দোয়ারিকা সেতু রক্ষায় জেলা প্রশাসনের জরুরী পদক্ষেপ গ্রহণ দোয়ারিকা সেতু রক্ষায় জেলা প্রশাসনের জরুরী পদক্ষেপ গ্রহণ - ajkerparibartan.com
দোয়ারিকা সেতু রক্ষায় জেলা প্রশাসনের জরুরী পদক্ষেপ গ্রহণ

5:28 pm , August 28, 2018

সাঈদ পান্থ ॥ রাজধানীর ঢাকার সাথে বরিশাল তথ্য ৬ জেলার যাতায়াতের স্থল বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সেতুটি (দোয়ারিকা সেতু) রক্ষায় জরুরী পদক্ষেপ নিয়েছে বরিশাল জেলা প্রশাসন। গতকাল মঙ্গলবার ভোরে সেতু এলাকার সৈয়দ মোশারফ-রশিদা মাধ্যমিক বিদ্যালয়টি প্রমত্তা সুগন্ধা নদীতে বিলীন হয়ে গেছে। তাই বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সেতু সংলগ্ন এলাকায় নদী ভাঙন প্রতিরোধে বরিশাল জেলা প্রশাসন, সড়ক ও জনপথ, পানি উন্নয়ন বোর্ড, উপজেলা প্রশাসন, জেলা শিক্ষা অফিস, উপজেলা প্রশাসন নিয়ে জরুরী বৈঠক করেছেন। পরে এক প্রেস কনফারেন্সের মাধ্যমে জেলা প্রশাসক মো: হাবিবুর রহমান জানান, বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সেতু সংলগ্ন ভাঙন কবলিত স্থানে পূর্বের ধারাবাহিকতায় জরুরী ভিত্তিতে জিও ব্যাগ ফেলা হবে। এ কাজে সহয়োগিতা করবে বরিশাল সড়ক ও জনপথ বিভাগ এবং পানি উন্নয়ন বোর্ড। ভাঙন কবলিত সেতু একটু দুরে পানি উন্নয়ন বোর্ডের ব্যবস্থাপনায় জিও ব্যাগ ফেলা হবে। আর স্থায়ী ব্যবস্থার জন্য ভাঙন কবলিত পুরো এলাকায় বাঁধ নির্মানের জন্য আগামী ৭ দিনের মধ্যে মন্ত্রণালয়ে ডিপিপি প্রেরণ করা হবে। ডিপিপিতে ইতোমধ্যে সমর্থন দিয়ে সার্বিক সহোযগিতার আশ্বাস দিয়েছেন সেখানকার কৃতি সন্তান সমাজকল্যান মন্ত্রী রাশেদ খান মেনন এমপি। আর সেতু সংলগ্ন এলাকায় অবস্থিত সৈয়দ মোশারফ-রশিদা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ২য় তলা ভবন ইকোমধ্যে নদী গর্ভে বিলীন হয়েছে। তাই বরিশাল ৩ আসন (বাবুগঞ্জ-মুলাদী) বরাদ্ধকৃত ও জেলা প্রশাসনের বরাদ্ধের টিন দিয়ে স্কুুলের মালিকানাধিন জমিতে টিনসেট ঘর নির্মান করে শিক্ষার্থীদের শিক্ষা ব্যবস্থা ধরে রাখা হবে বলে জেলা প্রশাসন জানিয়েছেন। জেলা প্রশাসকের সভাপতিত্বে জরুরী সভায় উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) শহিদুল ইসলাম, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মো: ইকবাল আকতার, জেলা শিক্ষা অফিসার মো: আনোয়ার হোসেন, পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মোহাম্মদ আবু সাঈদ, সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী খন্দকার গোলাম মোস্তফা, বাবুগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সুজিত হাওলাদার, রহমতপুর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান সরোয়ার মাহামুদ, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মো: মহিউদ্দিন, উপজেলা প্রকৌশলী মো: মাহামুদ আল ফারুক, সৈয়দ মোশারফ-রশিদা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো: সেলিম রেজা প্রমুখ।

জানা গেছে, বাবুগঞ্জ উপজেলার এ ঐতিহ্যবাহী শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটি বিলীন হয়ে গেছে। সোমবার সকালে বিদ্যালয়ের পানির ট্যাংকিসহ উত্তর পাশের কিছু অংশ দেবে গেলেও দ্বিতল ভবনটি তার অতীত গৌরব নিয়ে নদীবক্ষে হেলে দাঁড়িয়েছিল। কিন্তু আগ্রাসী সুগন্ধার উন্মত্ত ¯্রােতের টানে মঙ্গলবার ভোরে বিদ্যালয়টি আর টিকে থাকতে পারেনি। আকস্মিক এ ভাঙনে স্কুল ভবনের অদূরে দাঁড়িয়ে থাকা ঢাকা-বরিশাল মহাসড়কে শতকোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সেতুটিও (দোয়ারিকা সেতু) পড়েছে মারাত্মক ঝুঁকির মুখে। সেতুর পাদদেশে মহাসড়কের পূর্ব দিকের সংযোগে মুখের গাইড ওয়ালও একইসাথে ভেঙ্গে পড়েছে নদীতে। সেতুর গার্ডার অঞ্চলেও গ্রাস করেছে ভাঙন। দক্ষিণাঞ্চলে প্রবেশদ্বারের এই সেতুটির বড় ধরনের বিপর্যয় এখন সময়ের ব্যাপার মাত্র বলেই মনে করেন এলাকাবাসী। স্কুলভবন বিলীনের খবর শুনে মঙ্গলবার জেলা প্রশাসনসহ সংশ্লিষ্ট দপ্তরের প্রধানরা পরির্দশন করেন। বিগত ২০০৩ সালে বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর (দোয়ারিকা) সেতুর পাদদেশে এ বিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠার পর থেকেই প্রতিবছর সন্তোষজনক ফলাফল ও বিভিন্ন পুরস্কার লাভ করে আসছে স্কুলের কৃতি শিক্ষার্থীরা। অথচ ঐতিহ্যবাহী এ বিদ্যালয়টি রক্ষার জন্য কেউ উদ্যোগে নেয়নি। স্কুলের সামনের পাউবোর ব্লক পাইলিং ভেঙে পড়ার পরে বিগত ২০১৪ সালে স্থানীয়ভাবে ৫ লক্ষাধিক টাকা অনুদান সংগ্রহ করে পার্কোপাইন ও বালুভর্তি জিও ব্যাগ ফেলে এলাকাবাসীর উদ্যোগে ভাঙন প্রতিরোধের চেষ্টা করা হয়েছিল। তবে এসব উদ্যোগ উত্তাল সুগন্ধা নদীর কাছে ছিল নিতান্তই যৎসামান্য। এজন্য দরকার ছিল সমন্বিত সরকারি উদ্যোগ। যেটা বরিশাল জেলা প্রশাসন দুর্ঘটনা ঘটার পর করেছেন।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০  
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT