরতিহীনভাবে তাদের নির্বাচনী মাঠ চষে বেড়াবেন সূত্রটি এ প্রতিবেদককে জানিয়েছেন। বড় ধরনের কোন রদবদল না হলে দুই জোটের এ দুই প্রার্থীই একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ভোটযুদ্ধে অবতীর্ন হচ্ছেন। আ’লীগ থেকে ২১ জন প্রার্থী বরিশাল-২ আসনে মনোনয়নপত্র ক্রয় করেছিলেন। অন্যদিকে বিএনপি’র ১০ জন প্রার্থী দলের মনোনয়ন ফরম ক্রয় করে জমা দিয়েছেন। ক্ষমতাসীন দলের শীর্ষ নেতারা শেষ পর্যন্ত আ’লীগের প্রার্থী হিসাবে ক্লিন ইমেজ সম্পন্ন ব্যক্তি তালুকদার মোহাম্মদ ইউনুস’র উপর আস্থা রাখার কারনে তাকেই এ আসনের নৌকার প্রার্থী হিসাবে মনোনয়ন দিচ্ছেন বলে গত দুই দিন ধরে গনমাধ্যমে প্রচার হলেও তালুকদার মোহাম্মদ ইউনুস’র অনুসারীরা নিশ্চুপ হয়ে রয়েছেন। তার কারন অন্য সকল মনোনয়ন বঞ্চিতরা যাতে কষ্ট পেয়ে দলের ভেতর কোন্দল সৃষ্টি না করে। এ কৌশলকে আ’লীগের তৃনমুল নেতাকর্মীরা স্বাগত জানিয়েছেন। উজিরপুর বানাড়িপারা বিএনপি’র কান্ডারী হিসাবে পরিচিত সান্টু’র আসনে ১০ জন প্রার্থী মনোনয়ন ফরম ক্রয় করলেও শেষ পর্যন্ত দলের শীর্ষ নেতাদের গ্রীন সিগন্যাল সান্টু’র দিকে থাকায় তার মনোনয়ন প্রায় নিশ্চিত। তিনিই হচ্ছেন ঐক্যফ্রন্টের বরিশাল-২ আসনের প্রার্থী। ১০ জন প্রার্থী ফরম ক্রয় করলেও সংস্কারপন্থী শহিদুল হক জামাল তার প্রতিদ্বন্দি থাকলেও বিএনপি’র ত্যাগী নেতাদের হাতে সে গুলশান কার্যালয়ে লাঞ্চিত হলে দলের শীর্ষনেতাদের আস্থা বেড়ে যায় সান্টু’র উপর। বিগত নবম সংসদ নির্বাচনে এ আসনের বিএনপি’র প্রার্থী হিসাবে সান্টুকে অল্প ভোটের ব্যবধানে পরাজিত করে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন এক সময়ের জাপা নেতা মনিরুল ইসলাম মনি। ওই নির্বাচনে সংস্কার পন্থী শহিদুল হক জামাল মোরগ প্রতিক নিয়ে নির্বাচন করে সান্টুকে পরাজিত করার মুখ্য ভুমিকা পালন করায় বিএনপি নেতাকর্মীরা জামালের উপর ক্ষুব্ধ রয়েছে। বিষয়টি তারা দলের শীর্ষ নেতাদের জানিয়েছেন। নানা কারনে মনিরুল ইসলাম মনি বিতর্কিত হয়ে পড়ায় ৫ জানুয়ারী নির্বাচনে সে মনোনয়ন বঞ্চিত হলে জেলা আ’লীগের সম্পাদক তালুকদার মোঃ ইউনুস এ আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। বিএনপি ওই নির্বাচন বর্জন করেছিল। বরিশাল-২ আসন উজিরপুর ও বানাড়িপারা উপজেলায় আ’লীগ-বিএনপি দু দলেরই সাংগঠনিক অবস্থা বেশ মজবুত হওয়ার কারনে দুই দলের যেই প্রার্থী হোক তার জন্য সহজে জয়লাভের হাতিয়ার দলীয় প্রতিক। বিএনপি’র কেন্দ্রীয় নেতা শরফুদ্দিন আহাম্মেদ সান্টু জানিয়েছেন তিনি দলের মনোনয়ন নিয়ে বরিশাল-২ আসনে প্রতিদ্বন্দিতা করবেন এটা প্রায় নিশ্চিত। অপরদিকে জেলা আ’লীগের সম্পাদক এ্যাড. তালুকদার মোহাম্মদ ইউনুস জানিয়েছেন, দল যে সিদ্ধান্ত দেবে তিনি তা গ্রহন করবেন।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১  
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT