মানুষের ভালোবাসার কারণেই সেদিন ঘাতকদের গুলি আমাকে স্পর্শ করেনি
নিজস্ব প্রতিবেদক॥ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪১ তম মৃত্যু বার্ষিকী এবং জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা ও দোয়া-মোনাজাত অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল শুক্রবার বিকাল ৫টায় বঙ্গবন্ধু পেশাজীবী পরিষদ বিভাগীয় কমিটির আয়োজনে নগরীর সদর রোডস্থ সোহেল চত্ত্বরে আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয়ে এই কর্মসূচী পালন করা হয়। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- যুবলীগ কেন্দ্রিয় কমিটির কার্যনির্বাহী সদস্য ও মহানগর আওয়ামী লীগ নেতা সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহ। বিশেষ অতিথি ছিলেন বঙ্গবন্ধু পেশাজীবী পরিষদ কেন্দ্রিয় কমিটির সভাপতি মো. জহির উদ্দিন মবু।
প্রধান অতিথির বক্তৃতায় ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্টের সেই কাল রাতের স্মৃতি চারন করে সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহ বলেন, হয়তো সেদিন আমিও বাঁচতে পারতাম না। ঘাতকদের বুলেটে আমার জীবন বিপন্ন হতে পারত। তবে মানুষের দোয়ায় সেদিন আমি বেঁচে গিয়েছিলাম। কিন্তু আমাকে বাঁচাতে গিয়ে আমার মায়ের শরীরে ৫টি গুলিবিদ্ধ হয়েছে। এমনকি চার বছরের শিশু আমার বড় ভাই সুকান্ত বাবু গুলিবিদ্ধ হয়ে শহীদ হন।
তিনি বলেন, শোকের এই দিনে হাত-পা গুটিয়ে থাকলে চলবে না। শোককে শক্তিতে পরিনত করতে হবে। জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সোনার বাংলা গড়ে তুলতে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানান তিনি।
বঙ্গবন্ধু পেশাজীবী পরিষদ বরিশাল বিভাগীয় কমিটির সভাপতি অ্যাড. সাইফুল আলম গিয়াস এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন পেশাজীবী পরিষদ বরিশাল জেলা শাখার রথিন্দ্র চন্দ্র দাস, সাধারন সম্পাদক অ্যাড. নিয়াজ মাহামুদ, মহানগর শাখার সাধারন সম্পাদক চিন্ময় আইচ, সদর উপজেলা শাখার আহ্বায়ক সিরাজ আহম্মেদ, বিসিসি’র ৭নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. হুমায়ুন কবির, শ্রমিক লীগ বরিশাল মহানগর শাখার সাধারণ সম্পাদক পরিমল চন্দ্র দাস প্রমুখ। আলোচনা সভা পরিচালনা করেন- বঙ্গবন্ধু পেশাজীবী পরিষদের বিভাগীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক কুদ্দুসুর রহমান মন্টু।