তিন সিটি নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করা যাবে না-নির্বাচন কমিশনার তিন সিটি নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করা যাবে না-নির্বাচন কমিশনার - ajkerparibartan.com
তিন সিটি নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করা যাবে না-নির্বাচন কমিশনার

6:35 pm , July 16, 2018

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার বলেছেন, খুলনা ও গাজীপুর নির্বাচনে কিছু অনিয়ম অবশ্যই হয়েছে। তা না হলে সেখানকার কয়েকটি ভোট কেন্দ্রে নির্বাচন বন্ধ করে দেয়া হত না। তবে খুলনা-গাজীরপুরের ঘটনার পুনরাবৃত্তি বরিশালে ঘটবে না। বরিশালে আমরা কোন কেন্দ্র বন্ধ করতে চাই না। এই নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করা যাবে না। বরিশাল সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনেক অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ গ্রহণযোগ্য করতে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীকে কঠোর নির্দেশনা দিয়েছি। আপনারাও (প্রার্থী) একটি অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন করে সারা বিশ্বকে দেখিয়ে দিন। আর বরিশালের ভোট হোক আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনের প্রতীক।

গতকাল সোমবার বিকাল ৩টায় আসন্ন ৩০ জুলাই বরিশাল সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন উপলক্ষে সাত মেয়র প্রার্থী সহ সংরক্ষিত ও সাধারণ ওয়ার্ড কাউন্সিলর প্রার্থীদের সাথে মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথি’র বক্তৃতায় নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার এসব কথা বলেছেন।

বরিশাল আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা ও বরিশাল সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের রিটার্নিং অফিসার মো. মুজিবুর রহমান’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মতবিনিময় সভায় নির্বাচন কমিশনার আরো বলেন, অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের জন্য শুধুমাত্র নির্বাচন কমিশন ও আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর দিকে তাকিয়ে থাকলেই হবে না। প্রার্থীদেরও এ বিষয়ে দায়িত্ব রয়েছে। আমাদের সকলের প্রচেষ্টায় বরিশাল সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন শতভাগ সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ করা সম্ভব।

তিনি বলেন, নির্বাচনে আমরা দুই এমপি দেখতে চাই না। এক হচ্ছে মাসেল পাওয়ার এবং অপরটা মানি পাওয়ার। নির্বাচন পরিচালনায় দায়িত্বে থাকা কর্মকর্তাদের নির্দেশ দেয়া হয়েছে। যাতে তারা কারো চাপে নত স্বীকার না করে। সুষ্ঠু নির্বাচন করবেন এবং ভোট কেন্দ্রের পবিত্রতা রক্ষা করার কথা বলা হয়েছে। আর এটি যদি না পারে তাহলে এত আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর দরকার নেই।

নির্বাচন কমিশনার বলেন, ভোটাররা নির্ভয়ে ভোট কেন্দ্রে যাবে। নিজের ইচ্ছায় যাকে খুশি তাকে ভোট দেবেন। এমনকি ভোটাররা যাতে নির্বিঘেœ ভোট কেন্দ্রে আসতে পারে এবং ভোট দিয়ে বাড়ি ফিরে যেতে পারে সে বিষয়ে তাদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করবে প্রশাসন। এর ব্যতয় ঘটলে তার জবাবদিহিতা প্রশাসনকেই করতে হবে।

প্রশাসনের উদ্দেশ্য নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার বলেন, আপনারা আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সকল সদস্যদের আমি নির্দেশ দিচ্ছে নির্ভয়ে এবং দৃঢ়তার সাথে নিরপেক্ষতা বজায় রাখবেন। আইন শৃঙ্খলার ব্যাপারে আমরা শূণ্য সহিংসতা নীতি (জিরো ট্রলারেন্স) গ্রহন করেছি। তা কেউ অমান্য করলে আমরা ১৯৯১ সালের বিধি অনুযায়ী তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিবো। সবাইকে মনে রাখতে হবে কোন ক্রমেই গাজীপুর ও খুলনার নির্বাচন বরিশালে হতে দেয়া চলবে না।

সিটি কর্পোরেশনের সাত মেয়র এবং অন্যান্য কাউন্সিলর প্রার্থীদের দাবীর বিষয়ে নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার বলেন, অনেকেই রাতে ব্যালট পেপার সিল দেয়ার বিষয়ে আশংকা প্রকাশ করছেন। রাত্রি বেলায় কেউ এসে ব্যালট পেপারে ছিল পিটিয়ে তা বাক্সে ভরবে আর আমরা দাড়িয়ে থেকে দেখব তা হবে না। নির্বাচন শুরুর আগ পর্যন্ত বা রাত্রি বেলা ভোটের বাক্সের কাছে কেউ যেতে পারবে না। নির্বাচন পর্যবেক্ষক, আইন শৃঙ্খলা বাহিনী ও নির্বাচন কর্মকর্তারা রাতভর দাড়িয়ে থেকে ব্যালট বাক্স পাহারা দিবে। এর ব্যতয় ঘটলে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে।

প্রার্থীদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার বলেন, আপনাদের যারা এজেন্ট হিসেবে কেন্দ্রে থাকবে তাদের নির্বাচন কমিশন থেকে দেয়া অনুমতিপত্র নিয়ে কেন্দ্রে যেতে হবে। তাছাড়া নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে এজেন্টদের কেন্দ্রে পৌছতে হবে। ভোট শুরু থেকে ভোট গননা শেষ না হওয়া পর্যন্ত এজেন্টরা কেন্দ্র থেকে বের হবেন না। ভোট গণনা সহ কোন ধরনের অনিয়ম হলে সাথে সাথে তার প্রতিবাদ করবেন। আর কেউ আপনাদের কেন্দ্র থেকে বাহির করে দিতে চাইলে অবশ্য কেন্দ্রের দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রিজাইডিং কর্মকর্তার নিকট অভিযোগ দিবেন। তিনিই প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করবেন। আর এসব না করে প্রার্থীরা যদি বলেন আমাদের এজেন্টদের কেন্দ্রে প্রবেশ করতে দেয়া হয়নি। তাদের কেন্দ্র থেকে বের করে দেয়া হয়েছে সেই কথা আমরা শুনব না। তাই সার্বিক বিষয় মাথায় রেখেই প্রার্থী এবং তাদের এজেন্টদের এগিয়ে যেতে হবে।

বরিশাল জেলা প্রশাসক মো. হাবিবুর রহমান’র সঞ্চালনায় মতবিনিময় সভায় অন্যান্যদের মধ্যে বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কমিশনার মো. মাহফুজুর রহমান, উপ-পুলিশ কমিশনার গোলাম রউফ খান, সিনিয়র জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. হেলাল উদ্দিন খান সহ অন্যান্য কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। মতবিনিময় অনুষ্ঠানে অংশগ্রহনকরা সাত মেয়র প্রার্থী সহ অন্যান্য সাধারণ ও সংরক্ষিত ওয়ার্ড কাউন্সিলর প্রার্থীরা নির্বাচন নিয়ে তাদের বিভিন্ন আশংকা ও নানান অভিযোগ তুলে ধরেন নির্বাচন কমিশনার এর নিকট।

এর পূর্বে বেলা ১১টায় নগরীর সার্কিট হাউস এর সভাকক্ষে নির্বাচন উপলক্ষে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সাথে মতবিনিময় করেন নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার। অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার মো. নূরুল আলম’র সভাপতিত্বে মতবিনিময় সভায় অন্যান্যদের মধ্যে বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কমিশনার মো. মাহফুজুর রহমান, আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. মুজিবুর রহমান, জেলা প্রশাসক মো. হাবিবুর রহমান, ডিজিএফআই’র অধিনায়ক কর্ণেল জিএম শরিফুল ইসলাম, র‌্যাব-৮ এর অধিনায়ক আতিকা ইসলাম, বরিশাল রেঞ্জের অতিরিক্ত ডিআইজি মো. হুমায়ুন কবির, জেলা পুলিশ সুপার মো. সাইফুল ইসলাম প্রমুখ। এছাড়া সন্ধ্যা ৬টায় নগরীর কাশিপুরস্থ আঞ্চলিক নির্বাচন কমিশন কার্যালয়ের সভা কক্ষে নির্বাচন কর্মকর্তাদের সাথে মতবিনিময় করেন নির্বাচন কমিশনার। এসময় তিনি নির্বাচনের সুষ্ঠুতা ও নিরপেক্ষাতার বিষয়ে কর্মকর্তার দিক নির্দেশনা দেন।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১  
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT