ল’ কলেজ থেকে অর্থ ছাড়া মিলছে না এলএলবি’র সনদ ল’ কলেজ থেকে অর্থ ছাড়া মিলছে না এলএলবি’র সনদ - ajkerparibartan.com
ল’ কলেজ থেকে অর্থ ছাড়া মিলছে না এলএলবি’র সনদ

5:58 pm , September 3, 2018

সাঈদ পান্থ ॥ বরিশাল ল’ (আইন) কলেজ থেকে অর্থ ছাড়া মিলছে না সদ্য পাশ করা এলএলবি পরীক্ষার্থীদের সনদপত্র। ২০১৫-২০১৬ শিক্ষাবর্ষের পাশ করা ৫০৫ শিক্ষার্থীর কাছ থেকে ৫শ টাকা করে আড়াই লাখ টাকা নেয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছে শিক্ষার্থীরা। তবে কলেজ কর্তৃপক্ষ দাবী করেছে কলেজ ফান্ডের জন্য এই টাকা উত্তোলন করা হচ্ছে।

কলেজের একাধিক শিক্ষার্থী নাম প্রকাশ না করা শর্তে বলেন, প্রসংশাপত্র নেয়ার সময় ৩০০ টাকা করে নিয়েছে কলেজ কর্তৃপক্ষ। এখন সনদপত্র নেয়ার জন্য আবার ৫০০টাকা করে দাবী করা হয়েছে। তবে কোন খাতে এই টাকা নিচ্ছে তা জানে না কলেজ কর্তৃপক্ষ। নামে বে নামে টাকা নিয়ে আত্মসাৎ করা হয় বলে তারা অভিযোগ করেছে। বরিশাল ল’ কলেজ সূত্রে জানা গেছে, ২০১৫-২০১৬ শিক্ষাবর্ষের ৫০৫ শিক্ষার্থী পাশ করেছে। যাদের মাঝে সোমবার সনদপত্র বিতরন করবে কলেজ কর্তৃপক্ষ। ইতোমধ্যে সকল শিক্ষার্থীকে সদনপত্র গ্রহনের জন্য জানানো হয়েছে। পাশাপাশি ম্যানেজিং কমিটির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ৫০০ টাকা করে নিয়ে আসার জন্য বলা হয়েছে। একটি অনুষ্ঠানের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের হাতে এই সদনপত্র বিতরন করা হবে। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন বরিশাল জেলা প্রশাসক মো: হাবিবুর রহমান।

কলেজের উপাধ্যক্ষ জহিরুল ইসলাম জানান, ৫০০ টাকা নেয়ার বিষয়ে আমার জানা নেই। এ বিষয়ে কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) বলতে পারবে। কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মো: ইকবাল আক্তার বলেন, এটি একটি বেসরকারী প্রতিষ্ঠান। এখানকার আয় থেকেই ব্যায় ও মেরামত এবং উন্নয়ন কাজ করানো হয়। তাই বিভিন্ন ভাবে ফান্ড তৈরি করা হয়ে থাকে। ম্যানেজিং কমিটির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ৫০০ টাকা করে নেয়া হচ্ছে। মুলত এই টাকা থেকে সনদপত্র বিতরন অনুষ্ঠান, শিক্ষকদের জন্য তাদের রুম মেরামতের কাজ করা হবে। অধ্যক্ষ ইকবাল আক্তার বলেন, আগে বিভিন্ন ভাবে কোন ফান্ড ছাড়াই টাকা নেয়া হতো। কেউ কেউ পকেটে সেই টাকা ঢুকে যেতো। কিন্তু এখন আর সেই সুযোগ নেই। কারণ এখন রশিদ দিয়ে টাকা আদায় করা হয়। এব্যাপারে কলেজের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও বরিশাল জেলা প্রশাসক মো: হাবিবুর রহমান বলেন, টাকা নেয়া হচ্ছে কলেজ ফান্ডের জন্য। কারণ এই কলেজে সরকার কোন টাকা দেয় না। এখানকার আয় দিয়ে এখানের ব্যায় চালানো হয়।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১  
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT