হিজলায় চর দখল নিয়ে দু’পক্ষের সংঘর্ষে নিহত ১ ॥ অগ্নিসংযোগ, ভাংচুর

হিজলা প্রতিবেদক ॥ বরিশালের হিজলা উপজেলার চর আবুপুর এলাকায় চরের জমি দখল নিয়ে দু’পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এসময় মোসলেম সরদার (৭৫) নামে একজনকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। সংঘর্ষে অন্তত ৪ জন আহত হয়েছেন। জ্বালিয়ে দেয়া হয়েছে ১২-১৫ টি ঘর ও দোকান। এছাড়া একটি বাজারে ঢুকে লুটপাট চালানো হয়। ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ ৩ জনকে আটক করেছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনতে ফাঁকা গুলিবর্ষন করে পুলিশ। গতকাল শুক্রবার সকাল ৯ টার দিকে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।
নিহত মোসলেম সরদার মুলাদীর কৃষ্ণপুর গ্রামের সাবের আলী সরদারের ছেলে।
আটকরা হলেন, মিরাজ সরদার, হারুন মুন্সিকে আটক করা হয়েছে। আটককৃতদের কাছ থেকে ৫টি টেটা উদ্ধার করা হয়।
ঘটনাস্থলে থাকা হিজলা থানার এসআই জাকির হোসেন জানান, উপজেলার হরিনাথপুর ইউনিয়নের চর আবুপুর গ্রামের ১২শ’একর জমি সরকারের ১নম্বর খাস খতিয়ানের অন্তর্ভূক্ত। সরকার ওই জমি ভূমিহীনদের মাঝে দেড় একর করে বন্দোবস্ত দিয়েছে। ওই জমি নিজেদের পৈত্রিক সম্পত্তি দাবি করে আসছে চর আবুপুর গ্রামের উত্তরপাড়ের বাসিন্দা সোহরাব সিকদার ও তার সহযোগীরা। এ নিয়ে দক্ষিনপাড়ের বাসিন্দা হরিনাথপুর ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য মজিবর রহমান সরদার ওরফে মধু সরদার ও তার সহযোগীদের সাথে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলছে।
গতকাল শুক্রবার সকালে সোহরাব সিকদার গ্রুপের শতাধিক লোক চারটি ট্রলারযোগে দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে চর দখল নিতে আসে। এক পর্যায় তারা চর আবুপুর গ্রামের ১২-১৫ টি ঘরে আগুন দেয়। প্রতিপক্ষ মজিবর মেম্বর গ্রুপ প্রতিরোধ করতে গিয়ে ব্যর্থ হয়। সোহরাব গ্রুপের লোকজন মজিবর গ্রুপের চান্দু হাওলাদার, মোসলেম সরদারসহ ৩ জনকে কুপিয়ে জখম করে। তাদেরকে শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বিকেলে চিকিৎসাধীন থাকাবস্থায় মারা গেছেন মোসলেম সরদার। দখলকারীরা পার্শ্ববর্তী বাজারে প্রবেশ করে বেশ কয়েকটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা ও লুটপাট চালায়।
এসআই সুজিত সরকার জানান, ঘটনাস্থল থেকে সোহরাব গ্রুপের শাহাদাৎ সিকদার, মিরাজ সরদার, হারুন মুন্সিকে আটক করা হয়েছে। আটককৃতদের কাছ থেকে ৫টি টেটা উদ্ধার করা হয়।
স্থানীয় বাসিন্দা আবুল কালাম জানান, চর আবুপুরের ওই জমি সরকারের কাছ থেকে বন্দোবস্ত নিয়েছেন স্থানীয় ইউপি সদস্য মজিবর রহমান সরদার ওরফে মধু সরদার, জাকির সরদার সহ অন্যরা। কিন্তু সোহরাব সিকদার তাদের পৈত্রিক সম্পত্তি দাবি করে ভোগদখল করার চেষ্টা করছেন। এনিয়ে কয়েক বছর ধরে বিরোধ চলে আসছে। তাছাড়া উভয় গ্রুপই জমি দখলে নিতে আদালতে মামলা দায়ের করেছেন। মামলা এখনো চলমান। গত বৃহস্পতিবার সোহরাব গ্রুপ চরের ফসল তুলতে এলে তাদেরকে ধাওয়া করে মজিবর মেম্বর গ্রুপের লোকজন। পাল্টা জবাব দিতে আজ সোহরাব গ্রুপ দেশীয় অস্ত্র সজ্জিত হয়ে চর দখল নিতে আসলে এ সংঘর্ষের সূত্রপাত হয়।
হিজলা-মুলাদী সার্কেলের এএসপি কামরুল আহসান জানান , চরের জমি দখল নিয়ে দু’পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। সংঘর্ষ থামাতে পুলিশ সট গানের ২ রাউন্ড ফাকা গুলি চালায় ও ঘটনাস্থল থেকে ৩ জনকে আটক করে। পরবর্তীতে এ ধরনের সংঘাত এড়াতে ওই এলাকায় পুলিশ সদস্য মোতায়েন রয়েছে।