১ সেপ্টেম্বর থেকে নগরীর গুরুত্বপূর্ণ সড়কে অটোরিক্সা চালাচল বন্ধ

নিজস্ব প্রতিবেদক উচ্চ আদালতের নির্দেশনা অনুযায়ী বন্ধ করে দেয়া হচ্ছে ব্যাটারী চালিত অটোরিক্সা চলাচল। আর তাই প্রাথমিক ভাবে আগামী ১ সেপ্টেম্বর থেকে নগরীর সদর রোড সহ অভ্যন্তরিন চারটি রুটে অটোরিক্সা চালচল বন্ধ ঘোষনা করা হয়েছে। পর্যায়ক্রমে মেট্রোপলিটন এলাকায় এর চলাচল সম্পূর্ণ রূপে বন্ধ করে দেয়া হবে। গতকাল মঙ্গলবার বরিশাল আরটিসি’র এক সভায় এই সিদ্ধান্ত গ্রহন করা হয়েছে।

সকালে নগরীর উপ-পুলিশ কমিশনার (দক্ষিণ) এর কার্যালয়ে কনফারেন্স রুমে পুলিশ কমিশনার এস.এম রুহুল আমিন এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আরটিসি’র সভায় এই সিদ্ধান্ত গৃহিত হয়।

সভায় বলা হয়, ব্যাটারী চালিত অটোরিক্সার জন্য নগরীতে দুর্ঘটনা বাড়ছে। এছাড়া ব্যস্ততম সদর রোড সহ গুরুত্বপূর্ণ সড়ক গুলোতে সীমাহীন যানজটের সৃষ্টি হচ্ছে। এতে করে ভোগান্তির শিকার হচ্ছে সাধারন জনগণ। পাশাপাশি বিদ্যুৎ এর অপব্যবহার এবং লোড শেডিং বৃদ্ধি পাচ্ছে।

আলোচনায় আরো বলা হয়, অটোরিক্সা চলাচল বন্ধের জন্য ইতিমধ্যে উচ্চ আদালত থেকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। যা বিসিসি এবং মেট্রোপলিটন পুলিশের নিকট এসে পৌছেছে। আর তাই উচ্চ আদালতের নির্দেশনা অনুযায়ী ব্যাটারী চালিত অটোরিক্সা বন্ধের সিদ্ধান্ত গ্রহন করেছেন মেট্রোপলিটন পুলিশ সহ আরটিসি’র সদস্যরা।

মেট্রোপলিটন পুলিশের উপ-পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক) আবু রায়হান মো. সালেহ্ পরিবর্তনকে জানান, উচ্চ আদালতের নির্দেশনা অনুযায়ী প্রাথমিক ভাবে নগরীর গুরুত্বপূর্ণ কয়েকটি সড়কে অটোরিক্সা চালাচল বন্ধ করার সিদ্ধান্ত হয়েছে। সড়ক গুলো হলো- জিলা স্কুল মোড় থেকে জেল খানার মোড়, লঞ্চ ঘাটের ফায়ার সার্ভিসের সামনে হতে ফজলুল হক এভিনিউ সড়ক, পোর্ট রোড থেকে ফলপট্টি, চকবাজার সড়ক ও গীর্জা মহল্লা সড়ক। আগামী ১ সেপ্টেম্বর থেকে এসব সড়কে অটোরিক্সা চালাচল সম্পূর্ণ ভাবে নিষিদ্ধ থাকবে। নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে রুট গুলোতে অটোরিক্সা চলাচল করতে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে বলেও জানিয়েছেন বিএমপি পুলিশের এই কর্মকর্তা।

আরটিসি’র এই গুরুত্বপূর্ণ সভাটি পুলিশ কমিশনার এসএম রুহুল আমিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। এতে মেট্রোপলিটন পুলিশের উপ-পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক) আবু রায়হান মো. সালেহ্ বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের প্রতিনিধি, বিআরটিএ, জেলা বাস মালিক সমিতি ও রূপাতলী মিনিবাস মালিক সমিতির নেতৃবৃন্দ এবং সুশিল সমাজের প্রতিনিধিগন উপস্থিত ছিলেন। উপস্থিত সকলেই উচ্চ আদালতের নির্দেশনা বাস্তবায়নে অটোরিক্সা চলাচল বন্ধে’র সিদ্ধান্তের প্রতি সম্মতি জ্ঞাপন করেছেন।