১২ দাবিতে প্রাথমিক শিক্ষকদের কর্মসূচি

বিডিনিউজ ॥ বেতন বৃদ্ধিসহ ১২ দফা দাবিতে আন্দোলনের কর্মসূচি ঘোষণা করেছেন প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষকরা। বাংলাদেশ সহকারী প্রাথমিক শিক্ষক সমাজের সভাপতি শাহিনুর আলআমীন শুক্রবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে এক মানববন্ধনে এ কর্মসূচি ঘোষণা করেন। তিনি বলেন, “আমাদের দাবি না মানলে সারা দেশে প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ৫ থেকে ১০ জুন কাল ব্যজ ধারণ, ১১ থেকে ১৫ জুন এক ঘণ্টা করে কর্মবিরতি এবং সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে কালো পতাকা টাঙানো হবে।” এই শিক্ষক নেতা বলেন, ‘মানুষ গড়ার কারিগর’ বলা হলেও প্রাথমিক শিক্ষকদের বেতন দেওয়া হয় একজন গাড়ি চালকের চেয়ে কম। অন্যদিকে প্রধান শিক্ষকদের সঙ্গে সহকারী শিক্ষকদের বেতনের ব্যবধান ‘অনেক বেশি’। প্রধান শিক্ষকের বেতন স্কেল আট হাজার টাকা ও সহকারী শিক্ষকদের ছয় হাজার চারশ টাকা করার দাবি জানান তিনি। আন্দোলনরত শিক্ষকদের দাবিগুলোর মধ্যে প্রধান শিক্ষকদের পদক্রম দশম গ্রেডে এবং সহকারী শিক্ষকদের একাদশ গ্রেডে উন্নীত করা, প্রধান শিক্ষক পদে নিয়োগ বন্ধ করে পদোন্নতির ভিত্তিতে ওই পদে নিয়োগ, সহকারী শিক্ষক পদটিকে ‘এন্ট্রি পদ’ ধরে মহাপরিচালক পর্যন্ত পদোন্নতির নীতি প্রণয়ন, প্রাথমিক শিক্ষা সম্পর্কিত বিভাগীয় নীতি নির্ধারণী সিদ্ধান্তের ক্ষেত্রে সাংগঠনিক প্রতিনিধিত্ব নিশ্চিত করা, শিক্ষা বাজেটের অর্ধেক প্রাথমিক শিক্ষা খাতে ব্যয় নিশ্চিত করা, নিয়োগ বিধিতে নারী ও পুরুষের সমান শিক্ষাগত যোগ্যতা রাখা, শিক্ষক নিয়োগে ২৫ শতাংশ পোষ্য কোটা চালু করা, চাকুরির সময়কাল ২০ বছর পূর্ণ হলে স্বেচ্ছায় অবসরের সুযোগসহ পেনশনের সুবিধা চালু করার দাবিও রয়েছে। দাবি পূরণ না হলে পরে সংবাদ সম্মেলন করে মহাসমাবেশসহ নতুন কর্মসূচি ঘোষনা করা হবে হুঁশিয়ার করেন শাহিনুর আল আমীন।